BREAKING NEWS

১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

প্রকাশ্যেই সাধুর উপর চড়াও যুবক, কেটে নেওয়া হল জটা! ভাইরাল ভিডিও ঘিরে চাঞ্চল্য

Published by: Biswadip Dey |    Posted: May 25, 2022 9:39 am|    Updated: May 25, 2022 9:39 am

A case of harassment and beating of a sadhu in Madhya Pradesh has come to the fore। Sangbad Pratidin

প্রতীকী ছবি।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এক ভিক্ষুক সাধুকে (Sadhu) ধরে মারধর ও তাঁর জটা কেটে দেওয়ার ঘটনায় উত্তাল মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) খান্ডোয়া। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে ঘটনার ভিডিও। তাতে দেখা গিয়েছে, অভিযুক্ত যুবক ওই সাধুকে গালাগালি দিতে দিতে তাঁকে শারীরিক নিগ্রহ করছে। এরপর তাঁর জটাও কেটে দেয় সে। ইতিমধ্যেই পুলিশ আটক করেছে অভিযুক্তকে।

ঘটনাটি ঘটেছে আদিবাসী অধ্যুষিত ব্লক খালওয়া থানার অন্তর্গত পটাজন অঞ্চলের। গত রবিবার দুপুরে ঘুরে ঘুরে ভিক্ষা করতে দেখা যায় ওই সাধুকে। সেই সময়ই এক যুবক তাঁকে ধরে মারতে শুরু করে। তারপর মারতে মারতে তাঁকে রাস্তার ধারের এক সেলুনে নিয়ে যায়। সেখানেই ওই বৃদ্ধের চুল কেটে দেওয়া হয়। অভিযুক্তের নাম প্রবীর গৌর। সে এক হোটেল মালিকের ছেলে বলে জানা গিয়েছে। ঘটনার সময় বহু মানুষ আশপাশে উপস্থিত থাকলেও অভিযুক্তকে কেউ বাধা দেয়নি। কিন্তু ঘটনার পুরোটাই মোবাইলে তুলে রাখেন অনেকেই। পরে সেই ভিডিওই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে বিষয়টি পুলিশের নজরে আসে।

[আরও পড়ুন: ‘বিশ্বনেতা…’, কোয়াডের রাষ্ট্রনেতাদের মধ্যে প্রথম সারিতে মোদি, নেটদুনিয়ার চর্চায় এই ছবি]

কিন্তু কেন ওই সাধুকে এভাবে নিগ্রহ করল অভিযুক্ত? ওই সাধুর পরিচয় কী? এমনই নানা প্রশ্ন উঠে এলেও এখনও তা অজানা। তবে পুলিশ পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে অভিযুক্তকেও।

জেলার পুলিশ সুপারিটেন্ডেন্ট বিবেক সিং এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে এই বিষয়ে কথা বলার সময় জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি থানায়। তবে পুলিশ ওই ভিডিওর ভিত্তিতে মামলা রুজু করেছে। এরপরই অভিযুক্তকে আটক করে তাকে পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পাশাপাশি ওই সাধুকে খুঁজে বের করার চেষ্টাও হচ্ছে। এই ঘটনার যাতে যথোপযুক্ত তদন্ত হয়, পুলিশ সেই চেষ্টা করবে বলে জানিয়েছেন সুপারিটেন্ডেন্ট।

 [আরও পড়ুন: মোদির গুজরাটকে টপকে মহিলা কর্মসংস্থানে ভারতসেরা বাংলা, বলছে কেন্দ্রীয় রিপোর্ট]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে