BREAKING NEWS

২৯ চৈত্র  ১৪২৭  সোমবার ১২ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

WB Election: দিল্লিতে দু'দলের শীর্ষ নেতৃত্বের বৈঠকে কাটল জট, শান্তিপুর কংগ্রেসকেই ছাড়ল বামেরা

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: March 26, 2021 8:53 pm|    Updated: March 26, 2021 8:53 pm

An Images

বুদ্ধদেব সেনগুপ্ত: শান্তিপুর (Shantipur) আসন নিয়ে বামেদের সঙ্গে স্নায়ুযুদ্ধে শেষ পর্যন্ত জয় হল কংগ্রেসের (Congress)। অবশেষে আসনটি কংগ্রেসকে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল আলিমুদ্দিন। কংগ্রেস হাইকমান্ডের আবেদনে তাদের এই সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু।

জোটের আসন সমঝোতায় প্রথম থেকে শান্তিপুর নিয়ে সিপিএম এবং কংগ্রেস এর মধ্যে টানাপোড়েন চলছিল। গতবার যেহেতু এই আসনে কংগ্রেস প্রার্থী দিয়েছিল এবং জয়লাভ করে তাই এবারও আসনটি তাদের ছাড়তে হবে বলে দাবি করে বিধানভবন। কিন্তু কংগ্রেসের এই দাবি মানতে নারাজ ছিল আলিমুদ্দিন। তাদের পাল্টা যুক্তি ছিল, গতবার নদিয়া (Nadia) জেলায় যে তিনটি আসনে কংগ্রেস প্রার্থীরা জয়ী হয় তারা মাঝপথে দলত্যাগ করে। দুজন তৃণমূলে ও শান্তিপুরের বিধায়ক বিজেপিতে যোগ দেন। তাই এবার সেই তিনটি আসনের কোন একটি কংগ্রেসকে আত্মত্যাগ করতে হবে। শান্তিপুর আসনটিকে বেছে নেয় সিপিএম। এই আসনে কাস্তে হাতুড়ি তারা প্রতীকে জোটের প্রার্থী থাকবে বলে জানিয়ে দেন বিমান বসু। কিন্তু প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেননি। জানান, কংগ্রেসের সঙ্গে আলোচনা করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে।

[আরও পড়ুন: ভোটের আগে স্বস্তি, মমতার নির্বাচনী এজেন্টকে নন্দীগ্রামে প্রবেশে অনুমতি সুপ্রিম কোর্টের]

এদিকে, ইতিমধ্যে স্নায়ুযুদ্ধে আলিমুদ্দিনকে টেক্কা দিতে শান্তিপুরে ঋজু ঘোষালকে প্রার্থী করে কংগ্রেস। বিষয়টি প্রথমে ভালোভাবে না নিলেও মুখোমুখি সংঘাতে যেতে নারাজ ছিল বামেরা। দুই পক্ষের মধ্যে বিবাদের জল গড়ায় দিল্লি পর্যন্ত। দুই দলের শীর্ষ নেতৃত্বের মধ্যে কয়েক দফায় কথাও হয় বলে সূত্রের খবর। শেষ পর্যন্ত জয় হয় কংগ্রেসের। ঠিক হয়, যেহেতু গতবার কংগ্রেস এই আসনে প্রার্থী দিয়ে জয়ী হয়েছিল। তাই এবারও আসন সমঝোতা প্রাথমিক শর্ত অনুযায়ী আসনটিতে কংগ্রেস প্রার্থী দেবে। দু’পক্ষের আলোচনার ভিত্তিতে গৃহীত সিদ্ধান্ত সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হয় আলিমুদ্দিন ও বিধানভবনকে।

অন্যদিকে দেগঙ্গা, সামশেরগঞ্জ-সহ পাঁচটি আসনে জোটের জটিলতা একনও অব্যাহত। শনিবার বাঘমুন্ডি এবং জয়পুরে ভোটগ্রহণ তাই সমস্যা মেটানোর কোনও সুযোগ নেই। তবে যেহেতু শান্তিপুর কংগ্রেসকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে তাই সামশেরগঞ্জটি তাঁদের ঝুলিতে আসতে পারে বলে মনে করছে আলিমুদ্দিন। তবে দেগঙ্গা নিয়ে ইন্ডিয়ান সেকু্যলার ফ্রন্টের সঙ্গে ফরওয়ার্ড ব্লকের সমস্যা অব্যাহত। দু’পক্ষকেই বোঝানোর চেষ্টা চালাচ্ছে আলিমুদ্দিন। শুক্রবার বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু এক বিবৃতিতে জানান, দুই দলের শীর্ষ নেতৃত্বের সিদ্ধান্ত মেনে শান্তিপুরের প্রার্থী দেবে কংগ্রেস। জোটের অন্য শরিকরা সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থীকে জেতাতে ঝাঁপিয়ে পড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

[আরও পড়ুন: ভোটের আগের দিন কেন্দ্রীয় বাহিনীর সঙ্গে ছবি তুলে বিতর্কে জড়ালেন তৃণমূল নেতা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement