BREAKING NEWS

৪ মাঘ  ১৪২৭  সোমবার ১৮ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বিয়ের গুরুত্ব প্রমাণে দুর্বল চিহ্ন সিঁদুর, বিচ্ছেদের গুঞ্জনের মাঝে শ্রাবন্তীকে খোঁচা রোশনের!

Published by: Sayani Sen |    Posted: November 30, 2020 1:48 pm|    Updated: November 30, 2020 1:57 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের (Srabanti Chatterjee) দাম্পত্য জীবনের উষ্ণতা বেশ খানিকটা কমেছে, কানাঘুষো তা শোনাই যাচ্ছিল। রাজীব, কৃষাণের পর রোশনের সঙ্গেও বিবাহবিচ্ছেদ শুধু সময়ের অপেক্ষা, সে জল্পনাও তৈরি হয়েছে। তবে তারই মাঝে সোশ্যাল মিডিয়ায় শ্রাবন্তীর নাম না করে রোশনের পোস্ট ঘিরে তৈরি হয়েছে জল্পনা। তবে কী শ্রাবন্তীকেই পরোক্ষে খোঁচা দিতে চাইলেন তিনি, চলছে জোর গুঞ্জন।

রোশন সিং (Roshan Singh) ইনস্টাগ্রামে আত্মজা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একটি উদ্ধৃতি পোস্ট করেন। যাতে লেখা ছিল, “একটা বিয়ে বিশ্বাসের উপর নির্ভর করে টিকে থাকে। সিঁদুর সেটার গুরুত্ব প্রমাণে খুবই দুর্বল চিহ্ন।” এই পোস্টের ক্যাপশনে রোশন লেখেন, “আমি এই কথায় সহমত। ব্যক্তিগতভাবে সেই সমস্ত মহিলাকে ঘৃণা করি যাঁদের বর্তমান অথবা প্রাক্তন স্বামী পছন্দ না করলেও তা ব্যবহার করে থাকেন।”

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by Singh Roshan (@singhroshan399)

[আরও পড়ুন: দার্জিলিংয়ে ম্যারাথনের ফাঁকে রাজভবনে সাক্ষাৎ, মিলিন্দ সোমনের প্রশংসা ধনকড়ের]

আপাতদৃষ্টিতে রোশনের ইনস্টাগ্রাম (Instagram) পোস্ট নিয়ে তেমন কারও কিছু বলার নেই। তবে শ্রাবন্তীর ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে নজর পড়ার পর এই পোস্ট নিয়ে দু’য়ে দু’য়ে চার করতে বেশ সুবিধা হয়েছে অনুরাগীদের। কারণ, রোশনের আগে শ্রাবন্তী ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করেন। যাতে শ্রাবন্তীকে সিঁদুর পরেই দেখা গিয়েছে। বর্তমানে একটি রিয়ালিটি শোতে উপস্থাপিকার ভূমিকায় রয়েছেন অভিনেত্রী। সেখানে সিঁদুর পরেই দেখা যায় তাঁকে। অনেকেই বলছেন, সরাসরি কিছু না বললেও শ্রাবন্তীকে আদতে খোঁচা দিতে চেয়েছেন রোশন। গুঞ্জন যতই হোক না কেন এ ব্যাপারে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি শ্রাবন্তীর। সোশ্যাল মিডিয়ায় পালটা কোনও পোস্টও করেননি তিনি।

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by Srabanti singh (@srabanti.smile)

[আরও পড়ুন: টলিপাড়ায় ফের বাজতে চলেছে বিয়ের সানাই, শীঘ্রই চার হাত এক হবে অঙ্কুশ-ঐন্দ্রিলার!]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement