BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২৯ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

মুক্তি পেল ‘জুলি ২’ ছবির ট্রেলার, কী বক্তব্য প্রেজেন্টর পহেলাজের?

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 4, 2017 3:46 pm|    Updated: September 29, 2019 4:26 pm

'Julie2' trailer released, all focus on presenter Pahlaj Nihalani

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তাঁর জ্বালায় প্রায় তিতিবিরক্ত হয়ে উঠেছিলেন ভারতীয় পরিচালকেরা। সংস্কারের বাণী শুনিয়ে কোন সংলাপ আর কোন দৃশ্যতে যে তিনি কাঁচি চালিয়ে দেবেন , তা বোঝা ছিল বড় দায়। কোনও কোনও সিনেমার ক্ষেত্রে তো এত বেশি কাটাকাটি করেছেন যে গল্পের মানেই বদলে যাওয়ার জোগাড়। তাঁকে বলিউডের একটা সময়ের ত্রাস বললেও অত্যুক্তি করা হবে না, কারণ প্রযোজক পরিচালকরা তাঁকে ভয়ই পেতেন প্রায়। তিনি হলেন সিবিএফসি বোর্ডের প্রাক্তন প্রধান পহেলাজ নিহালানি। সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশনের প্রধানের পদ থেকে অপসারণের পর এবার তাঁকে দেখা গেল নতুন ছবি ‘জুলি টু’-এর প্রেজেন্টর ও ডিস্ট্রিবিউটার হিসাবে।

Julie-2-trailer-d

সোমবার প্রকাশিত হলো ‘জুলি টু’-এর ট্রেলার। সেনসেশনাল এই ট্রেলার দেখে রীতিমতো হতবাক গোটা বলিউড। কী করে এই ছবি প্রেজেন্ট করছেন পহেলাজ নিহালানি? এখন কোথায় গেল তাঁর সংস্কার? যে পহেলাজ ছবি থেকে বাদ দিতে বলেন ‘ইন্টারকোর্স’ শব্দ, সে পহেলাজের ট্রেলারের ভাষা শুনলেই চোখ কপালে উঠে যাওয়ার জোগাড়। অশ্লীল শব্দ বাদ দেওয়ার প্রসঙ্গে প্রাক্তন সিবিএফসি প্রধান জানান, ‘ঐ ছবির সার্টিফিকেশন নিয়ে সমস্যা ছিল, শব্দ নিয়ে নয়।’ অন্যদিকে তাঁকে যখন ‘জুলি টু’ নিয়ে প্রশ্ন করা হয়, তিনি বলেন, ‘এই ছবিকে সেন্সর বোর্ড যে সার্টিফিকেট দেবে, তাই মাথা পেতে নেবেন তাঁরা। ছবির সার্টিফিকেশন নিয়ে মার্কেটিং করবেন না।’

এর আগেও পহেলাজ একাধিক এমন ছবি পরিচালনা করেছেন, যেগুলির উত্তেজক বেশ কিছু দৃশ্য আজও নেটদুনিয়ায় ঘুরে বেড়ায়। পহেলাজ যখন সংস্কারি কাঁচি উঁচিয়ে রাজত্ব চালাচ্ছিলেন, তখন অনেকেই প্রশ্ন করেছিলেন যে, নিজের অতীত কি ভুলে গেলেন নিহালানি? দায়িত্ব থেকে অব্যাহতির পর অবশ্য স্বমেজাজে স্বস্থানে ফিরেছেন। নেহা ধুপিয়া অভিনীত ২০০৪-এর ছবি ‘জুলি’র সিক্যুয়েল এটি। ছবির ট্রেলার ইতিমধ্যেই মুক্তি পেয়েছে। যেখানে অভিনেত্রী রাই লক্ষ্মীকে দেখা গেছে বেশ কয়েকটি বোল্ড দৃশ্যে। পহেলাজ নিহালানি এ ছবিকে অ্যাডাল্ট ফ্যামিলি ড্রামার তকমা দিলেও এ যে বেশ সাহসী এবং কোনও দিক থেকেই ফ্যামিলি ড্রামা নয়, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। বিশেষত সেন্সর প্রধান হিসেবে তাঁর মনোভাবের একেবারে বিপরীত মেরুর ছবি বলা যায় এ ছবিকে। শেষে সেই ছবির নিবেদক হলেন বলিউডে সংস্কারের ধারক বাহক পহেলাজ নিহালানি! এটাই যেন মেনে নিতে পারছে না সিনেদুনিয়া।

দেখুন ট্রেলার:

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে