BREAKING NEWS

১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সামনে এল সুশান্তের ময়নাতদন্তের শেষ রিপোর্ট, কী জানাল পুলিশ?

Published by: Bishakha Pal |    Posted: June 24, 2020 6:55 pm|    Updated: June 24, 2020 6:55 pm

Final postmortem report says no external injuries in Sushant Singh Rajput's body

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) ময়নাতদন্তের রিপোর্ট প্রকাশ করল মুম্বই পুলিশ। রিপোর্টে স্পষ্ট বলা হয়েছে, গলায় ফাঁস লাগার কারণেই দমবন্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে অভিনেতার। তাঁর ভিসেরা সংরক্ষণ করে তা রাসায়নিক পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এর আগেও সুশান্তের পোস্টমর্টেম করা হয়েছিল। সেই রিপোর্টে তিনজন চিকিৎসক সই করেছিলেন। তবে এবার চূড়ান্ত রিপোর্টে পাঁচজন চিকিৎসক সই করেছেন। তাঁর ফরেনসিক পরীক্ষার রিপোর্ট তাড়াতাড়ি দেওয়ার জন্য পুলিশের তরফে একটি চিঠিও গিয়েছে ফরেন্সিক বিভাগে।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, সুশান্তের শরীরে কোনও লড়াইয়ের চিহ্ন বা বাহ্যিক কোনও আঘাতের চিহ্ন নেই। তাঁর নখ পরিষ্কার ছিল। রিপোর্ট অনুযায়ী এটি স্পষ্ট আত্মহত্যার ঘটনা। অন্য কোনও কারণ এর পিছনে নেই। সুতরাং, সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার দিশা সালিয়ানের মৃত্যুর সুশান্তের মৃত্যুতে যে কারণগুলি উঠে এসেছিল, তার এখনও পর্যন্ত কোনও প্রমাণ মিলল না। এই মামলায় এখনও পর্যন্ত মোট ২৩ জনের বক্তব্য রেকর্ড করা হয়েছে। সুশান্ত সিং রাজপুতের চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট সঞ্জয় শ্রীধর এই ২৩তম ব্যক্তি। অন্য যাঁদের বিবৃতি রেকর্ড করা হয়েছে, তাঁরা হলে সুশান্তের বাবা এবং তিন বোন, বন্ধু সিদ্ধার্থ পিঠানি, ক্রিয়েটিভ কন্টেন্ট ম্যানেজার, রাঁধুনি, পরিচারক, চাবিওয়ালা, সুশান্তের বিজনেস ম্যানেজার, তাঁর পিআর ম্যানেজার, সুশান্তের প্রথম সিরিয়ালের পরিচালক, বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী, মুকেশ ছাবরা প্রমুখ।

[ আরও পড়ুন: ‘অন্যায়ের প্রতিবাদ করুন, তবে সুশান্তের নাম ভাঙিয়ে নয়’, নেপোটিজম নিয়ে মন্তব্য ইরফানপুত্রের ]

১৪ জুন সুশান্তের মুম্বইয়ের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় অভিনেতার ঝুলন্ত দেহ। কয়েক দিন ধরেই বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছিলেন অভিনেতা। তাই রবিবার সকালে তাঁরা সুশান্তের ফ্ল্যাটে গিয়েছিলেন। বারবার দরজা ধাক্কা দিতেও খোলেননি। বাড়ির পরিচারিকার সন্দেহ হয়। তড়িঘড়ি পুলিশে খবর দেন পরিচারিকা। এরপরই দরজা ভেঙে সুশান্তের মৃতদেহ উদ্ধার করে মুম্বই পুলিশ। সূত্রের খবর বলছে, অবসাদে ভুগছিলেন দীর্ঘদিন ধরে। বাড়ি থেকে পাওয়া গিয়েছে ডিপ্রেশনের ওষুধ। সূত্রের খবর, বহুদিন থেকেই হতাশায় ভুগছিলেন অভিনেতা। ডাক্তারও দেখাচ্ছিলেন। যদিও এনিয়ে এখনও বিস্তারিত তদন্ত চলছে।

[ আরও পড়ুন: কেমন আছেন কোরিওগ্রাফার সরোজ খান? জানালেন বলিউড প্রযোজক কুণাল কোহলি ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে