৩১ চৈত্র  ১৪২৭  বুধবার ১৪ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

WB Assembly Election 2021: বিজেপি নেতাকে মমতার ফোনের অডিও ঘিরে তুমুল বিতর্ক, কী প্রতিক্রিয়া তৃণমূলের?

Published by: Paramita Paul |    Posted: March 27, 2021 8:02 pm|    Updated: March 28, 2021 1:18 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তখন বাংলায় প্রথম দফার নির্বাচন (WB Assembly Election 2021) সবেমাত্র শুরু হয়েছে। ঠিক সেই সময় প্রকাশ্যে এল এক অডিও টেপ। আর সেই ফোনালাপ ঘিরে দিনভর সরগরম রইল বঙ্গ রাজনীতি। কারণ,  ফোনের এক প্রান্তে ছিলেন এক মহিলা, যাঁকে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) বলে দাবি করেছে বিজেপি আর অন্যপ্রান্তে তৃণমূলের প্রাক্তন সদস্য তথা বর্তমানে বিজেপির সাংগাঠনিক জেলা তমলুকের সভাপতি প্রলয় পাল।

অডিওটিতে শোনা গিয়েছে,’ তৃণমূল নেত্রী’ বিজেপি নেতাকে ভোটে সাহায্যের কথা বলছেন। এই অডিওকে কেন্দ্র করে তুমুল বিতর্ক তৈরি হয়। পরে অডিও-র সত্যতা স্বীকার করে নেয় তৃণমূল নেতৃত্ব। জানিয়ে দেয়, দলের পুরনো কর্মীকে ফিরে আসার জন্য ফোন করতেই পারেন দলনেত্রী। এ নিয়ে জলঘোলা করার কিছু নেই।

[আরও পড়ুন : বীরভূমের পাড়ুইয়ে জলাশয় থেকে উদ্ধার তৃণমূল কর্মীর মৃতদেহ, এলাকায় চাঞ্চল্য]

শনিবার সকালে অডিওটি প্রকাশ্যে আনেন ওই বিজেপি কর্মী প্রলয় পাল-ই। যেখানে ‘তৃণমূল নেত্রী’কে প্রলয়ের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলতে শোনা যায়। ‘তৃণমূল নেত্রী’কে বলতে শোনা গিয়েছে, প্রলয় যাতে এবারের নির্বাচনে তৃণমূলকে সাহায্য করে। এর পরই ‘মমতা’র কাছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দেন প্রলয়। জানিয়ে দেন, যে দল তিনি করছেন তার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করতে পারবেন না। তাই তৃণমূলে ফিরবেন না। এরপরই তাঁকে সিদ্ধান্ত ভেবে দেখার প্রস্তাব দেন ‘মমতা’। কিন্তু তাতেও বরফ গলেনি। এ প্রসঙ্গে প্রলয় জানান, “আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দীগ্রামে প্রার্থী হয়েছেন বলে আমার কথা মনে পড়েছে। আমাকে ফোন করেছেন। কিন্তু আমি বিজেপির জন্য প্রাণপাত করতেও রাজি। অধিকারী পরিবারের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক অনেকদিনের।”

এই অডিওটি প্রকাশ্যে আসার পরই দলের সহ-পর্যবেক্ষক অমিত মালব্য টুইটে দাবি করেছেন, নন্দীগ্রামে মমতা নিজের হার নিশ্চিত বুঝতে পেরেই এখন বিজেপি-কে ভাঙার চেষ্টা করছেন। যদিও এই ফোনের মধ্যে কোনও ভুল দেখছে না তৃণমূল। সাংবাদিক বৈঠক করে দলের প্রবীণ নেতা ও রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, “এই ফোনে তো কিছু ভুল দেখছি না। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কোনও অপরাধ করেননি। তিনি কত বড় গণতান্ত্রিক নেত্রী, তা আরও একবার প্রমাণ করলেন। দলের সক্রিয় কর্মী রাগ করে অন্য দলে চলে গিয়েছেন। তাঁর রাগ ভাঙাতে দলনেত্রী ফোন করতেই পারেন।” বরং তাঁর আক্ষেপ, বিষয়টিকে অন্যভাবে দেখানো হয়েছে। প্রশ্ন তুলেছেন, এই রেডিমেড অডিওটি কোথা থেকে এল? তৃণমূলের মুখপাত্রের পালটা হুঁশিয়ারি, “বিজেপি টেপ রাজনীতি করতে চাইছে তো? এবার আমরাও টেপ প্রকাশ্যে আনব।” যদিও আরেক নেত্রী দোলা সেন দাবি করছেন, সুব্রতবাবুর বক্তব্যের ভুল ব্যাখা করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন : দলীয় প্রার্থী নাপসন্দ, বদলের দাবিতে আমরণ অনশন বিজেপিরই একাংশের]

দেখুন ভিডিও:

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement