BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মেয়েরা কি শুধুই চলন্ত যোনি? ‘পদ্মাবত’ দেখে বিস্ফোরক প্রশ্ন স্বরার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 28, 2018 11:21 am|    Updated: January 28, 2018 11:21 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সিনেমা নেহাত চিত্রকলা নয়। ভাল সেট, চোখ ধাঁধানো কস্টিউম, কালার কম্বিনেশন ইত্যাদিতে চোখ টানে ঠিকই। মনও টলে। কিন্তু মন গলার রসদ ছবির বিষয় ও কাহিনিতেই থাকে। শেষ পর্যন্ত সেটিকেই জয়ী হতে হয়। পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালিকে এযাবৎ এ কথা বহুবারই শুনতে হয়েছে। ‘পদ্মাবত’ নিয়েও বিশেষজ্ঞদের রায় তেমনটাই। তবে ছবি দেখে এবার বিস্ফোরক প্রশ্ন তুললেন অভিনেত্রী স্বরা ভাস্কর। পরিচালকের কাছে তাঁর প্রশ্ন, মহিলারা কি শুরুই চলিয়ে-বলিয়ে যোনি মাত্র? তার বাইরে কিছু নয়?

[ টানা ২১ দিন ঘরবন্দি ছিলেন রণবীর, কেন জানেন? ]

পরিচালকের উদ্দেশে মস্ত চিঠি লিখেছেন অভিনেত্রী। সেখানে পরিচালকের প্রশংসাই করেছেন তিনি। যেভাবে এ কাহিনির চলচ্চিত্রায়ন করেছেন পরিচালক, তার জন্য কুর্নিশই জানিয়েছেন। সঞ্জয় লীলা বনশালির মতো পরিচালকের থেকে যে গ্র্যাঞ্জার ও গ্ল্যামার আশা করা যায়, তা সবই আছে এ ছবিতে। কিন্তু একটি প্রশ্নও আছে। ছবির শেষে রাজপুত ঐতিহ্যের অনুসারী হয়ে পরিচালক দেখিয়েছেন, জহরব্রত পালন করছেন রানি। এখান থেকেই সমালোচনা শুরু স্বরার। তাঁর সাফ কথা, মহিলারা তো স্রেফ চলিয়ে-বলিয়ে যোনি মাত্র নন। তাঁদের যোনি আছে ঠিকই। কিন্তু যোনির বাইরেও তাঁরা আরও অনেক কিছু। সুতরাং কেবল যোনিকে রক্ষা করা, তাঁর শুদ্ধতা বজায় রাখাই মহিলাদের জীবনের একমাত্র লক্ষ্য হতে পারে না। স্বরার বক্তব্য, যোনিকে তথা মহিলাদের সম্মান করা অবশ্যই ভাল জিনিস। কিন্তু মহিলা মানে তা কেবলমাত্র যোনিকেন্দ্রিক ধারনা হতে পারে না। ফলত কেউ যদি কোনও মহিলার অসম্মতিতে তাঁর যোনির শুদ্ধতা নষ্ট করে, তাহলে সেই মহিলাকে মৃত্যুর শাস্তি ভোগ করতে হবে কেন? ১৩ শতকে হয়তো তা করা হয়েছে, কিন্তু এই বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়েও সেই একই ধারণার বশবর্তী থাকতে হবে? প্রশ্ন স্বরার। তাহলে কি সত্যিই নারীশক্তিকে এখানে গৌরবাণ্বিত করে দেখানো হল? তাঁর সাফ কথা, যোনির বাইরেও একজন মহিলার জীবন আছে। সুতরাং যদি কেউ ধর্ষিতাও হন, তারপরেও জীবন আছে। শুধু যোনির মাহাত্ম্যে নারীর বিচার করার কোনও প্রয়োজন নেই, এমনটাই মত স্বরার।

মাত্র দু’দিনেই ৫০ কোটি ছাড়াল ‘পদ্মাবত’-এর ব্যবসা ]

বস্তুত রাজপুত গৌরবকে হানি করা হয়েছে বলে ‘পদ্মাবত’-এর বিরুদ্ধে উত্তেজিত কর্ণি সেনা। কিন্তু পরিচালক বারবার করে জানিয়েছেন, আসলে রাজপুতদের এ ছবিতে গৌরবাণ্বিতই করা হয়েছে। কিন্তু যেভাবে জহরব্রতকে আলোয় আনা হয়েছে, তাতে আপত্তি তুলেছিলেন বহু শুভবুদ্ধিসম্পন্ন মানুষই। স্বরা ভাস্করের সমালোচনাও সেই অভিমুখেই। নারীশক্তিকে তুলে ধরতে চেয়েছেন পরিচালক, অথচ সেই মান্ধাতার আমলেই ধারণাতেই কী করে আটকে থাকলেন? সাহসী প্রশ্নে সঞ্জয়কে সমালোচনায় বিঁধতে দ্বিধা করলেন না ‘আনারকলি অফ আরা’।

[ কর্ণি সেনার হুমকি, জয়পুর সাহিত্য উৎসব এড়ালেন প্রসূন ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement