২৬ আষাঢ়  ১৪২৭  শনিবার ১১ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

ফের অর্থ সাহায্য অক্ষয়ের, টেলিভিশনের দুস্থ কলাকুশলীদের দিলেন ৪৫ লক্ষ টাকা

Published by: Bishakha Pal |    Posted: May 28, 2020 4:55 pm|    Updated: May 28, 2020 4:55 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা সংক্রমণ এড়াতে দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। কিন্তু তা সত্ত্বেও করোনার প্রকোপ কমছে না। উলটে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে মানুষ। দেশের অন্যান্য ইন্ডাস্ট্রির মতো বলিউডের অবস্থাও বেশ খারাপ। এই পরিস্থিতিতে সিনে দুনিয়ার দিন আনে দিন খায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাঁদের যতটা সম্ভব সাহায্য করছেন তারকারা। ব্যতিক্রম নন অক্ষয় কুমারও। শুধু সিনেমাজগত নয়, থিয়েটারের কলাকুশলীদের দিকেও তিনি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। এবার সিনে অ্যান্ড টিভি অ্যাসোসিয়েশনকে (CINTAA) অভিনেতা ৪৫ লক্ষ টাকা দিয়ে সাহায্য করলেন।

CINTAA’র সিনিয়র যুগ্ম সচিব অমিত বহল বলেন, অক্ষয় যে এভাবে তাঁদের পাশে দাঁড়াবেন, তাঁরা ভাবতে পারিনি। এর জন্য অভিনেতাকে অনেক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তিনি। করোনার আবহে ইন্ডাস্ট্রির অনেকের রোজগার নেই। সিনেমার মতো টেলিভিশনের কলাকুশলী ও টেকনিশিয়ানদেরও অবস্থা শোচনীয়। তাই সংস্থার তরফে অভিনেতা আয়ুব খান ও কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যরা তাঁদের পাশে দাঁড়ানোর উদ্যোগ নেন। সেই উদ্যোগেই শামিল হন জাভেজ জাফরি। তাঁর মাধ্যমেই সাজিদ নাদিয়াদওয়ালা এবং অক্ষয় কুমারের সঙ্গে যোগাযোগ করে সংস্থা।

[ আরও পড়ুন: আমফান বিধ্বস্ত বাংলার জন্য মন ব্যাকুল মিস ইংল্যান্ডের, ত্রাণ জোগাড় করছেন বঙ্গতনয়া ]

বহেল আরও জানিয়েছেন, অক্ষয় কুমার যখন এই উদ্যোগের কথা শোনেন এক মুহূর্ত সময় নষ্ট করেননি। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই সংস্থার সদস্যদের তালিকা পাঠানোর জন্য অনুরোধ করেন। তালিকা পাওয়ার পরই তিনি দেড় হাজার দিনমজুরকে সাহায্য করার সিদ্ধান্ত নেন। তিনি ও প্রযোজক সাজিদ নদিয়াদওয়ালা প্রতিটি সদস্যের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ৩ হাজার টাকা পাঠান। এখানেই শেষ নয়। অক্ষয় ও সাজিদ জানিয়েছেন, এরপর যখনই প্রয়োজন পড়বে, তাঁদের যেন জানানো হয়। তাঁরা সাধ্যমতো সাহায্য করবেন।

অক্ষয় কুমার এর আগে করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ২৫ কোটি টাকা দিয়েছেন। এছাড়া মুম্বই পুলিশ ফাউন্ডেশনে ২ কোটি টাকা দেন। বৃহন্নুম্বাই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনকে (বিএমসি) পিপিই, মাস্ক ও ব়্যাপিড টেস্টিং কিট কেনার জন্য ৩ কোটি টাকা অনুদান দেন অভিনেতা। অক্ষয়ের এই কাজের প্রশংসা করে স্ত্রী টুইঙ্কল খান্না টুইট করেন, এই মানুষটির জন্য তিনি গর্ব অনুভব করেন। অক্ষয় যখন এই সিদ্ধান্ত নেন তখন জিজ্ঞাসা করেছিলেন, এত টাকা দেওয়া কি ঠিক হচ্ছে? অভিনেতা উত্তরে বলেন, “আমি যখন যাত্রা শুরু করেছিলাম, আমার কাছে কিছুই ছিল না। এখন আমি এই জায়গায় এসে পৌঁছেছি। আজ যাদের কাছে কিছু নেই আমি তাদের থেকে কীভাবে মুখ ফিরিয়ে থাকতে পারি?”

[ আরও পড়ুন: আমফানে বিধ্বস্ত হিঙ্গলগঞ্জ পরিদর্শন নুসরতের, প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে করলেন জরুরি বৈঠক ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement