১৭ চৈত্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ৩১ মার্চ ২০২০ 

Advertisement

দেশের ইতিহাসে প্রথম! কাশ্মীর হাই কোর্টের শূন্যপদে বিভিন্ন রাজ্য থেকে আবেদনের সুযোগ

Published by: Paramita Paul |    Posted: December 30, 2019 7:35 pm|    Updated: December 30, 2019 7:35 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বাধীনতার পর দেশের ইতিহাসে প্রথমবার। জম্মু কাশ্মীরে চাকরির জন্য আবেদন করবেন দেশের বিভিন্ন প্রান্তের চাকরি প্রার্থীরা। সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের পরই ভূস্বর্গের বিশেষ মর্যাদা উঠে গিয়েছে। তাই এবার এই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে জম্মু ও কাশ্মীর হাই কোর্টে নন-গেজেটেড পদের জন্য আবেদন করবেন বিভিন্ন রাজ্যের চাকরিপ্রার্থীরা। ইতিমধ্যে চাকরির বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছে। শুরু হয়েছে আবেদন প্রক্রিয়াও। তবে চাকরির ক্ষেত্রে জম্মু ও কাশ্মীরের স্থায়ী বাসিন্দাদের একচেটিয়া আধিপত্য তুলে নেওয়া কিছুটা হলেও ক্ষুব্ধ তাঁরা। তাঁদের ক্ষোভে জল ঢালতে ইতিমধ্যেই কেন্দ্রের দ্বারস্থ হয়েছেন স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব। অন্যদিকে, ভূস্বর্গে চাকরির আবেদন করতে পারায় খুশি অন্য রাজ্যের বাসিন্দারা। এর ফলে কাজের বাজার কিছুটা হলেও বাড়ল বলে মনে করছেন তাঁরা।  

জানা গিয়েছে, জম্মু ও কাশ্মীর হাই কোর্টের বিভিন্ন পদে লোক নিয়োগ করা হবে। মোট শূন্যপদ ৩৩। এর মধ্যে গাড়ি চালক, স্টেনোগ্রাফার, টাইপিস্ট পদে নিয়োগ করা হবে। সেই মর্মে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৭টি পদ ‘OM’ অর্থাৎ ওপেন মেরিট শ্রেণির। এই পদগুলিতে সারা দেশ থেকেই আবেদন জানানো যাবে। বাকি আসনে ‘জম্মু ও কাশ্মীর রিজার্ভেশন রুলস, ২০০৫’ মেনে নিয়োগ করা হবে। একজন প্রার্থী একের বেশি পদের জন্য আবেদন করতে পারবেন। জম্মু, কাশ্মীর ও লাদাখ ছাড়া অন্য রাজ্যের বাসিন্দা হলে অনলাইনে হাই কোর্টের রেজিস্ট্রারের কাছে আবেদন করতে পারবেন। আর এই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের বাসিন্দা হলে জেলার প্রিন্সিপাল জজের কাছে চাকরির আবেজন জানানো যাবে। ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসের ৩১ তারিখ পর্যন্ত আবেদন করা যাবে। বিজ্ঞপ্তিতে চাকরির খুঁটিনাটি বলা রয়েছে।

[আরও পড়ুন : মাধ্যমিক পাশেই মিলতে পারে লোয়ার ডিভিশন ক্লার্কের চাকরি, জেনে নিন আবেদনের খুঁটিনাটি]

সূত্রের খবর, চাকরির ক্ষেত্রে জম্মু ও কাশ্মীরের বাসিন্দাদের একচেটিয়া আধিকার চলে যাওয়ায় ক্ষুব্ধ স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁদের এই ক্ষতই প্রলেপ দিতে তৎপর স্থানীয় বিজেপি নেতারা। তাঁরা ইতিমধ্যে কেন্দ্র সরকারের কাছে সংরক্ষণের আবেদন জানিয়েছেন। এই এলাকার চাকরিতে অনগ্রসর শ্রেণিদের পাশাপাশি এলাকার স্থায়ী বাসিন্দাদের জন্যও সংরক্ষণ চালু করার উপরও জোর দিচ্ছেন তাঁরা।    

  

Advertisement

Advertisement

Advertisement