BREAKING NEWS

২৯ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

ছিল বিজেপি হয়ে গেল তৃণমূল, দেওয়াল লিখনকে ঘিরে অশান্তি দক্ষিণ দিনাজপুরে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: April 23, 2018 8:01 pm|    Updated: April 23, 2018 8:01 pm

An Images

রাজা দাস, বালুরঘাট: বিজেপির দেওয়াল লিখন কেটে তাতে তৃণমূল কংগ্রেস (টিএমসি) লিখে দেওয়ার ঘটনায় উত্তেজনা ছড়াল তপন ব্লকের চণ্ডীপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের মদনাহার এলাকায়। সোমবার বিষয়টি নজরে আসতেই ঘটনাস্থলে যায় জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। দেওয়াল লিখন কেটে দেওয়ার পাশাপাশি মনোনয়ন দাখিল করতে না দেওয়ার প্রতিবাদে জেলা শাসকের দপ্তরের সামনে ধরনা দেওয়া হয়।

[হাওড়ায় মনোনয়নে বাধা দেওয়ার অভিযোগ, ‘মিথ্যে নাটক’ বলছে শাসকদল]

জানা গিয়েছে, পঞ্চায়েত নির্বাচন এগিয়ে আসতেই বাড়ছে রাজনৈতিক উত্তাপ। দলীয় কার্যালয়ে হামলা, ফ্ল্যাগ-ফেস্টুন পুড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি, মনোনয়ন দাখিল করা নিয়েও সরগরম দক্ষিণ দিনাজপুর। বিজেপি প্রাথী-কর্মীদের উপর আক্রমণের অভিযোগ আগেই উঠেছিল শাসকদল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। এবার বিজেপির দেওয়াল  লিখন কেটে  তাতে তৃণমূল কংগ্রেস (টিএমসি) লিখে দেওয়ার অভিযোগ উঠল।এমনকী,  কয়েকশো দলীয় পতাকা ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে বলেই দাবি।

IMG-20180423-WA0066

তপন ব্লকের  চণ্ডীপুর গ্রাম পঞ্চায়েত মদনাহারের বিভিন্ন এলাকায় বিজেপি প্রার্থীদের একাধিক দেওয়াল  লিখন মোছা ও পতাকা পোড়ানোর  অভিযোগ উঠতেই উত্তেজনা ছড়ায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে তপন থানার পুলিশ ও জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপির অভিযোগ, রাতের অন্ধকারে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এমনটা করেছে। এনিয়ে এদিন জেলা বিজেপির পক্ষ থেকে তপন থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে বলে জানা গেছে। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

[মনোনয়নের নামে প্রহসন চলছে, মমতাকে কাঠগড়ায় তুলে তোপ মুকুলের]

জেলা বিজেপির যুব মোর্চার সভাপতি অভিষেক সেনগুপ্ত জানান, রাজ্যের শাসক দল বিরোধীদের দাবিয়ে রাখার চেষ্টা করছে। দলীয় ফ্ল্যাগ-ফেস্টুন ছিঁড়ে দেওয়ার সঙ্গে এবার রাতের অন্ধকারে দেওয়াল লিখন কেটে সেখানে টিএমসি লিখে দেওয়া হয়েছে। ভয় থেকেই এমন করছে শাসক দলের লোকেরা।তৃণমূল কংগ্রেস নেতা প্রবীর রায় ঘটনার কথা অস্বীকার করেছেন। অপবাদ দিতেই তৃণমূলের নাম নেওয়া হচ্ছে। বিজেপি নিয়ে তাঁদের কোন মাথাব্যাথা নেই বলেই জানিয়েছেন প্রবীরবাবু ।

[মনোনয়নে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে ফের আদালতের দ্বারস্থ হচ্ছে বামফ্রন্ট]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement