২৭ আশ্বিন  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৫ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কখনও কি মনে হয় আপনার সহকর্মীরা আপনার উপর ক্ষুব্ধ? আপনাকে সিরিয়াসলি নিচ্ছে না? অথবা আড়ালে আপনাকে নিয়ে হাসাহাসি করছে? তাহলে হতাশ হবেন না, বরং ভেবে দেখুন এসব আপনার অপেশাদারী ব্যবহারের জন্য নয়তো? তেমন হলে কিন্তু সচেতন হোন। কার্মক্ষেত্রে হয়তো আপনার ইমেজের গ্রাফ নিচের দিকে নামছে।

পাংচুয়ালিটি বজায় রাখুন

মাঝেমধ্যে অফিসে দেরিতে পৌঁছানো হয়তো তেমন কোনও প্রভাব ফেলে না। কিন্তু প্রতিদিন দেরিতে পৌঁছালে ইমেজ খারাপ হবেই। এতে আপনার অপেশাদারী মনোভাবই ফুটে ওঠে। বোঝা যায়, আপনি একেবারেই পাংচুয়াল নন। আপনি আপনার চাকরি কতটা সিরিয়াসলি নিচ্ছেন, পাংচুয়ালিটির উপরও নির্ভর করে আপনার ইমেজে। একই কথা খাটে অফিস ছাড়ার সময়ও। রোজই যদি আপনি সময়ের আগে বেরিয়ে যান, আপনার ইমপ্রেশন খারাপ হতে বাধ্য।

[ গোপনে আপনাকে হিংসে করছে কেউ? বুঝবেন কীভাবে? ]

নেতিবাচক মনোভাব

“আমি পারব না” বা  “আমার দ্বারা এসব হবে না” গোছের মনোভাব না রাখাই ভাল। এমন মনোভাব আপনার ইমেজও নেতিবাচক করে দেবে। আর যদি এমন মনোভাব রাখেন, সহকর্মীরা আপনার উপর ভরসা করতে পারবেন না। আড়ালে আপনার নাম হয়ে যেতে পারে ‘ছিচকাঁদুনে’। সবকিছুকেই ডরায়। তাই অফিসে এনার্জি হারানো কখনই উচিত নয়। বরং কোনও সমস্যা হলে তার সমাধান খোঁজার চেষ্টা করুন।

time

ডেস্কে কী করেন

এটি কিন্তু খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অনেকে ভাবেন, “আমি ডেস্কে কী করছি, তা সম্পূর্ণ আমার ব্যক্তিগত বিষয়। অফিসের কাজে ফাঁকি মেরে তো করছি না।” কিন্তু এমন চিন্তাভাবনা আপনার মার্কস পেশাগত দিক থেকে কমিয়ে দিতে পারে। আপনি ডেস্কে কতক্ষণ ফোনে ব্যস্ত থাকেন, কতক্ষণ সোশাল সাইটে ব্যস্ত থাকেন, তা প্রভাব ফেলতে পারে আপনার ইমেজে। সবসময় পেশাগত জীবন আর ব্যক্তিগত জীবন আলাদা রাখুন। এমন করলে আপনি শুধু অফিসের চোখেই খারাপ হবেন না, সহকর্মীদের চোখেও ছোটো হয়ে যাবেন।

[ অপছন্দের সিনিয়রের সঙ্গে কাজ করে ক্লান্ত? মাথা ঠান্ডা রাখুন এই পাঁচ উপায়ে ]

গল্প করা

যখন চা বা কফি খেতে যাচ্ছেন, তখন গল্প করতেই পারেন। কিন্তু কাজের মধ্যে নৈব নৈব চ। কাজের সময় কাজকেই প্রাধান্য দিন। সেই সময় কথা বলা ভাল অভ্যাস নয়। তা সে সহকর্মীদের সঙ্গেই হোক বা ফোনে। তবে জরুরি কথা হলে অবশ্যই বলুন। নাহলে কিন্তু আপনিই বিপাকে পড়বেন।

phone

পরিচ্ছন্নতা মেনে চলুন

পরিচ্ছন্ন থাকা সবসময়ই দরকার। কিন্তু নিজের ইমেজ তৈরি করতে হলে অফিসে ধোপদুরস্ত থাকুন। নাহলে কিন্তু আপনাকে নিয়ে কমেন্টের বন্যা বয়ে যাব। নিজেকে তো বটেই। ডেস্কও সবসময় পরিষ্কার রাখুন। পেপার কাপ কখনও ডেস্কে রাখবেন না। ডেস্কে টিস্যু রাখুন। যাতে দরকার হলে ব্যবহার করতে পারেন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং