BREAKING NEWS

২৯ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

জ্যাকলিনের ভোঁতা সংলাপ ও অভিনয়, জমল না ‘মিসেস সিরিয়াল কিলার’

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: May 3, 2020 3:26 pm|    Updated: May 3, 2020 3:26 pm

An Images

মিসেস সিরিয়াল কিলার, সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে ওয়েব প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্সে। থ্রিলার-ধর্মী ছবি দেখে লিখছেন সন্দীপ্তা ভঞ্জ

পরিচালক- শিরীষ কুন্দের

অভিনয়- জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ, মনোজ বাজপেয়ী, মোহিত রায়না

ভালবাসার মানুষ যখন দূরে সরে যায়, তখন তাকে ফিরে পাওয়ার জন্য মানুষ কী-ই না করে! অপর কোনও ব্যক্তির জীবন শেষ করেও দিতে পারে নির্দ্বিধায়, অবলীলাক্রমে। হয়ে ওঠে প্রতিশোধস্পৃহ। সেরকমই গল্প নিয়ে ‘মিসেস সিরিয়াল কিলার’। মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ। এবং অপর দুই চরিত্রে দেখা গেল মনোজ বাজপেয়ী ও মোহিত রায়নাকে।

থ্রিলার কাহিনি। সিনেমার গল্পও বেশ ভাল। কাহিনির প্লটগুলো আলাদাভাবে মজবুত। কিন্তু কোথায় যেন ঘেঁটে গেল। যথাযথ উপকরণ থাকলেও রান্নাটা ঠিক জমল না! এক প্রতিশোধস্পৃহ স্ত্রীয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন জ্যাকলিন। অতিরঞ্জিত অভিনয় এবং সংলাপ বলার কায়দায় থ্রিলারের নেশাটাই কেটে গেল। স্বামীর দুঃখে কাতর এক মহিলার আবেগ, অনুভূতিও ফুটিয়ে তুলতে অপারগ জ্যাকলিন। সারা সিনেমাজুড়ে ফ্যাশন সচেতনতার এমনই মহিমা যে তাঁর দুঃখের লেশমাত্র চোখে পড়ল না! সর্বোপরি, সিনেমার কাহিনি ভাল হলেও প্লটগুলোকে ঠিক এক সুতোয় গাঁথতে পারেননি পরিচালক শিরীষ কুন্দের। মুখ্য চরিত্র জ্যাকলিনের মুখে একাধিকবার বোকা বোকা সংলাপ শোনা গেল। 

[আরও পড়ুন: ‘ভালবাসায় বাঁচুক পৃথিবী’, বলছে ‘সিজনস গ্রিটিংস’]

গল্পটা খানিক এরকম- ধারাবাহিকভাবে খুনের দায়ে জ্যাকলিনের ডাক্তার স্বামী (মনোজ বাজপেয়ী) জেলবন্দি। এই অবস্থায় স্বামীকে বাঁচাতে, তাঁকে নির্দোষ প্রমাণ করতে কী করতে পারে একজন স্ত্রী! আইনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে সেও নিজের মতো করে পথ চলা শুরু করল। উকিলের সঙ্গে পরিকল্পনা করে খুন করার ছক কষে। যাতে, সিরিয়াল কিলারের তকমাটা স্বামীর উপর থেকে সরে যায়। অন্যদিকে, শহর থেকে একের পর এক মেয়ে উধাও হয়ে যাওয়ায় রাতের ঘুম উড়ে যায় পুলিশ অফিসারদের। এই কেসের দায়িত্বভার বর্তায় মোহিত রায়নার উপর। আসল সিরিয়াল কিলার যদি জেলবন্দি থাকে, তাহলে বাইরে থেকে কে করছে এসব? আর অন্যদিকে, এই পতিব্রতা স্ত্রীরই বা কী হয়? ট্রেলারে খুব পারদর্শীতার সঙ্গে দর্শককে এসব প্রশ্নের সম্মুখীন করালেও, সিনেমায় সেই আবেগের সদ্ব্যবহার করতে অক্ষম পরিচালক।

উল্লেখ্য ‘মিসেস সিরিয়াল কিলার’কে যদি থ্রিলার ছবি বলতে হয়, তাহলে শুধুমাত্র মনোজ বাজপেয়ীর অভিনয়টার জন্যই সম্ভব। প্রত্যেকবারের মতো এবারেও ময়দানে পাশ কাটিয়ে ‘গোল’টা মনোজ বায়পেয়ীই করেছেন। বাঙালি ডাক্তারের ভূমিকায় মনোজ বাজপেয়ীর মুখে দু’-চারবার বাংলা কথাও শোনা গেল। যদিও ভাঙা ভাঙা! অন্যদিকে, পুলিস অফিসারের ভূমিকায় মোহিত রায়নার অভিনয়ও তেমন বিশেষ নয়! তবে মনোজের চরিত্রের নাম ‘মৃত্যুঞ্জয়’-এর সঙ্গে সিনেমার শেষটায় সাযুজ্য বজায় রাখতে গিয়ে ভালই খেলার চেষ্টা করেছেন পরিচালক।    

গত মাসে ট্রেলার দেখেই প্রত্যাশা বেড়েছিল এই ছবি নিয়ে। কিন্তু সমস্তরকম আশা-প্রত্যাশায় জল ঢাললেন ‘মিসেস সিরিয়াল কিলার’! বলা যেতেই পারে, গল্পের ‘খুন’ করলেন জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ।

[আরও পড়ুন: আপনাকে যতটা হাসাবে, ততটাই কাঁদাবে ইরফান খানের ‘আংরেজি মিডিয়াম’]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement