১০ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ২৪ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১০ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ২৪ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সোশ্যাল সাইট মানেই এখন অবারিত দ্বার। যে যখন খুশি, ঢুকে পড়তে পারে এই মাধ্যমে। কথা বলতেও বাধা নেই। তাই যে কোনও ইস্যুতেই ট্রোলিংয়ের বন্যা বয়ে যায় টুইটার বা ফেসবুকে। কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিল নিয়েও টুইটার-ফেসবুকে তর্ক বিতর্ক হয়েছে। বলিউড সেলেব্রিটিরা যেমন একে সমর্থন করেছেন, তেমনই পাকিস্তানি শিল্পীরা এর বিরোধিতা করেছেন।

এবার এই তর্ক-বিতর্কে জড়ালেন গায়ক আদনান সামি। ভারতের নাগরিকত্ব নিয়েছেন তিনি বহুদিন। কিন্তু জন্মসূত্রে তো তিনি পাকিস্তানি। তাই পাকিস্তানকে সমর্থন না করে কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে ভারতকে সমর্থন করায় তাঁর উপর তিতিবিরক্ত পাকিস্তানি নেটিজেনরা। সোজাসুজি বলেন, ‘তাঁর বাবা কোথায় জন্মেছিলেন, কোথায় মারা গিয়েছিলেন তা কি আদনান ভুলে গিয়েছেন?’ যদিও এনিয়ে নেটিজেনদের একহাত নিয়েছেন আদনান। তবে মাথা গরম করেননি তিনি। খুব ঠান্ডা মাথায় লিখেছেন, ‘আমার বাবা ১৯৪২ সালে ভারতে জন্মেছেন, ২০০৯ সালে ভারতেই মারা গিয়েছেন। এরপর!’

শুধু এটুকুতেই থেমে যায়নি নেটিজেনরা। আদনানকে নিয়ে যে ভারতীয়রা ‘গর্বিত’ লিখে পোস্ট করেছেন, তা নিয়েও ট্রোল করেছেন পাকিস্তানের মানুষ। নিজের মাতৃভূমির প্রতি তিনি বিশ্বস্ত নন, এমন কথাও লিখেছেন কেউ। এর উত্তরও সুন্দরভাবে দিয়েছেন আদনান। বলেছেন, ‘জিন্নাও তো মাতৃভূমির প্রতি বিশ্বস্ত ছিলেন না। তাঁকে কী বলবেন?’

এর মধ্যে আবার পাকিস্তানি অভিনেত্রী মেহবিশ হায়াত বলিউডের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, বিশ্বের কাছে পাকিস্তানকে ভুলভাবে ব্যাখ্যা করছে বলিউড এবং হলিউড। তাঁর অভিযোগ, কোথায় ভারত পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক মজবুত করতে বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণ করবে, তা নয়। উলটে পাকিস্তানিদের ভুলভাবে দেখাচ্ছে। বলিউড ও হলিউডে এমন কিছু ছবি তৈরি হয় যাতে মানুষের মধ্যে ‘ইসলামোফোবিয়া’ তৈরি হয়। এটা ঠিক নয় বলে মন্তব্য করেছেন অভিনেত্রী। যদিও এনিয়ে অনেকে কটাক্ষ করেছেন অভিনেত্রীকে। প্রশ্ন তুলেছেন, একদিকে যেখানে ভারতের বিরুদ্ধাচরণ করে পাকিস্তানের সেলেব্রিটিরাই কথা বলছেন, সেখানে আচমকা কেন উলটোদিকে হাঁটছেন মেহবিশ হায়াত?

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং