২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

দেহ সৎকার নিয়ে বচসার জের, শান্তিপুরে শ্মশানেই ধারাল অস্ত্রের কোপে খুন যুবক!

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: October 22, 2021 12:25 pm|    Updated: October 22, 2021 1:20 pm

Youth killed into the burning ghat in Santipur due to chaos with other group | Sangbad Pratidin

প্রতীকী ছবি

বিপ্লবচন্দ্র দত্ত, কৃষ্ণনগর: দেহ সৎকার করতে গিয়ে রক্তারক্তি কাণ্ড শান্তিপুরের (Santipur) শ্মশানে। দু’পক্ষের মধ্যে বচসার জেরে শ্মশানের মধ্যেই খুন (Murder) হলেন এক যুবক। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ঘটনাটি ঘটেছে। পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত বছর চব্বিশের বাপ্পা বিশ্বাস। পেশায় তিনি কাপড় ব্যবসায়ী। বাড়ি শান্তিপুরের গবারচর এলাকায়। আচমকা এই নৃশংস হত্যাকাণ্ডের জেরে কার্যত স্তব্ধ পরিবার। খবরটি বিশ্বাসই করতে পারছেন না তাঁরা।

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাতে প্রতিবেশী এক বৃদ্ধার দেহ সৎকারের জন্য স্থানীয় যুবকরা শান্তিপুর শ্মশানে নিয়ে যান। সেই সময় শান্তিপুরের পাঁচপোতা এলাকা থেকে বেশ কয়েকজন যুবক অপর একটি দেহ সৎকার করাতে শ্মশানে আসে। এরপরই কোনও একটি কারণে দুই পক্ষের মধ্যে বচসা শুরু হয়। অভিযোগ, অন্ধকারের মধ্যে ধারাল অস্ত্র দিয়ে বাপ্পার পেটের বাঁ-দিকে আঘাত করে মদ্যপ যুবকরা। রাতেই রক্তাক্ত অবস্থায় বাপ্পাকে শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে, চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে জানিয়ে দেন।

[আরও পড়ুন: রামদেবের সুপারিশ আর মোদিজির জনপ্রিয়তায় সাংসদ হয়েছেন বাবুল! তীব্র আক্রমণ জিতেন্দ্রর

রাতদুপুরে নৃশংস হত্যাকাণ্ডের ঘটনার পর থেকে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, খুনের ঘটনার সঙ্গে কে বা কারা যুক্ত, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। পরিবার সূত্রে খবর, কাপড়ের ব্যবসায়ী বাপ্পা বিশ্বাস রোজগেরে সদস্য ছিল। সকলের বিপদে-আপদে ঝাঁপিয়ে পড়তেন। কিন্তু শ্মশানে দেহ সৎকার করতে গিয়ে কী এমন হল যাতে তাঁকে এমন নৃশংসভাবে খুন হতে হল, তা ভাবাচ্ছে পরিবারকে। কে বা কারা এর সঙ্গে যুক্ত, তাদের সঙ্গে বাপ্পার কোনও পুরনো শত্রুতা ছিল কি না, সে বিষয়েও অন্ধকারে পরিবার। খুনের তদন্তে নেমেছে শান্তিপুর থানার পুলিশ। দোষীদের কঠোরতম শাস্তির দাবিতে সরব পরিবার থেকে এলাকাবাসী – সকলে। 

[আরও পড়ুন: মদ্যপানে বাধা পেয়ে রাগের বশে ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কাটল স্ত্রী!]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে