৭ ফাল্গুন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

অর্ণব আইচ: ঠিক যেন গোরস্থানে সাবধানের গল্প! কবরের উপর হামলা। গোরস্থানে গিয়ে এমন দৃশ্য দেখে মগজাস্ত্রে শান দিয়েছিলেন ফেলুদা। শহর কলকাতার উপর সত্যজিৎ রায়ের সেই কালজয়ী কাহিনির মতোই ঘটনা ঘটে গেল বাস্তবের তিলোত্তমায়। কার্যত হামলাই বটে। তাও আবার যে সে কবর নয়, গাড়ি দুর্ঘটনায় মৃত অভিনেত্রী-মডেল সনিকা সিং চৌহানের কবরে। ঘটনায় থানায় দায়ের হয়েছে অভিযোগ। কবরের সঙ্গে কে বা কারা এমন কাণ্ড ঘটাল তা নিয়ে ধন্দে পুলিশ।

ঘটনা ঠিক কী? দিন দুই-তিনেক আগে লোয়ার সার্কুলার রোডের গোরস্থানের নিরাপত্তা আধিকারিক থানায় অভিযোগ করেন। অভিযোগ, কে বা কারা রাতের অন্ধকারে হামলা চালিয়েছে সনিকার কবরে। কবরের একটা ধার দিয়ে উপড়ে ফেলার চেষ্টা হয়েছে। তারপর লক্ষ্য করে দেখা যায়, কবরের গায়ে একটি পিতলের পাত ছিল। সেটি গায়েব। পুলিশ অভিযোগ পেয়েই নড়েচড়ে বসে। কলকাতার বুকে গোরস্থানে কবরের উপর হামলা সত্যজিৎ রায় তাঁর ‘গোরস্থানে সাবধান’ গল্পে লিখেছিলেন বটে। কিন্তু বাস্তবে তার পুনরাবৃত্তি হবে তা ছিল অনুমানের বাইরে।

[আরও পড়ুন: সনিকা মৃত্যু মামলায় ধাক্কা বিক্রমের, তাঁর বিরুদ্ধে চার্জ গঠনের নির্দেশ হাই কোর্টের]

জানা গিয়েছে, কবরের গায়ে পিতলের পাতের উপর যিশুর কিছু বাণী লেখা ছিল। সেটাই দুষ্কৃতীরা উপড়ে তোলার চেষ্টা করেছে। সেটি যখন গায়েব, তাতে আন্দাজ ছিঁচকে চোরেরই কাজ এটা। তবে সন্দেহ একটা থেকেই যাচ্ছে। যদি নিছক পিতলের পাত চুরির উদ্দেশ্যে এমনটা না হয়ে থাকে তবে! তাহলে কি এর পিছনে অন্য কোনও রহস্য রয়েছে। উল্লেখ্য, সনিকা মৃত্যু মামলায় অভিনেতা বিক্রম চট্টোপাধ্যায়ের উপর খাঁড়া এখনও রয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে চার্জ গঠনের নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাই কোর্ট। তাই কবরে হামলার ঘটনা নিছক চুরির উদ্দেশ্যেই এমনটা নিশ্চিত হয়ে বলা যাচ্ছে না। তবে অত্যন্ত গোপনীয়তার সঙ্গে বিষয়টি তদন্ত করছে পুলিশ। সূত্রের সন্ধানে তদন্তকারী আধিকারিকরা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং