Advertisement
Advertisement
WB Panchayat Poll

WB Panchayat Poll: দমদমে না নেমে পানাগড়ে লে-র জওয়ানরা! বাহিনী মোতায়েনে সমন্বয়ের চূড়ান্ত অভাব

বিকেল ৫ টার পর থেকে তাঁদের বুথে পাঠানোয় পৌঁছতে অনেক রাত হয়।

WB Panchayat Poll: Lack of co-ordiantion to deploy central forces airlifted from Leh at Panagarh air base | Sangbad Pratidin

ছবি: উদয়ন গুহরায়।

Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:July 7, 2023 8:00 pm
  • Updated:July 7, 2023 8:04 pm

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: নির্বাচন কমিশন বুথে বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন নিয়ে নয়া পদক্ষেপ। ২,৩১০ কিলোমিটার পথ পার করে এয়ারলিফট করে কাশ্মীরের লে (Leh) থেকে উড়ানে পানাগড় (Panagarh) বায়ুসেনার ছাউনিতে আনা হলো ৫ কোম্পানি আইটিবিপির (ITBP) জওয়ানদের। যদিও তাঁদের পানাগড় বায়ুসেনা ছাউনিতে অনেকক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়। সমন্বয়ের অভাবেই এই দুর্গতি বলে বাস মালিক কর্মচারীদের দাবি।

শুক্রবার সকাল ছ’টার সময় মোটর ভেহিকেলস দপ্তর থেকে বাস মালিকদের জানিয়ে দেওয়া হয় যে, দমদম বিমানবন্দরে (DumDum Airport) বিশেষ বিমানে নামবে কাশ্মীরের লেহ থেকে আসা বিশেষ পাঁচ কোম্পানি বাহিনী। যারা হুগলি, বীরভূম-সহ উত্তরবঙ্গের বেশ কিছু জেলায় পৌঁছে যাবে বাসে ও ট্রাকে করে। কিন্তু ডানলপে (Dunlop) গাড়িগুলি  পৌঁছনোর পর মাঝ রাস্তায় ফের গাড়ির চালকদের জানিয়ে দেওয়া হয় যে কাশ্মীর থেকে আসা বাহিনী দমদম নয় পানাগড় বায়ুসেনা ঘাঁটিতে নামবে। ফের ২১ টির গাড়ি মাঝপথ থেকে ঘুরে আসে পানাগড় বায়ুসেনার অর্জন সিং বিমান বন্দরে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ‘শত্রু’ পওয়ারের আগমনে অস্বস্তিতে মহারাষ্ট্রের বহু বিজেপি বিধায়ক! মানলেন খোদ ফড়নবিশই]

সমন্বয়ের এই বিভ্রাটে দুপুর ২ টো নাগাদ বিশেষ বিমানে পানাগড়ে নেমে যান আইটিবিপির জওয়ানরা। কিন্তু বাস আসতে দেরি করায় বিকেল পাঁচটার পর এই বাহিনীকে তাঁদের গন্তব্যে পাঠানো হয়। যে বাহিনীকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে মোতায়েনের জন্য আনা হল, তাঁদের কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বিরোধীরা।  প্রথমত, লে-লাদাখের তাপমাত্রা আর বাংলার তাপমাত্রায় আকাশ-পাতাল ফারাক। দ্বিতীয়ত, ভোটকেন্দ্রে পৌঁছতে অনেক রাত হয়ে যাবে বাহিনীর। তাহলে শনিবার সকাল থেকে কীভাবে বাহিনীকে বুথে বুথে মোতায়েন করা হবে তা হবে, এই নিয়ে সরব হন বিজেপি বিধায়ক (BJP MLA) লক্ষ্ণণ ঘোড়ুই। তাপমাত্রার হেরফের সঙ্গে অহেতুক সমন্বয়ের অভাবে শারীরিক ক্লান্তি, এই দুই মিলিয়ে যথেষ্ট সমস্যায় পড়তে হতে পারে বাহিনীর জওয়ানদের বলে জানিয়েছেন লক্ষণবাবু। 

Advertisement

[আরও পড়ুন: দলে ‘অক্সিজেনের ঘাটতি’! চব্বিশের মহারণের আগে মেগা বৈঠকে নাড্ডা]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ