BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সলমনকে খুনের চেষ্টা, শুটিং সেটেই সশস্ত্র দুষ্কৃতী হানা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 11, 2018 10:38 am|    Updated: January 11, 2018 10:38 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কথায় বলে, ‘আ সোল ইজ অলওয়েজ সেফ হোয়েন ইট ইজ ইন ইটস নেটিভ প্লেস।’ অর্থাৎ, নিজের জায়গায় সব্বাই সুরক্ষিত। সল্লু মিঞাও বুঝি সেরকমটাই ভেবেছিলেন। তাই বহাল তবিয়তে শুটিং সারছিলেন মুম্বইয়ের স্টুডিওয়ে। আসন্ন ছবি ‘রেস ৩’-এর। তবে বিপদ যে সেখানেও ওত পেতে বসেছিল, ‘কে তা জানত?’

সোমবার সলমনের আসন্ন ছবি ‘রেস ৩’-এর শুটিং স্পটেই হামলা চালাল একদল সশস্ত্র দুষ্কৃতী। সলমনকে পিটিয়ে মারাই তাদের লক্ষ্য ছিল বলে নিশ্চিত করেছে পুলিশ। তবে আঁচড় লাগেনি টাইগার-এর গায়ে। বাম্পার, দেহরক্ষী ও পুলিশ মিলিয়ে প্রায় ১২ জন তাঁকে নিকটবর্তী গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টে সরিয়ে আনে। সুরক্ষার্থেই একপ্রকার গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে তাঁকে। সোশ্যাল মিডিয়া কম ব্যবহার করার নিদান দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে নিজের ‘কারেন্ট লোকেশন’-এর ছবি দেওয়া বা তার উল্লেখ না করারও উপদেশ দেওয়া হয়েছে।

[মধুচন্দ্রিমায় বড় বিপত্তি, মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরলেন পাওলি-অর্জুন]

গত সপ্তাহেই পাঞ্জাবের কুখ্যাত গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোই সলমনকে হত্যার হুমকি দেয়। সলমনের কৃষ্ণসার হরিণ হত্যার কারণেই এই হুমকি। রাজস্থানের বিষ্ণোই সম্প্রদায়ের কাছে কৃষ্ণসার হরিণ পরমপূজ্য। তাদের আরাধ্য প্রাণীকে হত্যার অপরাধে আদালতের তোয়াক্কা না করে নিজেই বলিউড স্টারের ‘প্রাণদণ্ড’ ঘোষণা করেছিল লরেন্স। সে কথায় হরিণঘাতী টাইগার বিশেষ পাত্তা না দিলেও বাড়িয়ে দেওয়া হয় তাঁর নিরাপত্তাব্যবস্থা। মুম্বই পুলিশ আবার জানায়, শুধু রাজস্থানেই নয়, মুম্বইয়েও তিনজন তাঁর প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছে।

[এবার পর্দায় ইন্দিরা গান্ধী হয়ে উঠবেন বিদ্যা বালান]

কোনও কথা কানে না তুলেই মঙ্গলবারও ‘রেস ৩’-এর শুটিংয়ে ব্যস্ত ছিলেন ভাইজান। রোজকার মতোই। সেই শুটিং স্পটের সামনেই বিক্ষোভ ও ভাঙচুর চালায় একদল সশস্ত্র দুষ্কৃতী। তার অব্যবহিত পরেই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। সলমন ও প্রযোজক রমেশ তৌরানিকে শুটিং বন্ধের নির্দেশ দেয়। বাড়িয়ে দেওয়া হয় সেটের নিরাপত্তাব্যবস্থা। ছ’জন পুলিশ একটি গাড়ি করে সলমনকে গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টে নিয়ে যায়। তাঁর ব্যক্তিগত গাড়ি করে আবার একদল পুলিশ তাঁর বাড়ি যায়। সেখানেও নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।

[যোধপুরেই খতম করব, সলমনকে খুনের হুমকি জেলবন্দি গ্যাংস্টারের]

দেহরক্ষী শেরা বা অন্যান্য নিরাপত্তারক্ষী ছাড়াই মাঝেমাঝে শহরের রাস্তায় ঘোরেন সলমন। কাটিয়ে নেন মনের মতো ‘মি টাইম’। অন্য সুপারস্টারের থেকে এখানেই আলাদা ভাইজান। তবে মঙ্গলবারের ঘটনার পর এইসব ঝুঁকিবহুল হাবভাব বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তাঁকে। কারণ সরষের মধে্যই ভূত দেখছে পুলিশ। ঘরের মাটিতেই ঘরের ছেলের প্রাণনাশের আশঙ্কা। গ্যাংস্টার লরেন্সের হুমকিকে তাই একেবারেই ফেলনা করে দেখছে না পুলিশ। এই ঘটনায় লরেন্সের হাত রয়েছে কি না-তা খুঁটিয়ে দেখছে পুলিশ। আগামী দু’দিন ‘রেস ৩’ মূল নারী চরিত্রে থাকা অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজের সঙ্গে একটি নাচের দৃশ্যে শুটিং করার কথা ছিল সলমনের। শুটিং হত সংশ্লিষ্ট সেটেই। পুলিশ সেই শুটিং বন্ধ রাখার অনুরোধ করেছে প্রযোজক-সহ গোটা ইউনিটকেই। বিষয়টি নিয়ে ভাবনা-চিন্তা করছে ‘রেস ৩’-র কাস্ট অ্যান্ড ক্রু।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement