BREAKING NEWS

১৯  মাঘ  ১৪২৯  শনিবার ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

‘পাত্তাই দিই না’, ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ বিতর্কে ক্ষমাপ্রার্থী ইজরায়েলি পরিচালককে পালটা দিলেন বিবেক

Published by: Sayani Sen |    Posted: December 1, 2022 3:21 pm|    Updated: December 1, 2022 3:21 pm

Filmmaker Vivek Agnihotri reacts to Nadav Lapid’s apology after calling Kashmir Files vulgar । Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ নিয়ে নিজের মন্তব্যের জন্য ইতিমধ্যেই ক্ষমা চেয়েছেন ইজরায়েলি পরিচালক নাদাভ লাপিড। কাউকে তিনি আঘাত কিংবা অসম্মান করতে চাননি বলেই জানান। এবার ইজরায়েলি পরিচালককে পালটা জবাব দিলেন ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ ছবির পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রী। তিনি বলেন, “উনি কী বলেছেন তাতে আমার কিছু যায় আসে না। পাত্তা দিই না। আমার কাছে এই প্রসঙ্গটি আর বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ নয়। ইজরায়েলি পরিচালক কী বললেন আর কী বললেন না, তাতে কিছু যায় আসে না।”

ঘটনার সূত্রপাত হয় গোয়া আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে (IFFI2022)। উৎসবে জুরি প্রধানের ভূমিকা পালন করেছেন নাদাভ লাপিড। ইফি’র শেষদিনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মার্চে মুক্তি পাওয়া ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ (The Kashmir Files) সিনেমাকে অশ্লীল আখ্যা দেন তিনি। উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে সিনেমাটি তৈরি করা হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন। ইজরায়েলি পরিচালকের এমন মন্তব্যের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। তাঁর মন্তব্যে থাকা ‘ভালগার’ এবং ‘প্রোপাগান্ডা’ শব্দ দু’টি নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়। অভিনেতা অনুপম খের থেকে দর্শন কুমার আবার পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রী সকলেই ইজরায়েলি পরিচালককে একহাত নেন। ছবির কোনও দৃশ্য, সংলাপ কিংবা প্রেক্ষাপট মিথ্যে প্রমাণ করতে পারলে সিনেমা আর তৈরি করবেন না বলে পালটা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেন বিবেক।

[আরও পড়ুন: হাঁটুতে অস্ত্রোপচার রুক্মিণীর, কেমন আছেন অভিনেত্রী?]

ইজরায়েলি পরিচালকের এহেন মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়ে নেন সেদেশের রাষ্ট্রদূত নাওর গিলন (Naor Gilon)। টুইটে তিনি লেখেন, “একজন মানুষ হিসাবে আমি লজ্জিত। ইজরায়েলি পরিচালকের এরকম দুর্ব্যবহারের জন্য ক্ষমাপ্রার্থী।” তবে এত কিছুর পরেও নিজের মন্তব্যে অনড় ছিলেন খোদ নাদাভ লাপিড (Nadav Lapid)।

একটি সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “ছবিটি সত্যিই উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তৈরি করা হয়েছে। তবে তা সত্ত্বেও ছবিটি অসাধারণ বলব। কারণ, দর্শকেরা পরিচালকের আসল উদ্দেশ্যকে ধরতে পারেননি। আমার যা মনে হয়েছে বা যা দেখেছি সেটা বলাই দায়িত্ব। একা আমি নই। জুরি বোর্ডে থাকা অন্যান্য সদস্যরা ছবিটি নিয়ে ঠিক একইরকম মন্তব্য করেছে। তবে তাঁরা ভীত, সন্ত্রস্ত তাই প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি।” তবে এই মন্তব্যের পর ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই নিজের মন্তব্যের জন্য ক্ষমাপ্রার্থনা করেন পরিচালক। বলেন, “আমি কাউকে অপমান করতে চাইনি। যাঁরা সত্যিই এই দুর্দশার স্বীকার হয়েছেন তাঁদের আত্মীয়দের অসম্মান করা আমার লক্ষ্য ছিল না। আমি সত্যিই ক্ষমাপ্রার্থী।”

[আরও পড়ুন: মা হতে চলেছেন মালাইকা? মুখ খুললেন অর্জুন কাপুর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে