৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

শম্পালি মৌলিক: আবারও হিন্দি ছবিতে যিশু সেনগুপ্ত। তবে এবার এমন চরিত্রে তাঁকে দেখা যাবে, যে রোলের অফার পাওয়ার জন্য যে কোনও অভিনেতা মুখিয়ে থাকেন। আজ্ঞে হ্যাঁ, নাসিরুদ্দিন শাহের বড় ছেলের ভূমিকায় এবার অভিনয় করতে দেখা যাবে তাঁকে।

বাংলা ছবির তুখড় অভিনেতা এককালে সেকেন্ড লিড হিসেবেও স্ট্রাগল করেছেন। ক্রমশ নায়ক হিসেবেই বড়পর্দায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। তবে তাঁর রেখাপাত চরিত্রাভিনেতা হিসেবেই। যত সময় গড়িয়েছে নিজেকে এমনভাবে মেলে ধরেছেন যে, আজকের পরিচালকরা তাঁকে ভেবেই চরিত্র তৈরি করছেন। বলা যায় ঋতুপর্ণ ঘোষের হাত ধরেই তাঁর আসল যাত্রা শুরু। তারপর সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ছবিতে অভিনেতা যিশুর পুনর্জন্ম। ‘জাতিস্মর’, ‘রাজকাহিনী’, ‘জুলফিকার’ থেকে সাম্প্রতিক ‘পোস্ত’তে এমন চরিত্রে তাঁকে দেখা গিয়েছে, যা নিজের অভিনয়ে রীতিমতো মাইলফলক করে রেখেছেন তিনি। হিন্দি ছবির জগতেও যিশু অবশ্য নতুন নন। তবে এবার সম্ভবত এমন চরিত্রে কাজ করতে চলেছেন, যা তাঁর স্বপ্নের চরিত্রই বলা যায়। নাসিরুদ্দিন শাহর ছেলে হিসেবেই পর্দায় দেখা যাবে তাঁকে। ছবির নাম এখনও চূড়ান্ত হয়নি। তবে ছবিটি পরিচালনা করছেন মহেশ মঞ্জরেকর। যিশু নিজেই জানালেন সুখবরটি। বললেন, “আমার দু’দিন শুটিং ইতিমধ্যেই হয়ে গিয়েছে। আবার ১০ মে শুটিং রয়েছে। সে জন্য মুম্বই যাচ্ছি। তার কিছুদিন পর আবার টানা আঠেরো দিন শুটিং রয়েছে গোয়াতে। নাসিরুদ্দিন শাহ ছাড়া এই ছবিতে অমল পালেকর, বিদ্যুৎ জামওয়াল, শ্রুতি হাসানকে অভিনয় করতে দেখা যাবে। তবে এখনও কাস্টিং চলছে। আশা করছি এই ছবিটি বেশ ভাল হবে। মুম্বই-গোয়া মিলিয়ে শুটিং রয়েছে।”

[  ফের সত্যের সন্ধানে ‘সোনাদা’, আসছে ‘গুপ্তধনের সন্ধানে’র সিক্যুয়েল ]

এখন যিশু ব্যস্ত সৃজিত মুখোপাধ্যায় পরিচালিত তাঁর অভিনীত ‘উমা’ ছবিটির প্রচার নিয়ে। প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই যিশু ‘মণিকর্ণিকা’ ছবির শুটিং শেষ করেছেন। ক্রিশ পরিচালিত যে ছবিতে তাঁকে কঙ্গনা রানাউতের সঙ্গে দেখা যাবে। ক্রিশ তেলুগু ছবির বিখ্যাত পরিচালক। যিনি জাতীয় পুরস্কারও পেয়েছেন। ‘মণিকর্ণিকা’ ছবির সম্ভাব্য মুক্তি আগস্ট মাসে। দেখা যাচ্ছে ‘পিকু’র পর যিশুর হিন্দি ছবির ঝুলি ক্রমশ ভরেই উঠছে।

এক সময় ছোটপর্দায় মহাপ্রভু হিসেবে যিশু ছিলেন তুমুল জনপ্রিয়। আবারও সেই একই রূপে ফিরতে চলেছেন। এবার বড়পর্দাতেও শ্রীচৈতন্য রূপে দেখা যাবে তাঁকে। তবে যিশু জানাচ্ছেন, আগামী বছরের আগে তাঁর ডায়রিতে একটা দিনও প্রায় ফাঁকা নেই। সবকিছুই তাই আছে পরিকল্পনার স্তরে। আপাতত তাঁর হাতে আছে ‘সোনার পাহাড়’, ‘এক যে ছিল রাজা’র মতো ছবি। আর ‘উমা’ তো আছেই। এ ছবিতেই অভিষেক হচ্ছে তাঁর মেয়ে সারার। সুতরাং ‘উমা’ যে তাঁর কাছে বেশ স্পেশাল তা বলাই যায়। বাবা-মেয়ের কেমিস্ট্রি দেখতে যখন বাংলার দর্শক মুখিয়ে, তখন নাসিরুদ্দিন শাহর ছেলে হয়ে বড়পর্দায় হাজির হতে মুখিয়ে যিশু নিজেও।

[খাবারের স্বাদে মানবচরিত্রের রহস্য ফাঁস করল প্রতীমের ‘মির্চি মালিনি’]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং