×

৪ ফাল্গুন  ১৪২৫  রবিবার ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

নির্মল ধর, বার্লিন: প্রতিযোগিতা থেকে সরে গেলেও রীতেশ সাহার ছবি ‘ফটোগ্রাফ’ বাজার বিভাগে দর্শক টানছে৷ বাজার মানেই বিক্রিবাটা, লক্ষ্মীর আগমন৷ গতকাল সন্ধেবেলায় মার্কেটিংয়ে শো ছিল ‘ফটোগ্রাফ’ -এর৷ ওখানে সাধারণ দর্শকদের প্রবেশাধিকার নেই৷ শুধুমাত্র অতিথিরা৷ বেশ ভালই ভিড় হয়েছে শুনলাম৷ শুক্রবার রাত পর্যন্ত ছবির দুই শিল্পী নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি বা সোনিয়া মালহোত্রা আসেননি৷ ১২ ফেব্রুয়ারি এই ছবির প্রোমোশন৷ সেদিনই সবাই আসবেন৷

বার্লিন চলচ্চিত্র উৎসবে প্রতিযোগিতায় নেই ভারতীয় ছবি ‘ফটোগ্রাফ’

জোয়া আখতারের ‘গাল্লি বয়’-এর একটা শো হয়ে গিয়েছে জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে৷ বার্লিন ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে ওই ছবির প্রথম প্রোমোশন হয়ে গেল উৎসবের প্রথম দিনেই৷ জোয়া ছাড়া আর ওই ছবির কেউই আসেননি৷ এদিনে বিকেলেই মার্কেটিং বিভাগের ‘ইন্ডিয়ান প্যাভিলিয়ন’-র উদ্বোধন করলেন তথ্য এবং সম্প্রচার দপ্তরের অতিরিক্ত সচিব মিঃ আলি রেজা রিজভি এবং গোয়া উৎসবের সফল পরিচালক শ্রীচৈতন্যপ্রসাদ৷ চা খাইয়ে এক ডজন বিদেশি অতিথিদের অভ্যর্থনা জানালেন৷ না, তেমন কোনও নামী মানুষকে দেখলাম না৷ বাজার বিভাগে ঢোকার মুখেই এক তলায় ছিরিছাদহীন এক চিলতে জায়গা নিয়ে এবারের প্যাভিলিয়ন৷ বিশেষ কোনও ছবির পোস্টার নেই৷ জোর দেওয়া হচ্ছে কো-প্রোডাকশন এবং বিদেশি ছবির ভারতে প্লটিং করার ব্যাপার নিয়ে৷ পাশেই উজবেকিস্তানের স্টলটির সাজ, ঐতিহ্য আর রুচির ছাপ রয়েছে৷ যদিও সেখানেও দর্শক তেমন ছিলেন না৷ আসলে ভারতীয় সিনেমা স্টলটি যেন করতে হয় বলে করা হয়েছে৷ সরকারি অবহেলার ছাপ সর্বত্র৷ আন্তরিকতা নেই৷

কেমন ছিল সরস্বতী পুজোর অভিজ্ঞতা, স্মৃতির ঝাঁপি উপুড় করলেন সেলেবরা

ওখানেই দেখা হল উদিত ভাগধ নামে এক তরুণীর সঙ্গে৷ জানতে পারলাম তাঁর প্রথম ফিচার ‘ডাস্ট’৷ এবারের বার্লিনের পার্সপেক্টিভ জার্মান বিভাগে দেখানো হচ্ছে৷ ছবির প্রযোজক জার্মান হলেও বিষয় এবং লোকেশন মধ্যপ্রদেশ৷ ওখানেই কাজ করেছেন উদিতা৷ উদ্বোধনী রাতের পার্টিতে আবিষ্কার করা গেল অসমের রিমা দাসকে৷ ‘ভিলেজ রকস্টার’ অস্কারে ভারতের প্রতিনিধি হওয়ার পর থেকেই লেঁজ মিলছিল না৷ তিনি ভীষণ ব্যস্ত ছিলেন নাকি অস্কার প্রোমোশনে৷ ছবি ছিটকে গেছে যেখানে৷ এবার ‘বুলবুল ক্যান সিং’ নিয়ে রিমা বার্লিনের জেনারেশন বিভাগে৷ বেশ গর্বিত মনে হল নিজের সাফল্যে ইতিমধ্যেই৷ কলকাতার শিশু চলচ্চিত্র উৎসবের জন্য তাঁর সঙ্গে যোগাযোগের অনেক চেষ্টা করেছিলেন কর্তৃপক্ষ৷ কিন্তু অস্কারের ব্যস্ততার জন্য তখন কোনও সাড়া দেননি৷ জিজ্ঞাসা করায় বললেন, ‘‘কেয়া করেগা৷ লাস্ট মিনিট পে বোলা না৷’’ বললেন ডিনার করতে৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং