২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

মাদক সংক্রান্ত হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের অ্যাডমিন ছিলেন দীপিকা! সুশান্ত মামলার চাঞ্চল্যকর মোড়

Published by: Suparna Majumder |    Posted: September 25, 2020 5:04 pm|    Updated: September 25, 2020 5:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ক্ষণে ক্ষণে পালটাছে সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) মৃত্যুর তদন্তের গতিপ্রকৃতি। একের পর এক তথ্য প্রকাশ্যে আসছে। এবার আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে দীপিকা পাড়ুকোন (Deepika Padukone)। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সমন পাওয়ার পর থেকেই সংবাদমাধ্যম এবং সোশ্যাল মিডিয়া থেকে দূরত্ব বজায় রেখে চলছেন বলিউডের ‘মস্তানি’। স্ত্রীর ছায়াসঙ্গী হয়ে রয়েছেন রণবীর সিংও। এরই মধ্যে শোনা যাচ্ছে নতুন কানাঘুষো। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, যে হোয়াটসঅ্যাপ (Whatsapp) গ্রুপের সূত্র ধরে বলিউডে চার অভিনেত্রীকে সমন পাঠানো হয়েছে, তার নাকি অ্যাডমিন দীপিকাই। NCB সূত্রে নাকি এই খবর জানতে পেরেছে বলে ওই সংবাদমাধ্যমের দাবি।

শুক্রবার NCB অফিসে গিয়ে বয়ান রেকর্ড করিয়েছেন রকুলপ্রীত সিং (Rakul Preet Singh)। সোশ্যাল মিডিয়ায় গুঞ্জন, ২০১৮ সালে রিয়ার সঙ্গে মাদক নিয়ে আলোচনা করার কথা নাকি স্বীকার করেছেন অভিনেত্রী। তবে তিনি নিজে মাদক সেবন করতেন না বলেই দাবি করেছেন রকুলপ্রীত।

এদিকে, এদিনই দীপিকার ম্যানেজার করিশ্মা প্রকাশকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন NCB আধিকারিকরা। পাশাপাশি, করণ জোহরের (Karan Johar) ধর্মা প্রোডাকশনের এক্সিকিউটিভ প্রোডিউসার ক্ষীতিশ রবিপ্রসাদের (Kshitij Raviprasad) বাড়িতে নাকি হানাও দেয় NCB। সেখান থেকে ক্ষীতিশ ও তাঁর এক মহিলা সঙ্গীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়। ধর্মা প্রোডাকশনের সহকারী পরিচালক অনুভব চোপড়াকেও (Anubhav Chopra) জিজ্ঞাসাবাদ করছেন আধিকারিকরা।

[আরও পড়ুন: করোনামুক্ত হয়েও শেষরক্ষা হল না, কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী এসপি বালাসুব্রহ্মণ্যমের জীবনাবসান]

শোনা গিয়েছিল, শনিবার দীপিকার জিজ্ঞাসাবাদের সময় নাকি রণবীর সিং (Ranveer Singh) উপস্থিত থাকতে চেয়ে আবেদন জানিয়েছিলেন। কারণ দীপিকার বারবার প্যানিক অ্যাটাক হচ্ছে। পরে আবার শোনা গিয়েছে, NCB আধিকারিকদের কাছে এমন কোনও আবেদন জমা পড়েনি। দীপিকার জন্য নাকি ১২ সদস্যের লিগাল টিমের সঙ্গে নিরন্তর আলাপ-আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন রণবীর।

এতকিছুর মধ্যে সুশান্তের বাবার আইনজীবী বিকাশ সিং (Vikas Singh) আবার দাবি করেছিলেন যে সুশান্তের মৃত্যু আত্মহত্যা নয়, শ্বাসরোধ হওয়ার ফলে হয়েছে। এমনটা তিনি AIIMS-এর চিকিৎসকের থেকে জানতে পেরেছেন। এ বিষয়ে AIIMS-এর ফরেনসিক টিমের প্রধান ডা. সুধীর গুপ্ত (Dr. Sudhir Gupta) জানান, গলার দাগ দেখে এমন কোনও সিদ্ধান্তে পৌঁছানো সম্ভব নয়।  

[আরও পড়ুন: #MeToo অভিযোগে কাঠগড়ায় অনুরাগ, পরিচালকের সঙ্গে কেমন ছিল ঋতুপর্ণা-ঋতাভরীদের অভিজ্ঞতা?]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement