২৬  শ্রাবণ  ১৪২৯  সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

তীর্থে গিয়ে বিবাদ, মন্দিরে পুজো দিয়েই খাদে মরণধাক্কা স্ত্রীকে

Published by: Sayani Sen |    Posted: July 17, 2019 3:38 pm|    Updated: July 17, 2019 3:38 pm

A man allegedly pushing his wife to death from the peak of a mountain

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অনেকদিন পর তীর্থ করতে গিয়েছিলেন দু’জনে। প্রথমদিকে দিব্যি কাটছিল তাঁদের। কিন্তু হঠাৎ তাঁদের মধ্যে সামান্য ঝগড়া। আর তার জেরেই স্ত্রীকে ৮০০ ফুট গভীর খাদে ফেলে দিল স্বামী। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে ওই মহিলার। তাঁর ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনার পরই পালানোর চেষ্টা করেছিল ওই মহিলার স্বামী। কিন্তু পুলিশের জালে ধরে পড়ে যায় ওই ব্যক্তি। স্ত্রীকে হত্যার দায়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাকে। সোমবার সকালে নাসিকের কালওয়ান তালুকের সপ্তশ্রুঙ্গি তীর্থক্ষেত্রে এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে। মধ্যপ্রদেশের মুরাদপুরের বাসিন্দা ২২ বছরের বাবুলাল লাখান কালেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

[ আরও পড়ুন: ম্যারাথন মহাকাশ অভিযানের পথে ভারত, চন্দ্রযান ৩-এর প্রস্তুতিও শেষ ইসরোর]

তদন্তকারী দলের পদস্থ এক অফিসার জানিয়েছেন, রবিবার কালওয়ানে পৌঁছন কালে ও তাঁর স্ত্রী কবিতা। একটি হোটেলে রাত কাটিয়ে সোমবার সকাল সাড়ে আটটায় তাঁরা ‘চেক আউট’ করে সপ্তশ্রুঙ্গী দর্শনে যান। মন্দির থেকে তাঁরা যান কাছের শীতকাডা শৃঙ্গে। সেখানে দু’জনের মধ্যে ঝামেলা বাধলে সকাল ১১টা নাগাদ কালে তাঁর স্ত্রী কবিতাকে ধাক্কা মেরে খাদে ফেলে দেয় বলে অভিযোগ।

নাসিকের পুলিশ সুপার আরতি সিং জানিয়েছেন, এক ফলবিক্রেতা কালেকে তাঁর স্ত্রীকে ঠেলে ফেলে দিতে দেখেন। ওই প্রত্যক্ষদর্শীর চিৎকারেই জড়ো হন অন্য পুণ্যার্থীরাও। পালানোর চেষ্টা করে কালে। কিন্তু অন্য পুণ্যার্থীরাই কালেকে পুলিশের হাতে তুলে দেন। কালের বোনের বিয়ে হয়েছিল কবিতার দাদার সঙ্গে। তবে তাঁদের মধ্যে নিত্য ঝগড়া লেগে থাকায় মাঝেমাঝেই কালের কাছে এসে থাকতেন তাঁর বোন। এতেই আপত্তি ছিল কবিতার। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ঘটনার আগে পুজোর সামগ্রী কেনেন ওই দম্পতি। পুজো দিয়ে একসঙ্গে ছবিও তোলেন। 

[ আরও পড়ুন: ঝাড়ফুঁকের নামে হাসপাতালেই নগ্ন করা হল যুবতীকে, প্রশ্নের মুখে নিরাপত্তা]

এদিকে, পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, ধৃতকে বেশ কয়েকবার জেরা করা হয়েছে। জেরায় নিজের দোষ স্বীকার করেছেন কালে। তবে সত্যিই ঝগড়ার কারণে তিনি স্ত্রীকে ধাক্কা দিয়েছিলেন না কি অন্য কোনও কারণে স্ত্রীকে খুন করেছেন, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অন্যদিকে, কালের পরিবারের সদস্যরাই জানিয়েছেন, কালে বেশকিছু দিন ধরেই মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিল। প্রাথমিক অনুমান, ব্যবসায়িক কারণেই তাঁর হতাশা দেখা দিয়েছিল। এ নিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে সমস্যাও দেখা দেয়।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে