১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৬ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

এবার মুখোমুখি ফেলুদা-শল্যজিৎ, নতুন গোয়েন্দা কাহিনিতে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: March 3, 2020 1:58 pm|    Updated: November 5, 2020 1:17 pm

Soumitra Chatterjee, Madhabi Mukherjee to team up for new detective film

সন্দীপ্তা ভঞ্জ: ফেলুদা নয়, এবার অন্য এক গোয়েন্দা কাহিনিতে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। বাঙালির মনে এতদিন ফেলু মিত্তির হিসেবে যাঁর ছবি আঁকা ছিল, তিনি এবার নতুন গোয়েন্দা কাহিনিতে, নয়া অবতারে। মুখোমুখি হতে চলেছেন নবীন গোয়েন্দা শল্যজিতের। “এবার মুখোমুখি ফেলুদা-শল্যজিৎ”, নেপথ্যে পরিচালক তুহিন সিনহা। যৌথভাবে পরিচালনা করেছেন রাহুল। যাঁদের হাত ধরেই কি না তাপস পাল নতুন করে ফিরতে চেয়েছিলেন দর্শকদের কাছে। আজ্ঞে, ‘বাঁশি’র সেই পরিচালকদ্বয় তুহিন সিনহা ও রাহুলই এবার বাঙালি দর্শককে নতুন এক গোয়েন্দা চরিত্রের সঙ্গে পরিচয় করাতে চলেছেন। তিনি গোয়েন্দা শল্যজিৎ।   

সিনেমার নাম ‘এবার শল্যজিৎ’। কোনও বইয়ের পাতা থেকে নয়, গোয়েন্দা শল্যজিৎকে গড়েছেন তুহিন নিজে। এই গোয়েন্দা গল্পটাও তাঁরই লেখা। গল্পটা কীরকম? সৌম্য নামে একটি ছেলের খুনকে কেন্দ্র করেই এগিয়েছে গল্প। বন্ধু শল্যজিৎ নামে সৌম্যর খুনের রহস্যের কিনারা করতে। একদিন ভোরে শরীরচর্চা করার সময় শল্যজিতের সঙ্গে পরিচয় হয় সৌম্যর। দু’জনের মধ্যে যখন গভীর বন্ধুত্ব তৈরি হয়, ঠিক তখনই খুন হয় সৌম্য। ময়না তদন্তে জানা যায় বিষক্রিয়ায় মৃত্যু হয়েছে তার। এরপর বন্ধুর মৃত্যু রহস্য উদ্ভেদ করতে দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেয় গোয়েন্দা শল্যজিৎ। চলে যায় সেই ঘরে যেখান থেকে উদ্ধার হয়েছিল সৌম্যর মৃতদেহ। লিপস্টিক মাখা এক আধ খাওয়া সিগারেট পায় সেখান থেকে। তাহলে কি কোনও মেয়ে রয়েছে খুনের নেপথ্যে? সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতেই ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে সৌম্যর বাবা, যে ভূমিকায় অভিনয় করেছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। এখানেই ছবির ট্যাগলাইন- “এবার মুখোমুখি ফেলুদা-শল্যজিৎ”। শল্যজিৎ কি পারবে সৌম্যর হত্যাকারীকে খুঁজে বার করতে? সেই গল্প জানা যাবে মার্চেই। ছবির শ্যুটিং হয়েছে কলকাতা, উত্তরবঙ্গ ও সিকিমের চোখ ধাঁধানো লোকেশানে।

শুটিংয়ের মাঝে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ও মাধবী মুখোপাধ্যায়

[আরও পড়ুন: তাপস পালের শেষ ছবি ‘বাঁশি’র ডাবিং সারলেন কাঁথির শোভন, উচ্ছ্বসিত পরিবার ]

সৌম্যর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন দিব্যেন্দু শেখর দাস। যিনি বহু ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন তিনি। শল্যজিতের চরিত্রে রয়েছেন সঞ্জয় সিনহা। সৌম্যর বাবার ভূমিকায় সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং মায়ের চরিত্রে দেখা যাবে মাধবী মুখোপাধ্যায়কে। প্রসঙ্গত, সদ্য মুক্তি পেয়েছে অনীক দত্তর ছবি ‘বরুণবাবুর বন্ধু’ যেখানে অশীতিপর, নির্লিপ্ত এক শিক্ষিত মধ্যবিত্ত প্রবীণের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন সোমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর শয্যাশায়ী স্ত্রীয়ের ভূমিকায় দেখা গিয়েছে মাধবী মুখোপাধ্যায়কে। তিন দশক আগে থেকেই সৌমিত্র-মাধবী জুটি কাঁপিয়ে আসছে রূপোলি পর্দা। পরিচালক তুহিন সিনহার হাত ধরে আবারও এক গোয়েন্দা কাহিনিতে দেখা যাবে বাংলা চলচ্চিত্র ইতিহাসের কিংবদন্তী এই দুই অভিনেতাকে। প্রযোজনায় বিগ উইনস ইন্টারন্যাশনাল। ছবিতে সংগীত পরিচালনা করেছেন নির্ভীক গোস্বামী। গীতিকার সূর্য চট্টোপাধ্যায়।

[আরও পড়ুন: সম্প্রীতির ভারত, দুঃসময়ে রবিনা টন্ডনের পাশে অটোচালক ‘আরশাদ চাচা’]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে