BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

আরুষী হত্যা মামলায় এবার সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ সিবিআই

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 9, 2018 4:36 pm|    Updated: August 24, 2019 3:36 pm

Aarushi murder: CBI challenges Talwar couple’s acquittal in SC

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আরুষি হত্যায় মামলায় এবার সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ সিবিআই। গত অক্টোবরেই সম্মান রক্ষায় মেয়ে খুন করার অভিযোগ থেকে তলোয়ার দম্পতিকে রেহাই দিয়েছে এলাহাবাদ হাই কোর্ট। বেকসুর খালাস পেয়েছেন রাজেশ ও নূপুর তলোয়ার। সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করেছে সিবিআই। নিয়ম অনুসারে, এলাহাবাদ হাই কোর্টে রায় ঘোষণার ৯০ দিনের মধ্যে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করা যেত। কিন্তু, এক্ষেত্রে ১৪০ দিন পেরিয়ে গিয়েছে। তাই বিলম্বের জন্য সুপ্রিম কোর্টে আলাদা একটি পিটিশনও জমা দিয়েছে সিবিআই।

[শর্তসাপেক্ষে স্বেচ্ছামৃত্যুর অধিকারকে স্বীকৃতি, ঐতিহাসিক রায় সুপ্রিম কোর্টের]

বছর দশেক আগে নয়ডার কিশোরী আরুষি তলোয়ারকে খুনের ঘটনায় দেশ জুড়ে শোরগোল পড়েছিল। ২০০৮-এর ১৬ মে চিকিৎসক দম্পতি রাজেশ ও নূপুর তলোয়ার বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছিল তাঁদের একমাত্র মেয়ে দেহ। প্রাথমিকভাবে বাড়ির কাছে লোক হেমরাজই আরুষিকে খুন করেছে বলে বলে সন্দেহ করেছিল পুলিশ। কিন্তু, পরের দিন তলোয়ার দম্পতির বাড়ির বারান্দা থেকে উদ্ধার হেমরাজের দেহ। এরপরই অভিযোগে তির ঘুরে যায় আরুষির বাবা-মায়ের দিকে। উত্তরপ্রদেশ দাবি করে, আরুষির সঙ্গে হেমরাজের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। দু’জনকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখেও ফেলেছিলেন আরুষির বাবা রাজেশ তলোয়ার। তাই পরিবারে সম্মানরক্ষায় জন্য নিজের মেয়ে ও বা়ড়ির কাজের লোককে খুন করেছেন তলোয়ার দম্পতি। উত্তরপ্রদেশ সরকারের নির্দেশে আরুষি হত্যা মামলায় তদন্তে নামে সিবিআই। রাজেশ ও নূপুর তলোয়ারকে গ্রেপ্তার করা হয়। পারিপার্শ্বিক তথ্য-প্রমাণে ভিত্তিতে তলোয়ার দম্পতির বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা পড়ে সিবিআই আদালতে। দোষী সাব্যস্ত হন তাঁরা। যাবজ্জীবন সাজা হয়।

[রেহাই নেই প্রধানমন্ত্রীরও, যোগীর রাজ্যে নাক ভাঙল মোদির মূর্তির]

সিবিআই আদালতের রায় চ্যালেঞ্জ করে এলাহাবাদ হাই কোর্টের মামলা করেন ওই চিকিৎসক দম্পতি। দীর্ঘ শুনানির পর গত বছরের অক্টোবরে রাজেশ ও নূপুর তলোয়ার বেকসুর খালাস দেয় আদালত। এলাহাবাদ হাই কোর্টের বিচারপতি বলেন, বাবা-মাই যে আরুশিকে খুন করেছেন, এমন কোনও অকাট্য প্রমাণ আদালতে পেশ করতে পারেনি সিবিআই। পাঁচ মাস পর, তলোয়ার দম্পতিকে বেকসুর খালাস দেওয়ার বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। সূত্রের খবর, এলাহাবাদ হাই কোর্টে রায় খতিয়ে দেখার পর সিবিআই আইনজীবীরা মনে করছেন, এই রায়ে ত্রুটি রয়েছে। আইনজীবীদের পরামর্শে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করা হয়েছে। এখন সুপ্রিম কোর্টে আরুষি হত্যা মামলায় তলোয়ার দম্পতি দোষী সাব্যস্ত হন কিনা, সেটাই দেখার।

[দেশের সবচেয়ে প্রভাবশালী মহিলা রাজনীতিবিদ সুষমা, অনেক পিছনে সোনিয়া]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে