BREAKING NEWS

৮ মাঘ  ১৪২৮  শনিবার ২২ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

নিয়ন্ত্রণরেখায় ফের পাক বর্বরতা, রেঞ্জার্সের বুলেটে নিহত আট মাসের শিশু

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 22, 2018 4:38 pm|    Updated: May 22, 2018 4:38 pm

8-month-old killed in ceasefire violation

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে গুলি বিনিময়ে প্রাণ গেল এক আট মাসের শিশুর। সোমবার রাতে ফের সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে পাকিস্তান। জম্মু ও কাশ্মীরের আখনুরের কেরি বাতাল এলাকায় গুলি চালায় তারা। তখনই বুলেটের আঘাতে জখম হয় শিশুটি।

স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, শত্রুপক্ষের একটি গুলি এসে ওই শিশুর গায়ে লাগে। সে তার পরিবারের সঙ্গে বাড়ির বাইরে ঘুমিয়েছিল। ওই শিশুর বাড়ি পাল্লানওয়ালা সেক্টরে। নিয়ন্ত্রণ রেখার ওপার থেকে গুলি বিনিময়ের পর আর্নিয়া সেক্টরের সমস্ত বাড়ি খালি করে দেওয়া হয়েছে। নাগরিকদের সুরক্ষিত স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

[ পাকিস্তানের বুকে কাঁপন ধরিয়ে ভারতের অস্ত্রাগারে আরও অত্যাধুনিক ব্রহ্মস মিসাইল ]

তবে শুধু সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে নিয়ন্ত্রণ রেখা টপকে গুলি চালিয়েই খুশি থাকবে না পাকিস্তান। সূত্রের খবর, পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই নাকি জইশ-ই-মহম্মদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে। ওই জঙ্গি সংগঠনকে ভারতে কোনও বড় রকম সন্ত্রাসের পরিকল্পনার জন্য উসকানি দিচ্ছে তারা। তবে শুধু জইশ-ই-মহম্মদ নয়। মনে করা হচ্ছে, হিজবুল মুজাহিদ্দিন ও লস্কর-ই-তইবার সঙ্গেও হাত মেলাচ্ছে আইএসআই। নিয়ন্ত্রণ রেখা টপকে গোটা কাশ্মীর উপত্যকায় সন্ত্রাসবাদের পরিকল্পনা ছকছে তারা।

[ সংঘর্ষবিরতির ‘আকুতি’ জানিয়ে হামলা পকিস্তানের, যোগ্য জবাব ভারতের ]

২০১৬ সালে পাঠানকোট হামলার ধাঁচে এই সন্ত্রাসবাদী হামলা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। এর জন্য নাকি পাক অধিকৃত কাশ্মীরে ট্রেনিংও চলছে। সেখানে জইশ-ই-মহম্মদের জঙ্গিদের নতুন প্রযুক্তির আগ্নেয়াস্ত্রের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। তেহরিক-ই-তালিবান জঙ্গিদেরও নাকি ট্রেনিং ক্যাম্পে দেখা গিয়েছে।

খবর, পাকিস্তানে আইএসআই পাকিস্তানি তালিবান সন্ত্রাসীদের মুক্তি দিচ্ছে। তবে তার জন্য শর্ত আরোপ করেছে তারা। শর্ত এই যে, তারা জইশ-ই-মহম্মদের হয়ে জম্মু ও কাশ্মীরে হামলা চালাবে। ভারতীয় সেনার উপর আক্রমণের জন্য তাদের নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে