১২  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

রক্তাক্ত সারাগারির প্রেক্ষাপটে ইশর সিংয়ের চরিত্রে মাত করলেন অক্ষয়

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: March 22, 2019 3:40 pm|    Updated: March 22, 2019 5:01 pm

Movie Kesari review: Patriotism and bravery, Akshay shines

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রেক্ষাপটে সাল ১৮৯৭। সারাগারি যুদ্ধক্ষেত্র। শিখ হাবিলদার ইশর সিং তলোয়াড় হাতে একাই ছাড়লেন রণহুংকার, বাইরে কমপক্ষে ১০ হাজার সৈন্য আর এদিকে আমরা একুশ জন।”– ট্রেলারের এহেন ঝলকই কাঁপিয়ে দিয়েছিল। রক্তাক্ত পাগড়ি, আর্মির বেশভূষায় ছিন্নভিন্ন কিছু দেহ, এক রণক্ষেত্র… কেশরির কথা মনে করলে এরকম টুকরো টুকরো ভাবেই স্মৃতিতে ধরা দেয়। এর সঙ্গে মোক্ষম সংযোজন ছবির সংলাপ! আলাদা করে আর বলার অপেক্ষা রাখে না যে এই ছবি অক্ষয় কুমার অভিনীত ‘কেশরি’। ছবির ট্রেলার মুক্তি সিনেপ্রেমীদের মাঝে সৃষ্টি করেছিল এক উন্মাদনার। আর মুক্তির পর তা বেশ বোঝা গেল যে এই ছবিকে ঘিরে উন্মাদনা কিছু অহেতুক ছিল না।

[নির্বাচনী লড়াইয়ে নামছেন না, সাফ জানিয়ে দিলেন বিরক্ত সলমন]

ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক, সংলাপ এবং সেট–এ ছবির রিভিউ লিখতে বসলে, এই তিনটে বিষয় উল্লেখ করা অতি আবশ্যক। মূলত, ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটের ভিত্তিতে যে ছবি তৈরি হয়েছে, সেই ছবির সেটে যে যথাসম্ভব একটা পিরিয়ডিক ছাপ তুলে ধরতে হবে, সেটাই বাঞ্ছনীয়। মোটা বাজেটের ছবি না হলেও ‘কেশরি’ এক্ষেত্রে ছাপিয়ে গিয়েছে।

ছবির প্লট সারাগারি যুদ্ধের অবলম্বনেই তৈরি। ১০ হাজার আফগান সেনার বিরুদ্ধে কী করে রুখে দাঁড়িয়েছিলেন তৎকালীন হিন্দুস্তানের ২১ জন বীর যোদ্ধা, যারা ব্রিটিশ আর্মির ৩৬তম রেজিমেন্ট বাহিনীর অন্তর্ভূক্ত ছিলেন। যুদ্ধক্ষেত্রে তাঁদের উলটোদিকে আফগানিস্তানের আফ্রিদি এবং ওরাকজাই অঞ্চলের অধিবাসীরা। হার নিশ্চিত জেনেও প্রাণ থাকতে যুদ্ধক্ষেত্র ছেড়ে পালাননি তাঁরা। বরং, কড়া টক্কর দিয়েছিলেন হাজার হাজার আফগান সৈন্যদের সঙ্গে। ইতিহাসের এই বীরত্বের গাথাই ‘ব্যাটল অফ সারাগারি’ নামে পরিচিত। আর সেই কাহিনিই প্রতিভাত হয়েছে পরিচালক অনুরাগ সিংয়ের ফ্রেমে।

এ ছবি দেখে বলতেই হয়, পরিচালক অনুরাগ যে নিজের শিকড় সম্বন্ধে বেশ ভালরকম অবগত। শিখদের ইতিহাস এবং এর লোকাচার-সংস্কৃতি সবেতেই যে তাঁর সম্যক একটা ধারনা রয়েছে, তা ‘কেশরি’তে তিনি ফুটিয়ে তুলেছেন। এই সমান কৃতিত্বের হকদার অবশ্য অনুরাগের ‘কেশরি’ সহ-লেখক গিরিশ কোহলিও। ছবির কিছু কিছু দৃশ্যের ক্ষেত্রে অংশুল চৌবের সিনেম্যাটোগ্রাফিও বিশেষভাবে উল্লেখ্য।

[সিলেবাসে অন্তর্ভুক্ত হোক সারাগারি যুদ্ধগাথা, ‘কেশরি’ মুক্তির আগে বললেন অক্ষয়]

নির্দেশনার পর আসা যাক অভিনয় প্রসঙ্গে। অক্ষয় যে আগাগোড়াই ভাল অভিনেতা, সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। একজন অসম সাহসী যোদ্ধা হাবিলদার ইশর সিংয়ের চরিত্রে রয়েছেন অক্ষয়। দেশপ্রেম আর দেশভক্তির ছবিতে অক্ষয় বেশ সাফল্যের সঙ্গেই এই কোটির দেশের প্রত্যেক দেশভক্তর হয়ে বক্তা হয়ে ওঠেন! হঠাৎ-ই! ছবিতে সে একাই একশো। ‘ওয়ান ম্যান আর্মি’ যাকে বলে আর কী! দর্শকরা তার অভিনয়ের সঙ্গে নিজেদেরকে তাই অনায়াসেই সহজাত করে তুলতে পারেন। ২০১৯-এ অক্ষয় অভিনীত প্রথম ছবি ‘কেশরি’। আর মুক্তির প্রথমদিনেই বক্স অফিসে ২১.৫০ কোটির ব্যবসা করে রেকর্ড গড়েছে এই ছবি। অক্ষয়ের বিপরীতে ইশর-পত্নী জিওয়ানির চরিত্রে পরিণীতিও বেশ সাবলীল। ছবি প্রযোজনা করেছে করণ জোহরের ধর্মা প্রোডাকশনস, ইশা আম্বানি ও টুইঙ্কল খান্না।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে