BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

কৈরানায় হারের কালমেঘ গিলে আখচাষিদের ৮০০০ কোটি অনুদানের ভাবনা কেন্দ্রের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 5, 2018 1:33 pm|    Updated: June 5, 2018 1:33 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কত আখে কত চিনি! কৈরানায় হারের কালমেঘ গিলে তা আর বুঝতে বাকি নেই কেন্দ্রীয় শাসকদল বিজেপির৷ উপনির্বাচনে হার অশনিসংকেত৷ সামনেই সাধারণ নির্বাচন৷ এবার তাই কোনও ভুলচুক করতে রাজি নয় সরকার৷ আখচাষিদের মিষ্টি খবর দিয়ে প্রায় ৮০০০ কোটি টাকা অনুদানের পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে৷ আগামিকাল মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে৷

 ভারতীয় সংবিধান এই মুহূর্তে বিপন্ন, মত গোয়ার আর্চবিশপের ]

প্রয়োজন ছিল প্রায় ২২,০০০ কোটি টাকার৷ দেওয়া হচ্ছে ৮০০০ কোটি টাকা৷ তাও মন্দের ভাল৷ কারণ টাকার অভাবে ঋণের দায়ে একরকম ধুঁকছেন আখচাষীরা৷ উত্তরপ্রদেশের কৈরানাতেই সবথেকে বেশি আখ চাষ হয় দেশে৷ এবারের নির্বাচনে আখচাষিদের ভার লাঘব করাই ছিল বিজেপির মূল প্রতিশ্রুতি৷ যদিও তা রক্ষা করা হয়নি৷ ফলে নির্বাচনে তার প্রভাব পড়ে৷ মানুষের এই ক্ষোভের প্রকাশ ঘটে ফলাফলেই৷ লোকসভা কেন্দ্র হাতছাড়া হয় বিজেপির৷ মর্যাদার লড়াইয়ে অজিত সিংয়ের আরএলডি-র কাছে ভরাডুবি হয়৷ রাজনৈতিকভাবে এর নানা বিশ্লেষণ উঠে এসেছে৷ তবে মূল কথা হল এই ক্ষোভ৷ ঋণের বোঝা যতটা প্রভাব ফেলেছিল, তাকেই নির্বাচনের মুখে চালিত করতে পেরেছিলেন বিরোধীরা৷ ফলত হারের কালমেঘ গিলতে হয় শাসক দলকে৷ ফলাফল ঘোষণা হওয়ার পর সমাজবাদী পার্টির নেতা তথা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব স্পষ্টই বলেছিলেন, কৃষকদের ঋণ মকুবের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল৷ তা তো হয়নি৷ বরং তাদের প্রাণ দিতে হয়েছে৷ এরই জবাব পেয়েছে বিজেপি৷ শাসকদলেরও তা বুঝতে অসুবিধে হয়নি৷ আসন্ন সাধারণ নির্বাচনে যাতে এই প্রভাব আরও জোরদার না হয় তাই আগেভাগেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হল৷ প্রায় আট হাজার কোটি টাকা অনুদান দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে কেন্দ্র৷ আগামিকাল মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে বলেই জানা যাচ্ছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement