৩০ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ১৮ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

তপন বকসি, মুম্বই: মহারাষ্ট্র বিধানসভা ভোটের আগে রাজনৈতিক মহলে নতুন করে কৌতুহল মাথা চাড়া দিল। খানিকটা আচমকায় কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণমন্ত্রী নীতীন গড়করির সঙ্গে দেখা করলেন বলিউড অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত। রবিবার সকালে কার্যত সকলের অলক্ষ্যেই কেন্দ্রীয় সড়ক- পরিবহণ মন্ত্রীর নাগপুরের বাংলোয় হাজির হন সঞ্জয় দত্ত। সেই খবর সামনে আসতেই নড়েচড়ে বসে সংবাদমাধ্যম। জানা যায়, নীতীন গড়করির বাড়িতে বেশ কিছুক্ষণ সময় কাটান সঞ্জুবাবা। মরচে রঙের লং কুর্তা আর অফ-হোয়াইট পাজামায় ট্র‍্যাডিশনাল পোশাকে সঞ্জয়কে দেখা যায়। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য বিনিময়ের পর বেশ কিছুক্ষণ কথা হয় দু’জনের। তাঁদের মধ্যে ঠিক কী বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে তা অবশ্য খোলসা করেননি কেউ।

[আরও পড়ুন: ‘অচিরেই টুকরো হবে পাকিস্তান’, ইমরানের পরমাণু হুমকির পালটা জবাব রাজনাথের]

দিন কয়েক আগেই সঞ্জয় দত্তের রাজনীতিতে যোগ দেওয়া নিয়ে জল্পনা ছড়িয়েছিল। মহারাষ্ট্রের এক মন্ত্রী দাবি করেন, বলিউড সুপারস্টার তাঁর দল আরএসপিতে যোগ দেবেন। যদিও, মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী মহাদেব জানকারের সেই দাবি সেসময় নাকচ করে দেন সঞ্জুবাবা। তিনি সাফ জানিয়ে দেন, জানকার তাঁর ভাল বন্ধু হলেও রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার কোনও সম্ভবনা নেই। তখন নাকচ করলেও এবার নিজেই জল্পনা উসকে দিলেন সঞ্জয় দত্ত।

[আরও পড়ুন: অসমের পর এবার এনআরসি হরিয়ানায়, ঘোষণা খাট্টারের]

যদিও, সঞ্জয়-নীতীনের এই সাক্ষাৎ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে নাও হতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ, সঞ্জয়ের প্রযোজনায় পলিটিক্যাল-অ্যাকশন হিন্দি ছবি ‘প্রস্থানম’ মুক্তি পাচ্ছে ২০ সেপ্টেম্বর। যেহেতু নীতীন গড়করি একজন মারাঠি রাজনীতিবিদ তথা বর্তমানে বিজেপি সরকারের একজন গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী। এবং এই ছবির মূল বিষয়বস্তুও রাজনীতি, তাই নিজের এই রাজনৈতিক ছবি মুক্তির আগে নীতীন গড়করির সঙ্গে সঞ্জয়ের সৌজন্য বিনিময়ের যথেষ্ট কারণ আছে। যাতে ছবির প্রদর্শন নির্বিঘ্নে, মসৃণভাবে চলতে পারে, সেই উদ্দেশেই এই সাক্ষাৎ হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে। এই হিন্দি ছবিতে সঞ্জয়ের সঙ্গে অভিনয় করেছেন মনীষা কৈরালা, আলি ফজল, জ্যাকি শ্রফ, চাঙ্কি পান্ডে ও সত্যজিৎ দুবে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং