২৬  শ্রাবণ  ১৪২৯  সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

আহমেদাবাদ বিস্ফোরণ মামলায় ৩৮ জনকে ফাঁসির সাজা শোনাল বিশেষ আদালত

Published by: Biswadip Dey |    Posted: February 18, 2022 11:49 am|    Updated: February 18, 2022 1:16 pm

A special court pronounces death sentence to 38 out of 49 convicts in 2008 Ahmedabad serial blast case। Sangbad Pratidin

প্রতীকী ছবি।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২০০৮ সালের আহমেদাবাদ (Ahmedabad blast) বিস্ফোরণ মামলায় বিরল রায়দান আদালতের। দোষী সাব্যস্ত হওয়া ৪৯ জনের মধ্যে ৩৮ জনকে ফাঁসির সাজা শোনাল গুজরাটের (Gujarat) বিশেষ আদালত। কয়েকদিন আগেই তাদের দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল। একসঙ্গে এতজনকে ফাঁসির সাজা এদেশে এই প্রথম। বাকি ১১ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে।

২০০৮ সালের ২৬ জুলাই ধারাবাহিক বিস্ফোরণে কেঁপে উঠেছিল আহমেদাবাদ। সেদিন সব মিলিয়ে ৭০ মিনিটের মধ্যে ২১টি জায়গায় বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছিল। তাতে মৃত্যু হয় ৫৬ জনের। আহত হন ২০০-রও বেশি মানুষ। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, এই বিস্ফোরণের যড়যন্ত্র করেছিল ইন্ডিয়ান মুজাহিদিন নামের এক জঙ্গী গোষ্ঠী। মনে করা হয়, ২০০২ সালে গোধরা অগ্নিকাণ্ডের পরে গুজরাটে যে দাঙ্গা হয়, তারই বদলা নিতে এই নাশকতামূলক চক্রান্ত করেছিল ইসলামপন্থী জঙ্গি গোষ্ঠীটি। 

[আরও পড়ুন: দেশের কোভিড গ্রাফে ফের উন্নতি, অনেকটা কমল সংক্রমণ, মৃত পাঁচশোরও কম]

দ্রুত তদন্তে নামে পুলিশ। এরপর সুরাটেরও বিভিন্ন জায়গায় বোমা উদ্ধার করা হয়। আহমেদাবাদে ২০ ও সুরাটে ১৫ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয় প্রাথমিক ভাবে। পরে সব মিলিয়ে ৮৫ জনকে আটক করা হয়। আদালতে অবশ্য তোলা হয় ৭৮ জনকে। পরে অভিযুক্তের সংখ্যা কমে হয় ৭৭। ২০০৯ সালের ডিসেম্বরে শুনানি শুরু হয়েছিল। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে খুন, অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র করার অভিযোগের পাশাপাশি ইউপিএ ধারাতেও মামলা রুজু করা হয়। দীর্ঘ দিন ধরেই চলছিল মামলাটির শুনানি। সব মিলিয়ে ১ হাজার ১০০ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়। অবশেষে কয়েকদিন আগে রায় দেয় আদালত। মামলায় অভিযুক্ত ৭৭ জনের মধ্যে ২৮ জনকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। দোষী সাব্যস্ত করা হয় ৪৯ জনকে। এবার তাদের মধ্যে ৩৮ জনকে শোনানো হল ফাঁসির সাজা। 

[আরও পড়ুন: গণতন্ত্র নিয়ে ভাষণে সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রীর মুখে নেহরুর নাম! রাষ্ট্রদূতকে তলব করল দিল্লি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে