BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরাতে মাত্র ২টি ট্রেনের আরজি কেন?,’ রাজ্যের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ অধীর

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: May 7, 2020 5:35 pm|    Updated: May 7, 2020 6:52 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভিনরাজ্যে আটকে পড়া শ্রমিকদের ঘরে ফেরাতে পর্যাপ্ত ট্রেনের ব্যবস্থা করছে না রাজ্য, এমনই বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন বহরমপুরের সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরি (Adhir Ranjan Chowdhury)। কেন এই উদাসীনতা রাজ্যের, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি। যদিও কেন্দ্রের প্রশাসনিক দক্ষতার অভাবেই সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে বলে অভিযোগ তৃণমূল নেতৃত্বের। 

পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে তোপ দেগে কংগ্রেস সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরি (Adhir Ranjan Chowdhury) বলেন, “দেশের বিভিন্ন প্রা্ন্তে আটকে রয়েছেন শ্রমিকরা। প্রবল অর্থ সংকটে ভুগছেন। খাবার পাচ্ছে না। বাড়ি ফেরার সব রাস্তা বন্ধ। রাজ্যের তরফে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। শ্রমিকরা আমাকে ফোন করে কাঁদছেন।” এরপরই বলেন যে, শ্রমিকদের স্বার্থে রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করেছেন তিনি। সেখানেই রেলমন্ত্রীর মারফত তিনি জেনেছেন যে, রাজ্যের তরফে শ্রমিকদের ফেরাতে মাত্র ২ টি ট্রেনের আরজি জানানো হয়েছিল। কিন্তু দেশের বিভিন্ন প্রান্তে এত শ্রমিক আটকে থাকা সত্ত্বেও কেন মাত্র ২ টি ট্রেন চাওয়া হল তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন কংগ্রস সাংসদ। গোটা ঘটনা চূড়ান্ত হতাশাজনক বলে দাবি করে তিনি জানান,  ইতিমধ্যেই একটি ট্রেন রাজস্থান থেকে কলকাতার উদ্দেশে রওনা দিয়েছে। অপর ট্রেন এর্নাকুলাম থেকে আসছে বহরমপুরে।

[আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কে থমকে জনজীবন, সুদিনের প্রার্থনায় যজ্ঞের আয়োজন খড়গপুরে]

যদিও ভিনরাজ্যের শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর ক্ষেত্রে যে সমস্যাগুলো দেখা দিয়েছে তার পিছনে রাজ্য নয় কেন্দ্রের পরিকল্পনার অভাবই দায়ী বলেই দাবি তৃণমূল নেতৃত্বের। প্রসঙ্গত, করোনা রুখতে লকডাউন জারি দেশে। বন্ধ গণপরিবহণ। ফলে বিভিন্ন রাজ্যে আটকে পড়েছেন বহু পরিযায়ী শ্রমিক। খাদ্য সংকটে ভুগছেন অধিকাংশই। সেই কারণে বিভিন্ন রাজ্যের আবেদনের ভিত্তিতে পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরাতে বেশ কিছু স্পেশ্যাল ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত নেয় রেল। কিন্তু তা সত্ত্বেও অভাব-অভিযোগ লেগেই রয়েছে।

[আরও পড়ুন: লকডাউনে অমিল রক্ত, ‘দিদিকে বলো’তে ফোন করেই সমাধান পেল থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement