×

৩ চৈত্র  ১৪২৫  মঙ্গলবার ১৯ মার্চ ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নিউজলেটার

৩ চৈত্র  ১৪২৫  মঙ্গলবার ১৯ মার্চ ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনের প্রার্থী হয়ে তৃণমূল শিবির থেকে ফের টিকিট পেলেন দীপক অধিকারী। ওরফে দেব। এবারও ঘাটাল কেন্দ্র থেকেই তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে লড়বেন তিনি। দ্বিতীয়বারের জন্য দলের তরফে প্রার্থী হতে পেরে যারপরনাই খুশি অভিনেতা দেব। দেব জানিয়েছেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অসংখ্য ধন্যবাদ আমাকে প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত করার জন্য। ঘাটালের মানুষের প্রতিও আমি কৃতজ্ঞ যে তাঁরা আমার ওপর বিশ্বাস রেখেছেন। ভরসা করেছে আমাকে। দ্বিতীয়বার এই সুযোগ পেয়ে আমি ভীষণ খুশি।’

[ঘরের মেয়ে যাদবপুরের প্রার্থী, মিমির উত্থানে উচ্ছ্বসিত জলপাইগুড়ির পাণ্ডাপাড়া]

সদ্য মুক্তি পেল দেবের ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’ ছবির পোস্টার, ফার্স্টলুক। পাশাপাশি তিনি কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়ের ‘পাসওয়ার্ড’-এর কাজেও ব্যস্ত। সঙ্গে আসন্ন লোকসভা ভোটের প্রার্থী তিনি। দিন দুয়েক পরই কোমড় বেঁধে তাঁকে নামতে হবে ভোটের প্রচারে। ছবির কাজ, ভোটের প্রস্তুতি, প্রচার এত কিছু সামলাবেন কী করে অভিনেতা তথা সাংসদ দেব? খোলসা করেছেন তিনি নিজেই। এ প্রসঙ্গে দেবের সাফ কথা, বিগত পাঁচ বছর ধরে তিনি রাজনীতি এবং ছবির কাজ দুটোই সামলে আসছেন। মঙ্গলবারও নিজের প্রযোজনা সংস্থার আসন্ন ছবি ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’র টিজার লঞ্চ করেছেন তিনি। আর এই দুদিক ম্যানেজ করতে পেরে তিনি বেশ খুশি। ঘাটালের মানুষের কল্যাণসাধন কিংবা উন্নয়নের জন্য আমি কতটা উদ্বিগ্ন থাকি, তা তারা জানেন, এমনটাও জানিয়েছেন সাংসদ দেব।   

“এমনকী, বোনের বিয়ের আগের দিনও আমি ঘাটালে ছুটে গিয়েছিলাম। ছুটে গিয়েছিলাম যখন জানতে পেরেছিলাম, যে আমার জায়গার মানুষদের আমাকে দরকার। ঘাটালের পাশে ছিলাম, আছি এবং জিতলে অবশ্যই ঘাটালের মানুষদের প্রতি আমার সেবা চালিয়ে যাব। আর যদি না-ও জিততে পারি, আমি আমার মতো করে তাঁদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেব”– জানান দেব।

[তৃণমূল প্রার্থী হয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আক্রমণের শিকার নুসরত-মিমি]

এককথায়, এই পাঁচটা বছর অভিনেতা তথা সাংসদ দেবের কাছে অনেকটা লিটমাস টেস্টের মতোই ছিল। কারণ, দু’ দুটো জায়গা একসঙ্গে ম্যানেজ করাটা তো আর চারটিখানি কথা নয়! অবশ্য এই জন্য তিনি যে দিদির কাছে কৃতজ্ঞ সেকথাও জানিয়েছেন। তাঁর বক্তব্য, দিদি সেই স্পেসটা তাঁকে দিয়েছেন বলেই আজ তিনি রাজনীতির সঙ্গে সঙ্গে ছবির কাজও সমানভাবে চালিয়ে যেতে পারছেন। দেবের পাশাপাশি লোকসভা নির্বাচনের প্রার্থী তালিকায় নাম রয়েছে, টলিউডের প্রথম সারির দুই নায়িকা মিমি চক্রবর্তী এবং নুসরত জাহানেরও। এই দুই সহকর্মীকেও শুভেচ্ছা জানাতে ভোলেননি দেব।

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং