১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

‘ওয়ার’ মুক্তির আগে মুম্বই থেকে ফোনে কথা বললেন অভিনেত্রী বাণী কাপুর। শুনলেন বিদিশা চট্টোপাধ্যায়

‘বেফিক্‌রে’-র তিন বছর পর আবার আপনি সিনেমায় ফিরেছেন। ফিল্ম-সেট, ক্যামেরা, অ্যাকশন কতটা মিস করেছেন?

বাণী: আমি ফিল্ম সেটটাকে খুব মিস করেছি। আমার সেটে থাকতে খুব ভাল লাগে। ইট’স সো ওয়ান্ডারফুল। বিশেষত যখন একটা ভাল টিমের সঙ্গে কাজ করা হয়। ভাল পরিচালক, ভাল স্ক্রিপ্টে কাজ করার আনন্দটাই আলাদা।

‘ওয়ার’-এর ট্রেলার দেখে মনেই হয় যে এটা মূলত হৃতিক এবং টাইগারের ছবি। আপনাকে কীভাবে পাব?

বাণী: এটা ঠিক যে ‘ওয়ার’ মূলত এই চরিত্র দুটোকে ঘিরেই। ইট’স অ্যান আউট অ্যান্ড আউট অ্যাকশন ফিল্ম। এবং সেটা দু’জনকে ঘিরেই। কিন্তু আমি খুশি এই ছবির অংশ হতে পেরে কারণ আমার চরিত্রটা খুব ক্রিটিকালি লিংকড এই পিভোটাল চরিত্রের সঙ্গে। পরিচালক সিদ্ধার্থ আমাকে একটা দারুণ রোলে কাস্ট করেছেন। এবং আশা করি ছবিটা মুক্তি পাওয়ার পর আমার চরিত্রটা একটা ইমপ্যাক্ট তৈরি করতে পারবে।

কোনও সারপ্রাইজ থাকছে?

বাণী: অ্যাকচুয়ালি এক্ষুনি দর্শককে কতটা প্রমিস করতে পারব জানি না। ছবিটা ২ অক্টোবর মুক্তি পাওয়ার পর দর্শকই ডিসাইড করুক যে আমার চরিত্রটা কিছু এফেক্ট তৈরি করতে পারল, না কি ইনসিগনিফিক্যান্ট হয়ে থেকে গেল। আমি আমার দিক থেকে বলতে পারি যে কাজটা করতে গিয়ে মজা পেয়েছি এবং এমন একটা চরিত্র যেটা আমি আগে কখনও করিনি। নতুন কিছু করতে পারার আনন্দ এবং এমন একটা টিম এবং প্রোজেক্টের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারাটাই বড় ব্যাপার।

[ আরও পড়ুন: প্রথমবার জুটি বাঁধছেন যশ-প্রিয়াঙ্কা, বলবেন ডিপ্রেশনের গল্প ]

vani-1

এই ছবিতে ‘ঘুংরু’ গানটার জন্য পোল ডান্সিং শিখেছেন এবং নিজে শুট করেছেন, বডি ডাব্‌ল ব্যবহার করেননি। কেমন অভিজ্ঞতা?

বাণী: আমাকে পোল ডান্সিং শিখতে গিয়ে নিজের ফিটনেস নিয়ে অনেকটা খাটতে হয়েছে। আপার বডি ওয়েট, ব্যালান্স করতে শেখা- এসব নিয়ে কাজ করতে হয়েছে এই নাচ শেখার জন্য। এবং নাচটা বেশ কঠিন। প্রায় দু-তিন মাস ধরে একটা গানের রিহার্সাল চলেছে। আমি বডি ডাব্‌ল ব্যবহার করতে চাইনি কারণ ভাবলাম নিজেকে যখন প্রেজেন্ট করছি তখন নাচটা নিজে করতে পারলেই ভাল। তাই কোনও পেশাদার ডান্সার আমার অংশটা করুক আমি চাইনি। আই ওয়ান্টেড টু গিভ ইট এ ট্রাই।

সোশ্যাল মিডিয়াতে ‘ওয়ার’-এর প্রোমোশনে হৃতিক বনাম টাইগার ইস্যুতে ফ্যানরা বিভক্ত হয়েছেন। আপনি কার দলে? হৃতিক না টাইগার?

বাণী: ওরে বাবা! এটা ডিসাইড করা খুবই কঠিন। ছবির পরিচালকের দলে যাওয়াই শ্রেয়।

জানতাম এমন কিছুই বলবেন। (হাসি)!

বাণী: হ্যাঁ, কারণ কাকে বাছব! এটা বলা সত্যিই খুব কঠিন। বোথ আর ফেনোমেনাল।

আপনি অল্প ছবি করলেও, বলিউডের সেরাদের সঙ্গে কাজ করেছেন এবার আপনার নায়কদের মধ্যে একটা বাছাই পর্ব করুন। হৃতিক রোশন, রণবীর সিং, রণবীর কাপুরের মধ্যে কে সবচেয়ে ফ্যাশনেবল, সেক্সি এবং কে সবচেয়ে ভদ্র?

বাণী: ওয়েল সবচেয়ে ভদ্র এবং বিনয়ী হৃতিক রোশন। আই থিংক রণবীর সিং সবচেয়ে ফ্যাশনেবল। নানা ধরনের পোশাক ট্রাই করেন এবং দারুণ ক্যারিও করতে পারেন। অ্যান্ড রণবীর কাপুর ইজ দ্য সেক্সিয়েস্ট পার্সন।

২০১৩-এর পর আপনাকে সেভাবে ছবি করতে দেখা যায়নি। এই সময়টাতে আপনি ইনসিকিওরিটিতে ভোগেননি? নাকি ছবি ফিরিয়ে দিয়েছেন? এই সময়টা কেমন ছিল।?

বাণী: সব অভিনেতাই চাইবে ভাল প্রোজেক্টের অংশ হতে, আর এখন তো ভাল-ভাল কনটেন্ট ড্রিভেন সিনেমা তৈরি হচ্ছে। সেইসব ছবির অংশ হওয়ার কথা মনে হতেই পারে। কিন্তু আমি কোয়ালিটি অফ ওয়ার্ক নিয়ে সমঝোতা করতে চাইনি। ছবির সংখ্যা আমাকে কখনও তাড়া করে না। আমি ভাল কাজের সঙ্গে খুব প্যাশনেটলি যুক্ত থাকতে চাই। নিজের ফাইনান্স গোছাতে বা লাইফস্টাইল আরও বিলাসী করে তোলার জন্য ছবি করতে চাই না। আই অলওয়েজ ওয়ান্টেড টু ডু ফিল্মস ফর রাইট রিজন। এবং আমি যখন জানি আমি কী চাই তখন সিচুয়েশন হ্যান্ডেল করাটা সহজ হয়ে যায়।

vani

কিন্তু একটা চাপ তো থাকেই। সেটা কীভাবে ডিল করেন?

বাণী: আমি মনে করি নিজেই নিজেকে প্রেশার দিয়ে ফেলি আমরা। আমাদের সেটা বন্ধ করা উচিত। অন্য মানুষের এক্সপেকটেশন পূরণ করতে এই পৃথিবীতে আসিনি আমরা। আমি কখনওই বাইরের কোনও মানুষকে আমার ওপর প্রেশার তৈরি করতে অ্যালাউ করিনি। এবং আমি যখন জানি আমি কী ধরনের কাজ করতে চাই, তাই হাফ হার্টেডলি কোনও কাজ আমি করি না।

[ আরও পড়ুন: গান্ধীকে শ্রদ্ধার্ঘ, বছর পাঁচেক পর ছবি পরিচালনায় সুভাষ ঘাই ]

এবং কাজের ব্যাপারে আপনি যেভাবে ভাবেন। কী মনে হয় ‘ওয়ার’ আপনার কেরিয়ারে তেমন একটা কাজ?

বাণী: অ্যাকচুয়ালি দ্য হোল নেশন ইজ ওয়েটিং ফর দ্য ফিল্ম। আমিও ছবিতে দু’জনকে একসঙ্গে দেখার অপেক্ষায় আছি। ইটস ওয়ান্ডারফুলি প্যাকেজ্‌ড অ্যান্ড প্রেজেন্টেড বাই সিদ্ধার্থ আনন্দ। দ্য ফিল্ম লুকস লাইক মিলিয়ন বাক্‌স। আই হোপ সবাইকেই এই ছবি এন্টারটেন করবে।

রণবীর কাপুরের সঙ্গে ‘সামসেরা’য় কাজ করছেন। এই পিরিয়ড ফিল্মে আপনি ডান্সার। এর জন্য নাকি আপনি কত্থক শিখছেন?

বাণী: (হাসি) আমার নতুন নতুন জিনিস শিখতে খুবই ভাল লাগে। অভিনেত্রী না হলে সেই সুযোগ পেতাম কি না কে জানে। এই যে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করতে গিয়ে নতুন নতুন জিনিস শিখছি সেটা খুব এক্সাইটিং। কত্থক যদিও আমি স্কুলে শিখেছি। কিন্তু এই ছবির জন্য আরও ফিটনেস প্রয়োজন ছিল।

পরপর ছবিতে হৃতিক রোশন এবং রণবীর কাপুরের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা কেমন?

বাণী: ওহ! হৃতিক প্রচণ্ড হেল্পফুল এবং সার্পোটিভ। যখন আমার সিনও করছি অভিনেতা হিসেবে ও ইমোশনালি অ্যাভেলেব্‌ল থেকেছে। ওর প্রেজেন্সটাই অনেকটা সাহায্য করেছে কারণ অভিনয়টা একটা দেওয়া-নেওয়া সম্পর্কের মধ্য দিয়ে চলে। রিঅ্যাকশন আরও ভাল হতে পারে যদি উলটোদিকের মানুষটার অ্যাকশন প্রপার হয়। হৃতিকের সঙ্গে সেটাই হয়েছে। আর রণবীরও দারুণ। রণবীর সেটে খুব নর্মাল বিহেভ করে। এতটাই স্বাভাবিক যে কোনও স্টারসুলভ হাবভাব থাকে না। হি ইজ অলসো ভেরি কুল। অ্যান্ড অ্যাজ এ কো-অ্যাক্টর রণবীর ইজ অলসো ভেরি গিভিং। এবং এইজন্যই এদের সঙ্গে কাজ করতে ভাল লাগে।

‘ওয়ার’ মুক্তি পাচ্ছে দুর্গাপুজোর মুখে। কিছু বলতে চান?

বাণী: মায়ের আশীর্বাদে ছবিটা ভাল চলুক। আর আমি কখনও দুর্গাপুজোর প্যান্ডেলে যাইনি। মুম্বইতেও হয়। তবু আমার যাওয়া হয়নি। আমার খুবই পুজো দেখার ইচ্ছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং