BREAKING NEWS

০৯  আষাঢ়  ১৪২৯  রবিবার ২৬ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

২৯ বছর পলাতক, অবশেষে গ্রেপ্তার ১৯৯৩ মুম্বই হামলার চার অভিযুক্ত

Published by: Biswadip Dey |    Posted: May 17, 2022 9:41 pm|    Updated: May 17, 2022 9:41 pm

4 wanted in 1993 Mumbai blasts case arrested in Gujarat। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিডিন ডিজিটাল ডেস্ক: ১৯৯৩ সালের মুম্বই বিস্ফোরণ মামলায় (1993 Mumbai blasts) অভিযুক্ত চারজনকে গ্রেপ্তার করল গুজরাটের (Gujarat) ‘অ্যান্টি টেররিস্ট স্কোয়াড’ তথা এটিএস। গত ২৯ বছর ধরে পলাতক ছিল ওই চারজন। তাদের নামে রেড কর্নার নোটিস জারি করেছিল ইন্টারপোল। অবশেষে পুলিশের জালে চার অভিযুক্ত।

সংবাদ সংস্থা পিটিআইয়ের সূত্রে জানা যাচ্ছে, চার ধৃতের নাম আবু বকর, সৈয়দ কুরেশি, মহম্মদ শোয়েব কুরেশি ওরফে শোয়েব বাওয়া এবং মহম্মদ ইউসুফ ওরফে ইউসুফ ভটকা। তারা সকলেই মুম্বইয়ের বাসিন্দা। গত ১২ মে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানাচ্ছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: শুরুর দিনই শেয়ার বাজারে বড় ধাক্কা খেল LIC, লোকসানের মুখে বিনিয়োগকারীরা]

এটিএসের ডিজিপি অমিত বিশ্বকর্মা জানিয়েছেন, পুলিশের কাছে খবর ছিল অভিযুক্তদের ব্যাপারে। সেইমতো হানা দিতেই ধরা পড়ল তারা। সংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি বলেন, ”নিজেদের পরিচয় গোপন রেখে ওরা জাল নথি ব্যবহার করে পাসপোর্ট জোগাড় করেছিল। সিবিআইয়ের নির্দেশে ওই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে রেড কর্নার নোটিস জারি করেছিল ইন্টারপোল।”

নয়ের দশকে দাউদ ইব্রাহিমের সঙ্গী সোনা চোরাচালানকারী মহম্মদ দোসার হয়ে কাজ করত অভিযুক্তরা। এরপর দোসারই নির্দেশে তারা পাকিস্তানে গিয়ে অস্ত্রশিক্ষাও করেছিল। মুম্বই বিস্ফোরণ হামলার চক্রান্তের সঙ্গে গোড়া থেকেই যুক্ত ছিল তারা।

[আরও পড়ুন: রাম মন্দির মামলায় লড়েছিলেন হিন্দুদের পক্ষে, জ্ঞানবাপী মামলায় বিচারপতি সেই নরসিমা]

১৯৯৩ সালের ১২ মার্চ ‘কালো শুক্রবারে’ দেশের প্রথম সন্ত্রাসবাদী হামলায় কেঁপে উঠেছিল মুম্বই। মোট ১৩টি বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। যাতে মৃত্যু হয় ২৫৭ জনের। আহত হন ৭১৩ জন। কেবল মুম্বই-ই নয়, গোটা দেশই কার্যত থরথরিয়ে উঠেছিল মৃত্যু-রক্ত-ধ্বংসের নারকীয় রূপ দেখে। আজও অধরা এই হামলার মূল চক্রীরা। সেই সঙ্গে এই চার অভিযুক্তও ছিল পলাতক। অবশেষে গুজরাট যেতে গিয়েই তারা ধরা পড়ল পুলিশের জালে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে বাকি অভিযুক্তদের সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যায় কিনা, সেটাই এবার দেখার।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে