BREAKING NEWS

১৬ ফাল্গুন  ১৪২৬  শনিবার ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

দীপিকার অভিনীত চরিত্রের জন্যই মেয়ের নাম ‘নয়না’, সুর বদলে অভিনেত্রীর পাশে বাবুল

Published by: Bishakha Pal |    Posted: January 15, 2020 11:27 am|    Updated: January 15, 2020 11:27 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে ঐশী ঘোষের পাশে দাঁড়ানোর পর থেকে দীপিকা পাড়ুকোনকে তুলোধেনা শুরু করেছে গেরুয়া শিবির। এমন পরিস্থিতিতে উলটো সুর বিজেপি নেতা বাবুল সুপ্রিয়র গলায়। যদিও তিনি এর আগে ‘ছপাক’-এর বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন, কিন্তু এখন তিনি বললেন দীপিকার তিনি বড় ভক্ত। তাই দীপিকাকে যারা আক্রমণ করছে, তাদের তীব্র নিন্দা করেন তিনি।

জেএনইউয়ে গার্লস হোস্টেলে ঢুকে পড়ুয়াদের উপর হামলার প্রতিবাদে মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে পৌঁছোন দীপিকা পাড়ুকোন। ‘ছপাক’-এর প্রোমোশনে দিল্লি গিয়েছিলেন তিনি। সেখান থেকেই প্রতিবাদমঞ্চে যান। অদ্ভুতভাবে তার পর থেকেই অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক পোস্ট করতে শুরু করে বিজেপি নেতৃত্ব। তাদের বক্তব্য, ‘ছপাক’ ছবিতে মূল ঘটনাকে বিকৃত করা হয়েছে। ছবির প্রযোজক দীপিকা পাড়ুকোন ও পরিচালক মেঘনা গুলজার ছবিতে ধর্মনিরপেক্ষতা বজায় রাখতে চেয়েছিলেন। আর তা করতে গিয়ে মূল ঘটনাটাই নাকি তাঁরা বদলে দিয়েছেন। ছবিতে লক্ষ্মী আগরওয়ালের অনুকরণে তৈরি চরিত্র মালতীকে যারা অ্যাসিড ছুঁড়েছিল, তারা ছিল মুসলিম। অথচ ছবিতে তাদের হিন্দু হিসেবে দেখানো হয়েছে। দীপিকাকে বয়কট করার ডাকও দেয় গেরুয়া শিবির।

[ আরও পড়ুন: কার্ডের রহস্যভেদ করলেন দেব, জানিয়ে দিলেন বিয়ের তারিখ ]

এনিয়ে বাবুল সুপ্রিয় একটি টেলিভিশন চ্যানেলের সাক্ষাৎকারে মেঘনা গুলজারকে সরাসরি ‘দায়িত্বজ্ঞাহীন’ বলে মন্তব্য করেন তিনি। বলেন, পরিচালক ধর্মনিরপেক্ষতা বজায় রাখতে গিয়ে যদি দোষীর নামটাই বদলে দেন, তাহলে সেই পরিচালক ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন ও ভণ্ড’। ঘনিষ্ঠমহলে তিনি নাকি এও বলেন, জেএনইউতে দীপিকা যাঁদের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন তাঁরাই তো অভিযুক্ত হিসেবে প্রতিপন্ন হয়েছে। যদিও প্রকাশ্যে দীপিকার দিকে কাদা ছোঁড়েননি তিনি। পরোক্ষভাবে হলেও নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেছিলেন কেন্ত্রীয় মন্ত্রী। কিন্তু এদিন সম্পূর্ণ উলটো কথা বললেন তিনি।

ছত্তিশগড়ের CAA নিয়ে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়েছিলেন বাবুল। সেখানে তিনি বলেন, “আমি দীপিকার খুব বড় ভক্ত। ‘ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’ দেখার পরই আমি তো আমার ছোটমেয়ের নাম নয়না রেখেছি। যদি কেউ দীপিকাকে কুরুচিকর কোনও কথা বলে বা হেনস্তা করে, তবে আমি তার নিন্দা করছি। ওঁর বিরুদ্ধে কোনও খারাপ কথা বলা উচিত নয়।” অনুষ্ঠানে CAA’র সমর্থনেও বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। বলেন, কারওর নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়ার জন্য এই আইন আসেনি। যারা এর বিরোধিতা করছে তাদেরও এদিন একহাত নেন বাবুল।

[ আরও পড়ুন: পৌষপার্বণে পিঠেপুলির দোসর টুসুগান, হিমসন্ধ্যায় উষ্ণতার ছোঁয়া রাঢ়বঙ্গে ]

 

An Images
An Images
An Images An Images