৫ মাঘ  ১৪২৬  রবিবার ১৯ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo ফিরে দেখা ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংগ্রাম সিংহরায়, শিলিগুড়ি: অজানা অপপ্রচারকারীর বিরুদ্ধে সাইবার থানায় অভিযোগ দায়ের করল বিজেপি যুব মোর্চা। অভিযোগ, নিজেদের ভুল ঢাকতে যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি সরিয়ে সেখানে বিজেপি রাজ্য সভাপতির ছবি লাগিয়ে অপপ্রচার করছে তৃণমূল। সাইবার থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক শুভাশিস চাকী জানান, একটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে। প্রকৃত ঘটনা কী হয়েছে তা খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রয়োজনে মামলাও করা হতে পারে।

সোশ্যাল সাইটে ইতিমধ্যেই বাকযুদ্ধ বেধে গিয়েছে বিজেপি এবং তৃণমূল সমর্থকদের মধ্যে। সৌজন্যে যুব তৃণমূলের সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের একটি ছবি সম্বলিত ব্যানার। অভিযোগ, মূল ব্যানার থেকে অভিষেকের ছবি সরিয়ে সেখানে এডিট করে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ছবি লাগিয়ে প্রচার করা হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়াতে এই ঘটনার পরই অবশ্য দু’ভাগ হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। অনেকেই ঘটনার নিন্দা করেছেন। তবে কট্টর তৃণমূলপন্থীরা বিষয়টি নিয়ে পালটা প্রচার করা শুরু করেন। সেখানেই গোল বেধেছে।

তবে বিজেপি যুব মোর্চার তরফে বিষয়টি নিয়ে শুধুমাত্র নিন্দা করেই তারা ক্ষান্ত থাকতে চাননি। মঙ্গলবার তারা শিলিগুড়ি সাইবার থানায় গিয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। তাদের দাবি, যে ব্যক্তি ওই ছবিটিকে এডিট করে দিলীপবাবুর ছবি দিয়ে তাঁদের দলের নামে দুর্নাম ছাড়াতে চাইছে তাকে চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিক পুলিশ। যুব মোর্চার শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলা সভাপতি কাঞ্চন দেবনাথ জানান, ১২ জানুয়ারি যুব তৃণমূলের তরফে স্বামী বিবেকানন্দের জন্মজয়ন্তীর একটি মিছিল হয়। বিবেকানন্দের জায়গায় তৃণমূল সাংসদ তথা যুব তৃণমূলের সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি ব্যবহার করে প্রথমে স্বামীজিকে অপমান করা হয়েছে।

পরে আবার চারিদিকে নিন্দার ঝড় বয়ে যেতে শাক দিয়ে মাছ ঢাকতে অভিষেকের ছবির জায়গায় তাঁদের দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ছবি বসিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় অপপ্রচার করা শুরু হয়েছে। উদ্দেশ্য একটাই, বিজেপির বিরুদ্ধে কুৎসা রটানো। যা কোনও মতেই মেনে নেওয়া যায় না। তিনি বলেন, “আমরা শিলিগুড়ি সাইবার থানাতে অভিযোগ জানিয়েছি। তাঁরা তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন। ব্যবস্থা না নেওয়া হলে পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করব।” এদিকে যুব তৃণমূলের দার্জিলিং জেলা সভাপতি বিকাশরঞ্জন সরকারের দাবি, ছবি এডিটে তৃণমূলের কারও কোনও হাত নেই। তিনি বলেন, “বিজেপি সভাপতির ছবি ব্যবহারের মতো কোনও রুচি তৃণমূলের কারও হবে না। যদি এমন কেউ করে থাকে, পুলিশ নিশ্চয়ই তাকে খুঁজে বের করবে। প্রমাণ হয়ে যাবে, তাঁরা কারা।”

এদিন তিনি আরও জানান, তাঁদের মিছিলে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি ব্যবহার নিয়ে অনেকে বদনাম করার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু সেদিন মিছিলে নব্বই শতাংশ ছবি বিবেকানন্দের ছিল। তাঁদের নেতার কয়েকটি ছবি তাঁরা ব্যবহার করেছিলেন। তা নিয়ে ভুল ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করা হচ্ছে বিভিন্ন জায়গায়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং