২  ভাদ্র  ১৪২৯  শুক্রবার ১৯ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

হাই প্রোফাইল দেহব্যবসার পর্দাফাঁস, ধৃত টলি নায়িকা ও বাংলা সিরিয়ালের অভিনেত্রী-সহ ৫

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 17, 2017 8:15 am|    Updated: September 19, 2019 11:45 am

Prostitution racket busted, a Tolly Heroine & television actress from West Bengal arrested

ছবিটি প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাই প্রোফাইল দেহব্যবসার চক্রের পর্দাফাঁস করল পুলিশ। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে হায়দরাবাদের তাজ ডেকান হোটেল থেকে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ। ধৃতদের মধ্যে রয়েছে টলিউডের এক অভিনেত্রী ও ডিজাইনার, এ রাজ্যের বাংলা সিরিয়ালের এক জনপ্রিয় অভিনেত্রীও।

[আধার না থাকলে যৌনপল্লির দরজা বন্ধ, নয়া নিয়মের গেরোয় ‘খদ্দেররা’]

খবরটি জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা এএনআই। তবে ধৃতদের নাম-পরিচয় প্রকাশ্যে আনেনি পুলিশ। জানা গিয়েছে, বেশ কিছুদিন ধরেই হায়দরাবাদে দেহব্যবসা চালাচ্ছিল ওই চক্র। সমাজের প্রভাবশালী ব্যক্তিরাই ওই হোটেলে আসতেন। হোটেলের ম্যানেজারের সঙ্গে দেহব্যবসার চক্রের পান্ডার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। হোটেলে আগত অতিথিদের ঘরেই চলে আসত পতিতাদের ছবি-সহ অ্যালবাম। দরদাম চলত। তারপর ক্লায়েন্টের ঘরে চলে আসত সুন্দরী মডেল-অভিনেত্রীরা। চলত উদ্দাম যৌনতা, পার্টি, ছুটত মদের ফোয়ারা। একটি সূত্রের খবর, টলিউডের এক নায়িকার সঙ্গে রাত্রিযাপনের জন্য প্রতি রাতে এক লক্ষ টাকা করে চার্জ নেওয়া হত।

বেশ কিছুদিন তক্কে তক্কে থাকার পর সম্প্রতি হায়দরাবাদের নর্থ জন টাস্ক ফোর্সের পুলিশ এই চক্রের পর্দাফাঁস করেছে। টাস্ক ফোর্সের ইনস্পেক্টর নাগেশ্বর রাও জানিয়েছেন, স্থানীয় পুলিশের চররা বেশ কিছুদিন ধরেই ওই ফাইভ স্টার হোটেলের উপর নজর রাখছিলেন। হোটেলে যাঁরা ঢুকছেন, তাঁদের গতিবিধির উপরেও নজর ছিল পুলিশের। আচমকাই হোটেলে হানা দেয় টাস্ক ফোর্স। হাতেনাতে পাকড়াও করা হয় টলিউডের এক নামজাদা অভিনেত্রীকে। গ্রেপ্তার করা হয় তাকে ও তার সঙ্গী এক ডিজাইনারকে। একইসঙ্গে বাংলা টেলিভিশনের এক জনপ্রিয় অভিনেত্রীকেও গ্রেপ্তার করে টাস্ক ফোর্স। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে হোটেলের ম্যানেজার প্রাথমিকভাবে দেহব্যবসার অভিযোগের কথা স্বীকার করে নিয়েছে। তার কাছ থেকে নগদ ৫৫ হাজার টাকা ও একটি মোবাইল ফোন বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। তাকেও হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ।

[অর্গ্যাজমে কি জব্দ করা যাবে শরীরের সমস্ত অসুখ?]

তবে এই দেহব্যবসার চক্রের মূল পান্ডা জনার্দন এখনও পলাতক। তার খোঁজে পুলিশ তল্লাশি চালাচ্ছে। তাকে হায়দরাবাদের বাইরে বেরোতে দেওয়া হবে না বলে সবকটি এক্সিট পয়েন্টে পুলিশি নজরদারি জোরদার করা হয়েছে। ধৃতদের বাঞ্জারা হিলসে পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করে এই চক্রের সঙ্গে আর কারা যুক্ত রয়েছে, খোঁজ নিচ্ছে পুলিশ। তবে এরকম ঘৃণ্য ঘটনার সঙ্গে এ রাজ্যের নাম জড়ানোয় বাংলার মুখ পুড়ল বলেই মনে করা হচ্ছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে