২১  আষাঢ়  ১৪২৯  বুধবার ৬ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

প্রতিশোধের শৈল্পিক প্রকাশ, প্রকাশিত সৃজিতের ‘ভিঞ্চি দা’র ফার্স্ট লুক

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 7, 2019 9:28 pm|    Updated: March 7, 2019 9:28 pm

First look of Srijit's Vinci Da

ভিঞ্চিদা। দ্য আর্ট অফ রিভেঞ্জ। প্রতিশোধও শিল্প হয়ে উঠতে পারে। সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের আগামী ছবি এক অন্যরকম থ্রিলার। ছবিতে দেখা যাবে ছোটপর্দার অন্যতম মুখ আকাশ ঘোষকেও। লিখছেন সোমনাথ লাহা।

২০১৯-র শুরুটা বেশ অন্যরকমভাবেই করেছেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। শংকরের লেখা বহুলচর্চিত উপন্যাস ‘চৌরঙ্গী’-কে এই সময়ের প্রেক্ষাপটে সাজিয়ে ‘শাহজাহান রিজেন্সি’ তৈরির মধ্যে দিয়ে। উপন্যাস ধর্মী ছবি তৈরির পরেই এবার সৃজিত হাজির এক আপাদমস্তক থ্রিলার ছবি ‘ভিঞ্চিদা’কে সঙ্গে নিয়ে। থ্রিলারের পাশাপাশি এই ছবিতে রয়েছে ভায়োলেন্সের এক অদ্ভুত মিশেল। ‘বাইশে শ্রাবণ’ ও ‘চতুষ্কোণ’-এর মতো থ্রিলার ছবির পর এই ছবিতেও তাঁর সৃজন মিশতে চলেছে, তার আঁচ পাওয়া যাচ্ছে ছবির নাম থেকে। বোঝাই যাচ্ছে ছক ভেঙেছেন সৃজিত। তাই ছবির কাস্টিংও বেশ অন্যরকম। তবে এ ছবিটিও এসভিএফ (শ্রীভেঙ্কটেশ ফিল্মস)-র ব্যানারেই নির্মাণ করছেন পরিচালক।

টলিউডের ‘আকাশ অংশত মেঘলা’, ব্যাপারটা কী?

ছবিতে মুখ্য চরিত্রে রয়েছেন রুদ্রনীল ঘোষ, ঋত্বিক চক্রবর্তী, সোহিনী সরকার ও অনির্বাণ ভট্টাচার্য। এছাড়াও এই ছবির হাত ধরে প্রথমবার সিনে আঙিনায় পা রাখতে চলেছে ছোট পর্দার পরিচিত মুখ আকাশ ঘোষ। ছবিতে রুদ্রনীলের কম বয়সের চরিত্রটিতে দেখা যাবে আকাশকে। প্রসঙ্গত পরিচালক সুশান্ত দাসের জনপ্রিয় মেগা ধারাবাহিক ‘মা’-র হাত ধরে ছোট পর্দায় যাত্রা শুরু আকাশের। এরপর ‘রমণীর গুণে’, ‘সাত পাকে বাঁধা’-র মতো জনপ্রিয় হিট মেগায় দর্শকরা দেখেছেন আকাশকে। পজিটিভ নেগেটিভ চরিত্র মিলিয়ে ২২—২৩টি ধারাবাহিক কাজ করে
ফেলা আকাশ সুরেন্দ্রনাথ কলেজে মাস কমিউনিকেশন তথা জার্নালিজম নিয়ে পাঠরত। ইতিমধ্যেই তাকে ছোট পর্দায় দেখা যাচ্ছে ‘বিজয়িনী’ ও ‘বকুলকথা’-র মতো মেগা ধারাবাহিকে।
ছবিতে রুদ্রনীলের বিপরীতে রয়েছেন সোহিনী সরকার। ‘রাজকাহিনী’-র পর আরেকবার সৃজিতের ছবিতে দেখা যাবে তাঁকে। এছাড়াও বহুদিন পরে আবার এসভিএফ-র ব্যানারে কোনও ছবিতে কাজ করতে দেখা যাবে ঋত্বিক চক্রবর্তীকে। ছবিতে একজন পুলিশ অফিসারের চরিত্রে রয়েছেন অনির্বাণ ভট্টাচার্য।ইতিমধ্যেই প্রকাশিত হয়েছে ছবির ফার্স্ট লুক পোস্টার। যেখানে আইনের চার হাতের এক প্রান্তে রুদ্রনীল ও অপরদিকে ঋত্বিকের মুখের একাংশ। ছবির ট্যাগলাইনটিও বেশ চমকপ্রদ। ‘দ্য আর্ট অফ রিভেঞ্জ৷’ ‘দ্য রিভেঞ্জ অফ আর্ট’ অর্থাৎ প্রতিশোধ নেওয়াটাও এক অর্থে শিল্পের বিষয়। আবার প্রতিশোধও শিল্প হয়ে উঠতে পারে। এপ্রিলে বা বলা ভাল পয়লা বৈশাখেই হয়তো মুক্তি পাবে এই
ছবি। ছবির কাহিনির একদিকে রয়েছেন একজন মেক আর্টিস্ট। সেই চরিত্রটিতেই অভিনয় করেছেন রুদ্রনীল ঘোষ। তার বাবা একজন মেক আর্টিস্ট হওয়ায় তার থেকেই এই কাজে হাতে খড়ি হয় তার। কিন্তু যত সময় এগোতে থাকে মেকআপ নিয়ে আরও বেশি জানার ইচ্ছে জন্মায় তার মধ্যে। শহরময় সে হন্যে হয়ে ঘুরতে থাকে মেকআপ বিষয়ক বই ও মেকআপের সামগ্রী সংগ্রহের উদ্দেশে এমনকী নেট ঘেঁটে মেকআপ নিয়ে পড়ার ও জানায় অভিপ্রায়ে নিজের বাবাকে দিয়ে ল্যাপটপও কেনায় সে। ঘটনাক্রমে একদিন স্টুডিও পাড়ায় এহেন মেকআপ শিল্পীটির সঙ্গে পরিচয় হয় আরেকজন মানুষের। সেই চরিত্রে রয়েছেন ঋত্বিক চক্রবর্তী। তারপরেই ঘটে যায় কিছু ভয়ংকর ঘটনা। কী সেই ঘটনা? উত্তর মিলবে ছবির পর্দায়।

ইন্দ্রাণীর ‘গানের গুঁতোয়’ কুপোকাত নেটিজেনরা, সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কের ঝড়

ছবিতে অনেক রকমের লুকে দেখা যাবে রুদ্রনীল ঘোষকে। প্রায় ৪০ বছর বয়সি থেকে ৫০ বছর বয়সি সহ বিভিন্ন ধরনের লুকসে দেখা যাবে রুদ্রনীলকে। রুদ্রনীলের পাশাপাশি সোহিনীকেও অন্যভাবে এই ছবিতে পাবেন দর্শকরা। ছবিতে রুদ্রনীল, সোহিনীর লুক দেখে তাক লেগে যেতে পারে দর্শকদের। আর সেটি করেছেন মেকআপ ম্যান সোমনাথ কুণ্ডু। যিনি ইতিপূর্বে সৃজিতের ছবি ‘এক যে ছিল রাজা’-তে যিশু সেনগুপ্তর লুকস তথা মেকআপ করেছিলেন।
ছবির কাহিনি লিখেছেন রুদ্রনীল ঘোষ ও পরিচালক স্বয়ং। অভিনয়ের পাশাপাশি ছবির কাহিনি ও সৃজিতের সঙ্গে যৌথভাবে লিখেছেন রুদ্রনীল। চিত্রনাট্য ও সংলাপ রচয়িতা পরিচালক স্বয়ং। সিনেমাটোগ্রাফার সুদীপ্ত মজুমদার। সম্পাদনা প্রণয় তালুকদার। সংগীত পরিচালনায় অনুপম রায়। গানও লিখেছেন অনুপম রায় নিজেই।

আগামী বছর সাধারণতন্ত্র দিবসে ‘পাঙ্গা’ নিতে আসছেন কঙ্গনা

সৃজিতের মতো পরিচালকের ছবিতে কাজের সুযোগ পাওয়া উচ্ছ্বসিত আকাশ জানান “সৃজিতদার ছবি মানেই মানুষের একটা প্রত্যাশা থাকে। আর সৃজিতদাতো নিজেই একটা ব্র‌্যান্ড। এই ছবির মেকআপ ম্যান সোমনাথদার সূত্রেই এই ছবিতে কাজ করার সুযোগটা আমার কাছে এসেছে। ছবিতে রুদ্রদার অল্প বয়সের চরিত্রটায় আমি অভিনয় করেছি। মানে যখন চরিত্রটির বয়স ১৯ বছর সেই সময়টা। সংলাপ সেভাবে প্রচুর বলিনি। তবে এই ছবিতে কাজ করা আমার কাছে স্বপ্নপূরণের মতোই। আমার অভিনীত দৃশ্য সৃজিতদা নিজে মনিটরে বসে চেক করেছে। সেই অনুভূতিটাই অন্যরকমের ছিল। আর আমার প্রথম মেগার প্রযোজক ছিল এসভিএফ। তারাই আমার প্রথম ছবিরও প্রযোজক।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে