৪ শ্রাবণ  ১৪২৬  শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অ্যাকশন হিরোর তকমা বহুদিন ছেড়ে এসেছেন। এখন তিনি পুরদস্তুর ভার্সেটাইল অ্যাক্টর। পেয়ে গিয়েছেন জাতীয় স্বীকৃতিও। তবে এখানেই থেমে থাকতে রাজি নন বলিউডের খিলাড়ি। শুধু সিনেমা নয়, তার বাইরেও সমাজের প্রতি তাঁর দায়বদ্ধতা রয়েছে। এমনটাই মনে করেন অক্ষয়। তাই তাঁর উদ্যোগেই জওয়ানদের জন্য খুলেছে বিশেষ অনুদান প্রকল্প। এবার দেশের ধর্ষণ সমস্যার সামাধানের নয়া উপায় বাতলালেন জাতীয় পুরষ্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা।

[গান্ধীমূর্তি ভেঙে ফেলে রাখা হল আবর্জনার স্তূপে, বিক্ষুব্ধ বাসিন্দারা]

অক্ষয়ের মতে, দেশের প্রায় তিরিশ শতাংশ ধর্ষণের ঘটনা এড়ানো সম্ভব যদি মহিলাদের খোলা স্থানে শৌচকর্ম করতে না যেতে হয়। খুব শিগগিরিই আসছে তাঁর নয়া ছবি ‘টয়লেট এক প্রেম কথা’। সম্প্রতি তারই এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ কথা বলেন অভিনেতা। তিনি বলেন, তাঁকে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত করেছে সত্যি ঘটনা অবলম্বনে তৈরি এই কাহিনি। কেমন করে এক মহিলা শুধুমাত্র বাড়িতে শৌচালয় নেই বলে স্বামীকে ডিভোর্স দিতে প্রস্তুত ছিলেন। এমন চিন্তাধারাই দেশ বদলাতে সক্ষম হবে বলে অভিমত তাঁর। কোথাও তিনি পড়েছিলেন দেশের প্রায় ৫৪ শতাংশ স্থানে ঠিকঠাক শৌচালয় নেই। শৌচালয়ের এই সমস্যা যদি মিটে যায় তাহলে দেশের অন্তত ৩০ শতাংশ ধর্ষণের ঘটনা এড়ানো সম্ভব হবে।

 

এদিন অক্ষয় জানান, কেবলমাত্র শৌচালয় তৈরি করলেই হবে না। মানুষের চিন্তাধারাও পাল্টাতে হবে। অনেক মহিলারাই বাড়িতে শৌচালয় থাকা সত্বেও অভ্যাসের বশে খোলা স্থানে শৌচকর্ম করতে যান। দুষ্কৃতীরা তখন নির্জন স্থানে মহিলাদের একা থাকার সুযোগ নিয়ে থাকেন। এমনটা অনেকটাই বন্ধ হওয়া সম্ভব একটু বাড়তি সচেতনতা অবলম্বন করলে। কেন্দ্র সরকারের উদ্যোগেই তৈরি করে দেওয়া হচ্ছে শৌচালয়। এবার দেশের মানুষের দায়িত্ব যেন এই সুযোগকে ঠিকঠাকভাবে কাজে লাগানোর। এমনটাই অভিমত অভিনেতার।

[সুখোই দুর্ঘটনায় উদ্ধার পাইলটের রক্তমাখা জুতো]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং