১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শুক্রবার ৩ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

প্রেমিককে ভিডিও চ্যাটে রেখে হস্টেলের ঘরে আত্মঘাতী এমবিএ ছাত্রী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 18, 2018 5:28 pm|    Updated: February 18, 2018 5:28 pm

A management student reportedly hanged herself during a video call with her boyfriend in  Hyderabad

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বয়ফ্রেন্ডকে ভিডিও কলে রেখে হস্টেলের ঘরে আত্মঘাতী হলেন ছাত্রী। মৃতের নাম হানিশা চৌধুরি। শনিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে তেলেঙ্গানার হায়দরাবাদ শহরের কোমপাল্লি এলাকার এক বেসরকারি ছাত্রী আবাসনে।

[মালিকের স্ত্রীকে নিয়ে উধাও, অপরাধে অ্যাসিডে ঝলসানো হল যুবকের চোখ]

জানা গিয়েছে, অনিশার বাড়ি হায়দরাবাদ শহর থেকে ৩৫০ কিলোমিটার দূরের অনন্তপুরায়। জায়গাটি অন্ধ্রপ্রদেশের অন্তর্গত। পড়াশোনার কারণে দীর্ঘদিন ধরেই বাড়ির বাইরে থাকেন অনিশা। শনিবার রাতে বয়ফ্রেন্ড দক্ষিত প্যাটেলের সঙ্গে কথা বলছিলেন। ভিডিও চ্যাটে চলছিল বার্তালাপ। কথাবার্তা চলাকালীনই গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন ওই ছাত্রী। আবাসনের অন্য ছাত্রীরাই প্রথম ঘটনাটি দেখতে পায়। অনেকক্ষণ দরজা ধাক্কা দিলেও ভিতর থেকে কোনও রকম সাড়া শব্দ আসছিল না। তাই দরজা ভাঙতে বাধ্য হন ছাত্রীরা। ভাঙা দরজা দিয়ে দেখা যায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে পড়েছেন হানিশা। পাশে ভিডিও মোডে পড়ে আছে ফোন। তড়িঘড়ি ওই ছাত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করে।

ঘটনার পরেই পুলিশে খবর দেওয়া হয়েছে। একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। আবাসনের ঘর থেকে মৃত ছাত্রী ফোনটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। সেটি ভাল করে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ফোনের কললিস্ট ঘেঁটে দেখা হচ্ছে ঠিক কার কার সঙ্গে শনিবার রাতে হানিশা কথা বলেছিলেন। তবে বয়ফ্রেন্ড দক্ষিত প্যাটেলের ফোন নম্বর কললিস্টের একেবারে উপরে রয়েছে। ঘটনা ঘটার সময় দক্ষিতের সঙ্গে ভিডিও চ্যাটে ছিলেন ওই ছাত্রী। তবে কী কারণে তিনি আত্মঘাতী হওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন তা এখনও স্পষ্ট নয়। দক্ষিত প্যাটেলের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

[নৃশংস! ডাইনি অপবাদে মা-মেয়েকে নেড়া করে খাওয়ানো হল মলমূত্র]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে