৪ মাঘ  ১৪২৬  শনিবার ১৮ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo ফিরে দেখা ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৪ মাঘ  ১৪২৬  শনিবার ১৮ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জম্মু ও কাশ্মীরের বিভিন্ন জায়গায় ভয়াবহ তুষারধসের ফলে কমপক্ষে ১০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। তাঁদের মধ্যে পাঁচ সেনা জওয়ানও আছে । প্রশাসনের তরফে বেশিরভাগ এলাকার মানুষকে নিরাপদ স্থানে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। প্রতিকূল পরিবেশ সত্ত্বেও বিভিন্ন জায়গায় উদ্ধার কাজ চালাচ্ছেন সেনা ও প্রশাসনের আধিকারিকরা।

প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, কুপওয়ারা জেলার মাচিল সেক্টরের সীমান্ত এলাকায় মঙ্গলবার সকালে আচমকা তুষারধস (avalanche) নামে। এর ফলে ওই এলাকার আউটপোস্টে ডিউটিতে থাকা ভারতীয় সেনা জওয়ানদের মধ্যে অনেকে চাপা পড়ে যান। পরে তাঁদের মধ্যে পাঁচজনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

[আরও পড়ুন: প্রথম রাজ্য হিসেবে নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে কেরল ]

 

অন্যদিকে গান্দেরবাল জেলার সোনমার্গ এলাকার কুলান গ্রামে ভয়াবহ ধস নামার জেরে কমপক্ষে পাঁচজনের মৃত্যু হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। এর পাশাপাশি রামপুর ও গুরেজ সেক্টর থাকা সেনার আউটপোস্টগুলি ধসের কবলে পড়েছে। কিন্তু, এখনও পর্যন্ত ওই এলাকাগুলি থেকে কোনও খবর পাওয়া যায়নি।

[আরও পড়ুন: ‘কোনও বাংলাদেশি ভারতের আশ্রয়ে যেন সুপ্রতিষ্ঠিত হন’, CAA ইস্যুতে মন্তব্য সত্য নাদেলার ]

 

আরও জানা গিয়েছে যে জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখের উঁচু এলাকাগুলিতে প্রবল বর্ষণ ও তুষারপাতের ফলে পরিস্থিতি খুব ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। তাই ওই এলাকাগুলিতে মঙ্গলবার থেকে বুধবার পর্যন্ত প্রচুর তুষারধস নামতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রশাসনের তরফে সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের ধসপ্রবণ এলাকাগুলিতে ঘোরাঘুরি করতে নিষেধ করেছে তারা। পাশাপাশি ধসে যাওয়া এলাকাগুলিতে উদ্ধার কাজ চালানো হচ্ছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য,গত সপ্তাহে পুঞ্চ জেলার সীমান্ত এলাকায় তুষারধসের ফলে সেনার এক মালবাহকের মৃত্যু হয়। জখম হন আরও তিনজন। শাহপুর সেক্টরে ঘটা ওই দুর্ঘটনার খবর পাওয়ার পরে সেখানে উদ্ধার কাজ শুরু করেন সেনা। এর ফলে বাকি তিনজনকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা সম্ভব হয়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং