BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পাকিস্তানের পাশে দাঁড়িয়ে কপিল শর্মাকে ব্যঙ্গ ওম পুরির!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 12, 2016 3:41 pm|    Updated: June 1, 2019 6:57 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বলিউড মহলে আপাতত বিতর্কের অন্য নাম কি ওম পুরি?
পরিস্থিতি অন্তত সেই দিকেই ইঙ্গিত করছে। উরি হামলার পরিপ্রেক্ষিতে পাকিস্তানে ভারতের সার্জিক্যাল স্ট্রাইক নিয়ে দেশে যখন উত্তেজনা তুঙ্গে, তখন পাকিস্তানের সমর্থনে কথা বলে ক্রমাগত বিতর্ক আর বিদ্বেষ কুড়িয়ে চলেছেন এই বর্ষীয়ান অভিনেতা। সম্প্রতি নতুন করে যার প্রকাশ ঘটল কপিল শর্মার কমেডি শো-কে ঘিরে তাঁর একটি মন্তব্যে।
ওম পুরি টুইট করেছেন- ”যখন ভারতে পাকিস্তানি সব কিছুর উপরেই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হচ্ছে, তখন পাকিস্তান নিয়ে রসিকতাও নিষিদ্ধ করা হোক!” এর পরেই টুইটের দ্বিতীয় বাক্যে কপিল শর্মা এবং তাঁর জনপ্রিয় কমেডি শো-কে ব্যঙ্গ করেছেন অভিনেতা। লিখেছেন, ”সেই সঙ্গে কপিল শর্মাকেও অন্তত এই একবার নিজস্ব কিছু রসিকতা প্রদর্শনের সুযোগ দেওয়া হোক!”


সন্দেহ নেই, উরি হামলার পর থেকেই দুই দেশের মধ্যে সৌহার্দ্য যেটুকু বা ছিল, তাও তলানিতে এসে ঠেকেছে। শুরু হয়ে গিয়েছে পাকিস্তানের মানসিকতা নিয়ে নানা রসিকতা। কেউ বলছেন, সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের অর্থটাই সম্যকভাবে বুঝে উঠে পারেনি মাদ্রাসায় মৌলবিদ্বারা পরিচালিত শিক্ষাব্যবস্থায় বিশ্বাসী পাকিস্তান। তারা সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের অর্থ করেছে- ”স্যারজি, কাল স্ট্রাইক হ্যায়!” ফেসবুক ছেয়ে গিয়েছে বাহুবলী ছবির একটি দৃশ্যে যেখানে বাহুবলীকে হত্যা করছেন কাটাপ্পা। সেই ছবির নিচে লেখা- পাকিস্তান আর জানতে পারবে না কেন কাটাপ্পা বাহুবলীকে হত্যা করেছিলেন! এই রঙ্গরসিকতার রেশ উঠে এসেছে কপিল শর্মার শো-তেও! তারই পরিণতি কপিল শর্মা এবং তাঁর শো-কে নিয়ে ওম পুরির এহেন মন্তব্য!
বুঝতে অসুবিধা হয় না, অনেক ভারতবাসীর মতোই ওম পুরিও শান্তির পক্ষে! তিনি যুদ্ধ চাইছেন না! যে কথা তিনি ইতিপূর্বে তাঁর বক্তব্যে স্পষ্ট করে দিয়েছেন। বলেছেন, এরকম চলতে থাকলে ভারত আর পাকিস্তানের সমস্যা কোনও দিনই মিটবে না! তারা পরস্পরের বিরুদ্ধে কেবল যুদ্ধই করে যাবে! একই কথার প্রতিধ্বনি শোনা গিয়েছিল মহেশ ভাটের বক্তব্যেও। তিনিও এই উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে শান্তির পক্ষে সওয়াল করেছিলেন!
কিন্তু, সেই শান্তিপ্রস্তাবে আপাতত সায় দিচ্ছে না দেশ। ফলে, বিতর্ক তৈরি হয়েই চলেছে। নতুন করে যার প্রমাণ মিলল ওম পুরির সাম্প্রতিক টুইটে!

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement