Advertisement
Advertisement

‘আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলাম’, স্বীকারোক্তি জয়াপ্রদার

কেন এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন অভিনেত্রী?

Jaya Prada on morphed photo
Published by: Bishakha Pal
  • Posted:February 2, 2019 4:55 pm
  • Updated:February 2, 2019 4:55 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গুজব, ছবি বিকৃতি, অ্যাসিড হামলা…। জীবনের কঠিন মুহূর্ত পেরিয়ে এসে অবশেষে মুখ খুললেন বলিউড অভিনেত্রী তথা সাংসদ-রাজনীতিবিদ জয়াপ্রদা। #MeToo সিরিজে নাম না লেখালেও দীর্ঘ নীরবতা ভেঙে ক্ষোভ উগরে দিলেন তিনি। জানালেন, অসম্মানে, নিরাপত্তাহীনতায় আত্মহত্যার চেষ্টাও করেছেন।

সম্প্রতি কঙ্গনা রানাউত অভিনীত ‘মণিকর্ণিকা’ দেখে নিজের জীবনের ফেলে আসা সংগ্রাম পর্বের কথাই তাঁর মনে পড়ে গিয়েছে বলে জানালেন তিনি। তাঁর জীবনের সেই পথও খুব মসৃণ ছিল না। মিথ্যা গুজব তাঁর মনে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি করেছিল। ক্ষত এতটাই গভীর ছিল যে আত্মহত্যার কথাও ভেবেছিলেন তিনি। দীর্ঘ নীরবতা ভেঙে সম্প্রতি জীবনের সেই অধ্যায়ের স্মৃতিরোমন্থন করলেন জয়া। জানালেন, রাজনীতিতে তাঁর ‘গড ফাদার’ অমর সিংয়ের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক নিয়ে মিথ্যে গুজব ছড়িয়েছিল। শুধু গুজব ছড়িয়েই থেমে থাকেনি। সেই সঙ্গে তাঁর ও অমর সিংয়ের ছবি সুপার ইম্পোজ করেও ভাইরাল করা হয়েছিল। বিকৃত করা তাঁদের সেই ঘনিষ্ঠ ছবি নিয়ে বলিউড থেকে সাধারণ দেশবাসীর মধ্যে আলোড়নও পড়ে যায়। তখন কেউ তাঁর থেকে আসল সত্যিটা জানতে চাননি। এমনকী, পাশেও থাকেননি। বরং যে অমর সিংয়ের সঙ্গে তাঁর মিথ্যা সম্পর্কের গল্প সবাই বিশ্বাসও করেছিল।

Advertisement

একই ছবিতে শাহরুখ-সলমন, উদ্যোগ নিলেন বনশালি ]

Advertisement

“কেউ একবারও ভেবে দেখেননি যে প্রতি বছর অমর সিংয়ের হাতে আমি রাখি বাঁধি,” বললেন জয়া। আরও জানালেন, সেই সময় প্রত্যেকটা মুহূর্ত তাঁর কাছে দুর্বিষহ বলে মনে হত। এর ফলে মানসিক অবসাদ তাঁকে গ্রাস করেছিল। বেঁচে থাকার কোনও অর্থই খুঁজে পেতেন না তিনি। বেশ কয়েকবার আত্মহত্যার চেষ্টাও করেছিলেন বলে সংবাদমাধ্যমের সামনে স্বীকার করলেন জয়া। তবে হ্যাঁ, সেই সময়ও তাঁর পাশে ছিলেন স্বয়ং অমর সিংজি। “ডায়ালিসিস থেকে বেরিয়ে এসেও আমার কথা শুনেছিলেন। ভরসা জুগিয়েছিলেন। বলেছিলেন, গুজবে কান না দিতে।” স্মৃতিরোমন্থনের ফাঁকে রাজনীতির সেই পথপ্রদর্শকের উদ্দেশে সম্মানে মাথা নত করতে ভুললেন না জয়া।

শুধু গুজব নয়, এক সময় প্রাণহানির আশঙ্কাতেও কেটেছে রুপোলি জগতের এই নায়িকার। সমাজবাদী পার্টির নেতা আজম খানের বিরুদ্ধে বিষোদ্গার করতেও তিনি ভোলেননি। জানিয়েছেন, নানাভাবে হেনস্তা করার পাশাপাশি তাঁর উপর অ্যাসিড হামলার চেষ্টাও করেছিলেন এই রাজনীতিক। পরিস্থিতি এমন হয়েছিল যে বেঁচে থাকাই তাঁর কাছে চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায়। নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানে নিজের বাড়ি ছেড়ে মায়ের বাড়িতেও আশ্রয় নিতে হয়েছিল তাঁকে। সব মিলিয়ে, এ যেন এক অন্য ঝাঁসির রানির উপাখ্যান। যার সঙ্গে ইতিহাসের চরিত্র বা মণিকর্ণিকা সিনেমার বিশেষ ফারাক নেই। সম্প্রতি কঙ্গনা রানাউত অভিনীত সিনেমা দেখে এমনই উপলব্ধি করলেন তিনি।

পর্দায় আসছে জর্জ ফার্নান্ডেজের বায়োপিক, পরিচালক কে? ]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ