BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৭ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মহিলাদের শৌচালয়ে গোপন ক্যামেরা, নেটদুনিয়ায় ভাইরাল ক্যাফে কর্তৃপক্ষের কুকীর্তি

Published by: Sayani Sen |    Posted: November 9, 2019 4:27 pm|    Updated: November 9, 2019 5:12 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ক্যাফেটেরিয়ায় মহিলাদের শৌচালয়ে দেখা মিলল গোপন ক্যামেরার। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শিরোনামে জায়গা করে নিল পুনের বিহাইভ নামে একটি ক্যাফে। ক্যাফেটেরিয়া কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হন ওই মহিলা। প্রতিবাদের সুর চড়িয়েছেন নেটিজেনরাও।

দিন তিনেক আগে ওই তরুণী পুনের হিঞ্জাওয়াড়ির বিহাইভ ক্যাফেতে গিয়েছিলেন। সঙ্গে ছিলেন তাঁর একদল বন্ধুবান্ধব। তরুণী শৌচাগারে যান। এদিক-ওদিক তাকাতে গিয়েই শৌচালয়ে একটি গোপন ক্যামেরা দেখতে পান তিনি। তড়িঘড়ি স্মার্টফোনে ওই ক্যামেরার ছবিও তুলে নেন তরুণী।

Hidden Camera

শৌচালয়ে গোপন ক্যামেরা রাখা রয়েছে বলে ক্যাফে কর্তৃপক্ষকে অভিযোগ জানান তরুণী। তাঁর দাবি, সেই সময় শৌচালয়ের বাইরে অপেক্ষা করতে বলে ক্যাফে কর্তৃপক্ষ। ঘটনা ধামাচাপা দিতে মাত্র দশ মিনিটের মধ্যেই ওই শৌচালয় থেকে গোপন ক্যামেরা সরিয়ে ফেলা হয় বলে অভিযোগ। যাতে কোনওভাবে গোপন ক্যামেরার কথা ছড়িয়ে না পড়ে সে বিষয়ে তরুণীকে ক্যাফে কর্তৃপক্ষ চাপ দেয় বলেও অভিযোগ। এমনকী বেশ কিছু পরিমাণ টাকা দিতেও চায় তারা। তবে তরুণী তা নিতে রাজি হননি। পরিবর্তে ক্যাফেটেরিয়া ছেড়ে বাড়ি ফিরে আসেন তিনি।

ইনস্টাগ্রামে গোপন ক্যামেরার একাধিক ছবি পোস্ট করেন ওই তরুণী। গোটা ঘটনাবিস্তারিতভাবে উল্লেখ করেন। নেটিজেনরা ওই ছবি দেখেই ক্ষোভে ফুঁসছেন। তরুণীদের সম্ভ্রম নষ্টের চেষ্টা করেছে ক্যাফেটেরিয়া। তাই অবিলম্বে ওই ক্যাফে কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবি জানিয়েছেন নেটিজেনরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় বিহাইভ ক্যাফের ‘‌জোম্যাটো’‌ পেজও তীব্র নিন্দায় ভরে গিয়েছে। একগুচ্ছ ইনস্টাগ্রাম পোস্ট পুনের চিঁচওয়াড় থানার পুলিশেরও নজর এড়ায়নি। তবে ওই তরুণী ক্যাফেটেরিয়ার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়েরের কথা বলে পুলিশ। অভিযোগ দায়েরের পর প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করা যাবে বলেই জানিয়েছেন আধিকারিকরা।

[আরও পড়ুন: অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে ছিল মন্দিরই? সাতটি প্রমাণ তুলে ধরলেন প্রত্নতত্ত্ববিদরা]

উল্লেখ্য, এর আগে গত মে মাসেও এমন ঘটনার সাক্ষী হয়েছিলেন এক দম্পতি। উত্তরাখণ্ডের তেহরির একটি হোটেলের ঘরে গোপন ক্যামেরা রাখা ছিল বলেই অভিযোগ করেছিলেন তাঁরা। ওই দম্পতির অভিযোগের ভিত্তিতে হোটেল মালিককে গ্রেপ্তার করাও হয়েছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement