১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সিনেমা হলে জাতীয় সংগীত বাজানোর বিরোধিতায় বিদ্যা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 28, 2017 9:52 am|    Updated: October 28, 2017 12:11 pm

Now Vidya Balan enters National Anthem debate

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সিনেমা হলে জাতীয় সংগীত বিতর্কে এবার মুখ খুললেন অভিনেত্রী ও সেন্সর বোর্ডের সদস্য বিদ্যা বালান। তিনি বলেন, সাধারণত স্কুলের পঠনপাঠন শুরুর আগে জাতীয় সংগীত গাওয়া হয়। কিন্তু, হলে সিনেমা শুরুর আগে জাতীয় সংগীত বাজানো উচিত নয়। কারণ সিনেমা হল তো আর স্কুল নয়। ‘কাহানি’ খ্যাত অভিনেত্রীর মতে, জোর করে কারও উপর দেশপ্রেম চাপিয়ে দেওয়া যায় না।

[‘যত্রতত্র জাতীয় সংগীত বাজিয়ে দেশপ্রেম প্রমাণের জোর করার দরকার নেই’]

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশেই এখন দেশের সমস্ত হলে সিনেমা শুরুর আগে জাতীয় সংগীত বাজানো বাধ্যতামূলক। গত বছর ডিসেম্বরে এক রায়ে শীর্ষ আদালত জানায়, সিনেমা হলে যখন জাতীয় সংগীত বাজানো হবে, তখন হলে উপস্থিত সমস্ত দর্শককে উঠে দাঁড়াতে হবে। তাই সিনেমা হলে জাতীয় সংগীত চলাকালীন কোনও দর্শক যদি উঠে না দাঁড়ান, তাহলে আদালত অবমাননার দায়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করতে পারে পুলিশ। আর তাতেই দানা বেঁধেছে বিতর্ক। বস্তুত, মাস খানেক আগে হায়দরাবাদের একটি সিনেমা হলে জাতীয় সংগীত চলাকালীন উঠে না দাঁড়ানোয় গ্রেপ্তার করা হয়েছিল তিনজন কাশ্মীরি যুবককে। গত মাসেই আবার গুয়াহাটির এক সিনেমা হলে জাতীয় সংগীতের সময়ে উঠে না দাঁড়ানোয় ‘পাকিস্তানি’ তকমা দেওয়া হয় এক প্রতিবন্ধী যুবককে। এই প্রেক্ষাপটে সোমবার সুপ্রিম কোর্টই জানিয়েছে, সিনেমা হলে জাতীয় সংগীত চলাকালীন উঠে দাঁড়ানোর কোনও প্রয়োজন নেই। শীর্ষ আদালতের বক্তব্য, জাতীয় সংগীত চলার সময়ে উঠে দাঁড়ানোর জন্য কোনও ব্যক্তির উপর জোর খাটানো যাবে না। কারণ কেউ যদি উঠে দাঁড়াতে অনিচ্ছুক হন, তার মানে এই নয়, যে তিনি জাতীয়বাদ বিরোধী বা দেশবিরোধী।

[জাতীয় সংগীত চলাকালীন উঠে দাঁড়ানো নিয়ে কী মন্তব্য সানি লিওনের?]

তবে সিনেমা হলে জাতীয় সংগীত বাজানোরই বিপক্ষে অভিনেত্রী বিদ্যা বালান। তাঁর সাফ কথা, ‘ আমি দেশকে ভালবাসি। দেশের সুরক্ষার জন্য যতদূর যেতে হয়, আমি যেতে প্রস্তুত। কিন্তু, একথা আমাকে কারও শিখিয়ে দেওয়ার প্রয়োজন নেই। জাতীয় সংগীত শুনলেই যেখানে থাকি না কেন, আমি দাঁড়িয়ে পড়ি।’  বিদ্যা বালানের মতে, স্কুলে দিনের শুরুতে জাতীয় সংগীত গাওয়া হয়। কিন্তু সিনেমা হল স্কুল নয়। তাই সেখানে জাতীয় সংগীত বাজানোর প্রয়োজন নেই। প্রসঙ্গত, বিদ্যা বালান শুধুমাত্র বলিউডের একজন নামজাদা অভিনেত্রীই নন, তিনি সেন্সর বোর্ডেরও সদস্য।

[জানেন, নেটদুনিয়ায় জনপ্রিয় হওয়ায় কী বিপদে পড়েছিলেন সানি লিওন?]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে