BREAKING NEWS

২  ভাদ্র  ১৪২৯  বুধবার ১৭ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

চিট ফান্ড প্রতারণা কাণ্ডেও জড়িত ছিল বিহারের ‘টপার’

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 4, 2017 12:24 pm|    Updated: June 4, 2017 12:24 pm

Accused in Chit Fund Scam, Another blunder for Bihar topper

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বয়স ভাঁড়িয়ে দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা দেওয়ার অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আর সেই ঘটনার তদন্তে বিহারের ‘টপার’ গণেশ কুমার সম্পর্কে আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এল। পুলিশ জানিয়েছে, ঝাড়খণ্ডে ১৫ লক্ষ টাকা প্রতারণার ঘটনায়ও জড়িত ছিল গণেশ কুমার।

[অভিযোগ জানাতে এসে থানার ভিতরেই শ্লীলতাহানির শিকার দুই বোন]

প্রসঙ্গত, গণেশ কুমারের আদিবাড়ি ঝাড়খণ্ডে। বেশ কয়েক বছরে আগে রুজি-রুটির সন্ধানে বিহারের সমস্তিপুরে চলে আসে সে। সেখানকার রামনন্দন সিং জগদীপ নারায়ণ হাইস্কুল থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা দেয় গণেশ কুমার। দিন কয়েক আগেই পরীক্ষায় ৮২. ৬ শতাংশ নম্বর পেয়ে গণেশ কুমার প্রথম হওয়াতে রীতিমতো সাড়া পড়ে গিয়েছিল। এরমধ্যে হিন্দিতে ৯২ শতাংশ, সংগীতে ৮২ শতাংশ নম্বর ছিল। কিন্তু পরে একটি টেলিভিশন চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে বাধে বিপত্তি। পরীক্ষায় প্রথম হলেও নিজের বিষয় সংগীত সম্পর্কে কিছু সহজ প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেনি গণেশ কুমার। সুর, তাল, লয় কী বলতে পারেনি। গান শোনাতে বললে শুনিয়ে দেন বলিউডের বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় গান। তাও বেসুরো গলায়। এখানেই শেষ নয়, গণেশের মতে, বিখ্যাত গায়িকা লতা মঙ্গেশকর-কে নাকি ‘মৈথিলী কোকিলা’  নামে ডাকা হয়। অথচ এই উপাধি দেওয়া হয়েছিল বিহারের সমস্তিপুরের বিখ্যাত লোকশিল্পী সারদা সিনহাকে। এরপরেই শুরু হয় বিতর্ক।

[OMG! লজেন্স ফেরিওয়ালার অ্যাকাউন্টে মিলল ১৮ কোটি টাকা!]

অবশেষে শুক্রবার বিহারের ‘টপার’ গণেশ কুমারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। দায়ের করা হয় জালিয়াতি অভিযোগ। জানা যায়, ২৪ নয়, গণেশ কুমারের বয়স ৪২। তার দুটি সন্তানও রয়েছে। গণেশকে লাগাতার জেরা করার পর এসএসপি মনু মহারাজ জানিয়েছেন, ঝাড়খণ্ডের গিরিডিতে একটি চিট ফাণ্ড কোম্পানিতে চাকরি করত গণেশ কুমার। সেইসময়ে কলকাতার একটি চিট ফাণ্ড কোম্পানি থেকে ১৫ লাখ টাকা আত্মসাৎ করে সে। আমানতকারীরা টাকার জন্য লাগাতার চাপ দিতে থাকায়, ২০১৩ সালে পাটনায় পালিয়ে আসে গণেশ কুমার।

[উত্তরাখণ্ডে ঢুকে পড়ল চিনা হেলিকপ্টার, জারি চূড়ান্ত সতর্কতা]

তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে, পাটনায় আসার পর নিজের বয়স প্রায় ১৮ বছর কমিয়ে সরকারি চাকরি পাওয়ার চেষ্টা করছিল গণেশকুমার। পুলিশ সূত্রে খবর, জেরায় গণেশ কুমার জানিয়েছে, পাটনায় কয়েকজন ব্যক্তির সাহায্যে প্রথমে সমস্তিপুরের সঞ্জয় গান্ধী হাইস্কুলে দশম শ্রেণিতে ভর্তি হয় সে। পরে সমস্তিপুরের রামনন্দন সিং জগদীপ নারায়ণ হাইস্কুলে ভর্তি হয়। পাটনার এসএসপি মনু মহারাজ জানিয়েছেন, গণেশ কুমার সম্পর্কে আরও তথ্য জানতে গিরিডি পুলিশের সঙ্গে যোগযোগ করা হবে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে