BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভারতেও এবার করোনার ছোবল, দিল্লি ও তেলেঙ্গানায় প্রাণঘাতী ভাইরাসে আক্রান্ত ২

Published by: Bishakha Pal |    Posted: March 2, 2020 3:23 pm|    Updated: March 12, 2020 1:06 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিনে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর ইউহানে আটকে থাকা ভারতীয়দের ফিরিয়ে এনেছিল ভারত। শুধু তাই নয়, ডায়মন্ড প্রিন্সেস জাহাজ থেকেও ভারতীয়দের উদ্ধার করে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছিল। ইরানে আটকে থাকা ভারতীয়রাও দেশে ফেরার জন্য মরিয়া। কিন্তু এবার ভারতেই ছোবল বসাল প্রাণঘাতী করোনা।

এখনও পর্যন্ত দিল্লি থেকে একজন ও তেলেঙ্গানা থেকে একজনের করোনায় (nCoV19) আক্রান্ত হওয়ার খবর মিলেছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে এই খবর জানিয়ে বলা হয়েছে, দিল্লির ওই ব্যক্তি ইটালি থেকে ফিরেছিলেন কিছুদিন আগে। তেলাঙ্গানায় যিনি আক্রান্ত, তিনি ফিরেছিলেন দুবাই থেকে। তারপরই তাঁদের দেহে করোনার ইঙ্গিত মেলে। দু’জনকেই আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা শুরু হয়েছে। সর্বক্ষণ তাঁদের পর্যবেক্ষণে রেখেছেন চিকিৎসকরা।

[ আরও পড়ুন: নির্ভয়া কাণ্ডে ৪ দোষীর ফাঁসি ফের স্থগিত, নির্দেশ দিল্লি হাই কোর্টের ]

উল্লেখ্য, বিশ্বের প্রায় ৫০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। শুধুমাত্র চিনেই এপর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৩ হাজার মানুষের। করোনায় আক্রান্ত ৮০ হাজার মানুষের মধ্যে। অন‌্যদিকে দক্ষিণ কোরিয়াতেও ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। সেখানেও ১১ জনেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। নোভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ইটালিতেও মৃত্যু হয়েছে একাধিক নাগরিকের। ভারতীয় উপমহাদেশও তালিকার বাইরে ছিল না। গত সপ্তাহে পাকিস্তানে দুই ব্যক্তির শরীরে করোনা ভাইরাস পাওয়া যায়। আর এখন তো ভারতের দুই প্রান্তে দুই ব্যক্তির দেহে করোনার সন্ধান মিলল।

তবে করোনা আক্রান্তের খবরে দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে আতঙ্ক। কারণ একবার ছড়িয়ে পড়লে ভারতে এই ভাইরাসের আক্রমণ ভয়াবহ আকার নিতে পারে বলে আশঙ্কা রয়েছে। আশঙ্কা তৈরি হচ্ছে দেশটির বিপুল জনসংখ্যা ও ঘন বসতি নিয়ে। এর ফলেই ভারতে করোনার প্রতিরোধ করার ক্ষমতা অত্যন্ত সীমিত বলে মনে করছেন মার্কিন গোয়েন্দারা। তাই চিনের পরে যে করোনা ভাইরাসের সম্ভাব্য ক্ষেত্র হিসেবে যে দেশ তাদের সবচেয়ে চিন্তায় রেখেছে তা হল ভারত। করোন ভাইরাসের হামলা ঠেকাতে যতটা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হয়, তা এই দেশের বেশিরভাগ জায়গাতেই অমিল বলে মনে করছে তারা।

[ আরও পড়ুন: ‘নির্ভয়ার ধর্ষকদের অঙ্গদানের নির্দেশ দেওয়া হোক’, আরজি প্রাক্তন বিচারপতির ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement