BREAKING NEWS

১৩ মাঘ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

বিয়ের বছর ঘোরার আগেই বিচ্ছেদ, সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোষণা শ্বেতা বসু প্রসাদের

Published by: Bishakha Pal |    Posted: December 10, 2019 5:03 pm|    Updated: December 10, 2019 5:18 pm

Shweta Basu ends marriage with Rohit Mittal after a year

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিয়ের পর এক বছরও গড়াল না, বিচ্ছেদ হয়ে গেল শ্বেতা বসু প্রসাদের। ইনস্ট্রাগ্রামে এই খবর জানিয়েছেন অভিনেত্রী নিজেই। লিখেছেন, দু’জনে মিলিতভাবে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বিয়ের পরও বন্ধু থাকবেন তাঁরা। একে অপরের পাশে থাকবেন বলেও জানিয়েছেন শ্বেতা। তবে কেন তাঁদের মধ্যে বিচ্ছেদ হল, তা নিয়ে এখনও মুখ খোলেননি কেউ।

২০১৮ সালের ১৩ ডিসেম্বর বিয়ে করেছিলেন জাতীয় পুরস্কার জয়ী অভিনেত্রী শ্বেতা বসু প্রসাদ। দীর্ঘদিনের প্রেমিক রোহিত মিত্তলকে বিয়ে করেন তিনি। পুণেতে বসছিল তাঁদের বিয়ের আসর। বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন বর-কনের আত্মীয় ও ঘনিষ্ঠ বন্ধুরা। সম্পূর্ণ বাঙালি মতেই বিয়ে করেন শ্বেতা। আইবুড়ো ভাত দিয়ে শুরু হয় শ্বেতার বিয়ের অনুষ্ঠান। বিয়েতে শ্বেতা পরেছিলেন লালপাড় শাড়ি। তারপর হয় মেহেন্দি। এই অনুষ্ঠানে গোলাপি লেহেঙ্গায় সেজেছিলেন শ্বেতা। সঙ্গে ছিল বড় কানের দুল, টিকলি ও ঝুমর। বিয়েতে একেবারে বাঙালি বধূর মতোই সেজেছিলেন অভিনেত্রী। তিনি পরেছিলেন গোলাপি সিল্কের শাড়ি। মাথায় লাল চোলি এবং নাকে নথও পরেছিলেন শ্বেতা। রোহিত পরেছিলেন কালো আচকান চুড়িদার। মাথায় ছিল বড় পাগড়ি। বিয়ের ছবিও প্রকাশ পেয়েছিল সোশ্যাল সাইটে।

[ আরও পড়ুন: জেনিভায় পিএইচডি করতে গেলেন সৃজিতের ‘সিমরন’, পরিচালকের রসিকতায় মজেছে নেটদুনিয়া ]

কিন্তু দীর্ঘস্থায়ী হল না সম্পর্ক। বিয়ের পর এখনও এক বছরও হয়নি। তার আগেই ডিভোর্সের কথা ঘোষণা করলেন শ্বেতা ও রোহিত। ইনস্টাগ্রামে শ্বেতা লিখেছেন, ‘রোহিত এবং আমি দু’জনে একসঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। … সমস্ত বই যে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়তে হবে তার কোনও মানে নেই। তার মানে এই নয় বইটাই খারাপ। বা আর কেউ পড়তে পারবে না। কিছু জিনিস অসমাপ্ত থাকাই ভাল।’ এরপরই রোহিতকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন শ্বেতা। লিখেছেন, অনেক স্মৃতি রয়েছে তাঁদের। তার জন্য আর শ্বেতাকে সবসময় অনুপ্রেরণা দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ।

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by Shweta Basu Prasad (@shwetabasuprasad11) on

‘কাহানি ঘর ঘর কি’ ধারাবাহিকে শিশু অভিনেতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন শ্বেতা বসু প্রসাদ। এরপর তাঁকে দেখা যায় ‘করিশ্মা কা করিশ্মা’-এ। ছোটপর্দার পাশাপাশি বড়পর্দাতেও মুখ দেখাতে শুরু করেন শ্বেতা। ২০০০ সালে তিনি প্রথম ছবি বানান ‘মাকড়ি’। এরপর ‘ইকবাল’, ‘বিবাহ’, ‘ডরনা জরুরি হ্যায়’ ছবিতে অভিনয় করেন তিনি। বরুণ ধাওয়ানের ছবি ‘বদ্রিনাথ কি দুলহানিয়া’ ছবিতে তাঁর বোনের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন শ্বেতা। এছাড়া একাধিক তামিল, তেলুগু, কন্নড় ও বাংলা ছবিতেও অভিনয় করেন তিনি। সম্প্রতি তাঁকে ‘চন্দ্র নন্দিনী’ ধারাবাহিকে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে।

[ আরও পড়ুন: অ্যাসিড-দগ্ধ মালতির ফিরে আসার গল্প, ‘ছপাক’-এর ট্রেলারে অনবদ্য দীপিকা ]

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by Shweta Basu Prasad (@shwetabasuprasad11) on

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে