BREAKING NEWS

২  ভাদ্র  ১৪২৯  বুধবার ১৭ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ভোট গণনার শুরুতেই উত্তপ্ত বাংলা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 17, 2018 9:38 am|    Updated: May 17, 2018 9:38 am

WB panchayat polls: Violence reported as counting progresses

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  ভোট গণনা শুরুতেই রাজ্যজুড়ে বিক্ষিপ্ত অশান্তির অভিযোগ৷ গণনা শুরু করাকে কেন্দ্র করে আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বেশ কয়েকটি জায়গায় অশান্তির অভিযোগ তুলছে বিরোধীরা৷ গণনা কেন্দ্রে বিরোধী এজেন্টদের ঢুকতে বাধা দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ৷ঘটনাস্থল  রাজারহাট, হাঁসখালি, ভগবানপুর৷ বৃহস্পতিবার সকালে বলাগড় কলেজের সামনে থেকে সিপিএম এজেন্টদের আইকার্ড ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে শাসকদলের বিরুদ্ধে৷ নদিয়ায় হাঁসখালিতে বিরোধী এজেন্টদের গণনা কেন্দ্রে ঢুকতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে৷ শাসকদলের হাতে বাধাপ্রাপ্ত হয়ে এদিনই জেলাশাসকের দ্বারস্থ হয় বিরোধীরা৷

[গণনা শেষের আগে মিছিল নয়, মোবাইল ব্যবহারেও নিষেধাজ্ঞা]

অন্যদিকে, মুর্শিদাবাদের ভগবানগোলায় সিপিএম এজেন্টকে মারধরের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে৷ অন্ডালের ব্লকে বিজেপি এজেন্টদের ঢুকতে বাধা দেওয়া অভিযোগ৷ ভোট গণনা কেন্দ্রে যাওয়ার ফর্ম ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছে৷ বিজেপির তরফে বিষয়টি আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশকেও জানানো হয়েছে৷ উলুবেড়িয়ার গণনা কেন্দ্রে বিরোধী এজেন্টদের ঢুকতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ তুলেছে বিজেপি৷ দুর্গাপুর মহকুমার চাকটি ব্লকের গণনা কেন্দ্রে বিরোধীদের কোনও প্রতিনিধির দেখা মেলেনি৷ বিরোধীশূন্য অন্ডাল, কাঁকসা, দুর্গাপুর-ফরিদপুর ও পাণ্ডবেশ্বরের ভোটগণনা কেন্দ্র৷ পাথরঘাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপি প্রার্থীকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে৷ রাজারহাটের গণনা কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী ও তাঁদের এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে৷

[ভোট পরবর্তী হিংসা, ভাইপোকে হাসপাতালে ভরতি করতে এসে মাথা ফাটল কাকার]

অন্যদিকে, উত্তরবঙ্গেও একই অভিযোগ তুলেছে বিরোধী শিবির৷ কোচবিহারের মাথাভাঙা ও মেখলিগঞ্জের  ভোট গণনা কেন্দ্রে প্রার্থীদের ঢুকতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে৷ উত্তর দিনাজপুরের চোপড়া কলেজে বিরোধীদের বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে৷ তবে, গণনা কেন্দ্রে অশান্তি রুখতে আগেই কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে কমিশন৷ রাজ্য নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, প্রতিটি গণনাকেন্দ্রের দু’শো মিটারের মধ্যে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে৷ গণনাকেন্দ্রে ঢোকা বেরনোর ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে৷ প্রতি গণনাকেন্দ্রেই রয়েছে সশস্ত্র পুলিশ৷ থাকছে ন্যূনতম ইন্সপেক্টর পর্যায়ের অফিসার৷ এছাড়াও গণনাকেন্দ্রে রয়েছেন সিনিয়র পুলিশ অফিসাররা৷ তবে, এত আয়োজনের পরও শুরু থেকেই এড়ানো গেল না অশান্তি৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে