৩২ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩২ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

আকাশনীল ভট্টাচার্য, বারাকপুর: কিছুতেই যেন শান্তি ফিরছে না ভাটপাড়ায়। শনিবারের পর রবিবার রাতেও ফের ব্যপক বোমাবাজি চলল উত্তর ২৪ পরগনার কাঁকিনাড়ার ২৮ নম্বর গেট সংলগ্ন এলাকায়। বোমার তীব্রতায় জখম হয়েছে এক শিশু। এরপরই পুলিশ কমিশনার মনোজ বর্মার নেতৃত্বে এলাকায় তল্লাশি শুরু করে বিশাল পুলিশ বাহিনী। তবে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছে৷ 

[আরও পড়ুন: সীমান্ত থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে হেনস্তা, বাংলাদেশ পুলিশের হাতে নিগৃহীত ভারতীয় যুবক]

কয়েকদিন শান্ত থাকার পর শনিবার রাত থেকে ফের উত্তপ্ত হয়ে ওঠে ভাটপাড়া। বোমাবাজি শুরু হয় ভাটপাড়ার অন্তর্গত কাঁকিনাড়ার ৪ নম্বর গলির মোড়ে। গোটা এলাকায় তাণ্ডব শুরু করে দুষ্কৃতীরা৷ মুড়িমুড়কির মতো ছুঁড়তে থাকে বোমা। স্থানীয় সূত্রে খবর, এরপরই এলাকায় যায় বিশাল পুলিশ বাহিনী৷ সশস্ত্র অবস্থায় গোটা ভাটপাড়া-কাঁকিনাড়া চত্বরে টহলদারি চালান তাঁরা৷ গলিতে গলিতে ঢুকে নাকা তল্লাশি চালান হয়৷ স্থানীয় মানুষদের সঙ্গে কথা বলে পুলিশ আধিকারিকরা৷

রাতে পরিস্থিতি শান্ত হলেও রবিবার সকাল থেকে ফের উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা। প্রায় আধঘণ্টারও বেশি সময় ধরে কাঁকিনাড়ার ৫ নম্বর রেলওয়ে সাইডিংয়ে বোমাবাজি করে দুষ্কৃতীরা। এরপর এদিন রাতে আবারও বোমাবাজির ঘটনা ঘটে ভাটপাড়া থানার অন্তর্গত কাঁকিনাড়ার ২৮ নম্বর গেটের কাছে। লাগাতার বোমাবাজির জেরে গুরুতর জখম হয় একটি শিশু।ভাটপাড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত শিশুটি।  বোমার শব্দ শুনে আতঙ্কে রাস্তায় ছোটাছুটি করতে শুরু করেন স্থানীয়রা।

[আরও পড়ুন: ছেলের অন্নপ্রাশনে মহৎ উদ্যোগ, নিমন্ত্রিতদের মেহগনি গাছের চারা উপহার দম্পতির]

পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে প্রথমে ঘটনাস্থলে যায় ভাটপাড়া থানার পুলিশ। এরপর পুলিশ কমিশনার মনোজ বর্মার নেতৃত্বে ব়্যাফ ও বিশাল পুলিশ বাহিনী এলাকায় নাকা চেকিং করে। তবে পরিস্থিতি শান্ত হলেও এখনও থমথমে এলাকা। স্থানীয়দের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরেই দুষ্কৃতীরা ভাটপাড়ায় সন্ত্রাস চালাচ্ছে। পুলিশ সব জেনেও সাধারণ মানুষদের ধরে নিয়ে যাচ্ছে। এমনকী অনেকক্ষেত্রে পুলিশকে ফোন করলেও তাঁদের দেখা মিলছে না বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা। যদিও বারাকপুরের পুলিশ কমিশনারেট মনোজ বর্মার দাবি, এলাকায় শান্তি ফেরাতে নিয়মিত সেখানে প্রয়োজনীয় নজরদারি চালাচ্ছেন তাঁরা৷ সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে৷ 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং