২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সেন্সরের কোপে এবার ইন্দ্রাশিসের ‘পিউপা’, মুক্তি বিশ বাঁও জলে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 5, 2018 10:20 am|    Updated: January 5, 2018 10:20 am

Indrasis Acharya’s ‘Pupa’ hits CBFC hurdle

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সিনেমা তৈরি করা প্রয়োজন। তার প্রচারপর্বও জরুরি। তবে সময় যা দাঁড়িয়েছে তাতে সিনেমা তৈরির সময় সেন্সরের কাঁচির কথা মাথায় রাখা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কে জানে কবে বেঁকে বসে সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশন? ‘বাবুমশাই বন্দুকবাজ’কে ৪৮ কাটের নিদান দিয়েছিলেন পহেলাজ নিহালনি। গদিচ্যুত হতে হয়েছিল তাঁকে। এলেন প্রসূন জোশী। কিন্তু সময় কি পালটেছে? বোধহয় না। এখনও আটকে রয়েছে ‘পদ্মাবতী’র মুক্তি। আটকে আরও একটি বাংলা ছবির ভাগ্য। সেন্সরের কোপে পড়ে এখনও শংসাপত্র আটকে রয়েছে পরিচালক ইন্দ্রাশিস আচার্যের ছবি ‘পিউপা’র।

[পালটে গেল মুক্তির দিন, কবে দেখতে পাবেন অক্ষয়ের ‘প্যাডম্যান’?]

একদিকে সুন্দর ভবিষ্যতের হাতছানি, অন্যদিকে শিকড়ের টান- কোনটাকে বেছে নেবে মানুষ? এই প্রশ্নের উত্তর নিজের ছবিতে খুঁজেছেন পরিচালক ইন্দ্রাশিস আচার্য। ছবির মুখ্য চরিত্রে রয়েছে রাহুল বন্দ্যোপাধ্যায়, সুদীপ্তা চক্রবর্তী, কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায় ও প্রদীপ মুখোপাধ্যায়ের মতো অভিনেতারা। সাম্প্রতিক কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ‘ইন্ডিয়ান ল্যাঙ্গোয়েজ ফিল্মস’-এর কম্পিটিশন বিভাগে প্রদর্শিত হওয়া প্রথম ছবিই ‘পিউপা’। এমন ছবি নিয়ে কী আপত্তি থাকতে পারে সিবিএফসি-র? সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল-এর প্রশ্নের উত্তরে পরিচালক জানান, ছবিতে একটা খুনের দৃশ্য রয়েছে। ইঞ্জেকশন দিয়ে খুনটি করা হচ্ছে। সেটি নিয়েই আপত্তি তুলেছে সিবিএফসি। ইঞ্জেকশনের লিক্যুইডের নাম পর্যন্ত দেখানো হয়নি অথচ পুরো দৃশ্যটি ছবি থেকে বাদ দিতে বলা হয়েছে।

[যৌন হেনস্তার প্রতিবাদ, কালো পোশাকেই গোল্ডেন গ্লোবে হলি নায়িকারা]

ইন্ডিপেনডেন্ট ফিল্ম মেকার ইন্দ্রাশিস। প্যাশন থেকেই ছবি তৈরি করেন। একটা অর্থবহ সিনেমা দর্শকদের উপহার দিতে চান। ওই একটা দৃশ্য বাদ দিলে সিনেমার কাহিনিতে ভীষণভাবে তার প্রভাব পড়বে। তাই কিছুতেই তা বাদ দেওয়া যাবে না। এই টানাপোড়েনে ছবিটি জাতীয় পুরস্কারের জন্যও পাঠাতে পারেননি ইন্দ্রাশিস। বহুবার সেন্সরের প্রতিনিধিদের বলেছিলেন সে কথা। কিন্তু কাট ছাড়া ‘পিউপা’-কে শংসাপত্র দিতে অস্বীকার করা হয়। বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানোরও কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। ইন্দ্রাশিস জানান, কলকাতায় সিবিএফসির যে অফিস রয়েছে সেখানে রিজিওনাল অফিসার পর্যন্ত নেই। ১২ তারিখ সেই শূন্যপদ পূরণ হবে। তারপরই ছবি নিয়ে কিছু বলা যাবে বলে জানাচ্ছেন সিবিএফসির অন্যান্য আধিকারিকরা। এদিকে ১৯ জানুয়ারি ‘পিউপা’র মুক্তি পাওয়ার কথা। কিন্তু এমন অবস্থায় তা কেমন করে সম্ভব?  লড়াই ছাড়া আর কোনও পথই দেখতে পারছেন না পরিচালক। তাই চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। চালিয়ে যাবেন বলেও বদ্ধপরিকর তিনি।

[ঐশ্বর্যর সন্তান দাবি করে বিপাকে, যুবকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চলেছে পুলিশ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে